২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাহানের ব্যাটে প্রথমদিন ভারতের

  • দিল্লী টেস্ট

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ সাবেক ওপেনার বীরেন্দ্র শেবাগকে খেলা শুরুর আগেই বিশেষ সম্মাননায় ভূষিত করেছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। সাবেক এই ওপেনারকে দেখেই হয়তো কিছুটা অনুপ্রেরণা পেয়েছেন বর্তমানে তার উত্তরসূরিরা। সে জন্যই সিরিজের চতুর্থ ও শেষ টেস্টের প্রথমদিনটা গেল সম্পূর্ণ ভিন্ন রকম। সিরিজের আগের তিন টেস্টেরই প্রথম দিনটা বোলারদের দাপটে ব্যাটিং করতে নামা দল অলআউট হয়ে গেছে। তবে ইতোমধ্যেই সিরিজ জয়ী ভারত দিল্লীর ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে প্রথমদিন শেষ করেছে ৭ উইকেটে ২৩১ রান নিয়ে। যদিও দক্ষিণ আফ্রিকার বোলাররা দারুণ দাপট দেখিয়েছেন। কিন্তু আজিঙ্কা রাহানের অপরাজিত ৮৯ রান এই প্রথম কোন ব্যাটিং দলকে চলতি সিরিজে দ্বিতীয়দিন পর্যন্ত উইকেটে টিকিয়ে রেখেছে। সে জন্য সিরিজে প্রথমবার এটা বলা যাচ্ছে প্রথমদিনটা ভারতের!

এবার ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা টেস্ট সিরিজে বোলাররাই আধিপত্য দেখিয়েছে। বিশেষ করে উভয় দলের স্পিনাররা। প্রথম টেস্টে মোহালিতে প্রথমদিনেই মাত্র ২০১ রানে ভারত, দ্বিতীয় টেস্টে ব্যাঙ্গালুরুতে প্রথমদিনেই দক্ষিণ আফ্রিকা মাত্র ২১৪ রানে এবং তৃতীয় টেস্টে নাগপুরে প্রথমদিনে ভারত মাত্র ২১৫ রানে গুটিয়ে গিয়েছিল। বৃহস্পতিবার দিল্লী টেস্টের প্রথম দিনটাও বোলারদেরই দাপট দেখা গেছে। একসময় মনেও হচ্ছিল প্রথমদিনেই টস জিতে ব্যাট করতে নামা ভারতীয় দলের ইনিংস গুটিয়ে যাবে। কিন্তু তা ঠেকিয়ে দিয়েছেন মিডলঅর্ডার ব্যাটসম্যান আজিঙ্কা রাহানে। তিনি ১৫৫ বলে ৯ চার ও ২ ছক্কায় ৮৯ রান করেছেন। এখনও অপরাজিত থাকার কারণে আজ দ্বিতীয়দিনে আরও কিছু রান যোগ হবে ভারতের ইনিংসে। শুরুটা বেশ সতর্কভাবেই শুরু করেছিলেন ভারতের ওপেনাররা। সকালের কুয়াশা আর আর্দ্র উইকেটে দক্ষিণ আফ্রিকার পেসাররা চেপে ধরেছিলেন। কিন্তু সব আক্রমণ ঠেকিয়ে উদ্বোধনী জুটি যোগ করে ৩০ রান। তবে প্রোটিয়া অফস্পিনার ডেন পিয়েট আক্রমণে এসে নিজের চতুর্থ ওভারেই আঘাত হানেন, ফিরিয়ে দেন মুরালি বিজয়কে (১২)। পরে দীর্ঘক্ষণই উইকেটে থেকে শিখর ধাওয়ান ও চেতেশ্বর পুজারা ৩২ রান যোগ করেন। তবে পিয়েট আবার আঘাত হানেন। ধাওয়ান সাজঘরে ফেরেন। পুজারাও ফিরে যান পেসার কাইল এ্যাবটের বলে। দলীয় ৬৬ রানে ৩ উইকেট পতনে বিপর্যয় শুরু হলেও চতুর্থ উইকেটে ৭০ রান যোগ করে ভারতকে ভাল একটি অবস্থানে নিয়ে যেতে থাকেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও রাহানে। কিন্তু কোহলিকে নিজের তৃতীয় শিকারে পরিণত করে পিয়েট আবার দক্ষিণ আফ্রিকার নিয়ন্ত্রণ এনে দেন। এরপর দ্রুত কয়েকটি উইকেট হারায় ভারত এ্যাবট-পিয়েটের দ্বিমুখী আক্রমণে। বাকিটা সময় একাই শুধু লড়েছেন রাহানে। আট নম্বরে নেমে রবীন্দ্র জাদেজা অবশ্য তাকে দারুণ সঙ্গ দিয়ে সপ্তম উইকেটে যোগ করেন ৫৯ রান। জাদেজা (২৪) ফিরে যাওয়ার পর বাকিটা সময় রবিচন্দ্রন অশ্বিন সতর্ক থেকে খেলেছেন। আর উইকেট হারাতে হয়নি ভারতকে। আলোর স্বল্পতার কারণে ৬ ওভার আগেই দিনের খেলা সমাপ্ত ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। ৭ উইকেটে ভারতের সংগ্রহ দিনশেষে ২৩১।