২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শেষ ষোলোয় বার্সিলোনা নিষেধাজ্ঞার শঙ্কায় রিয়াল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রাণভোমরা লিওনেল মেসি, নেইমার, লুইস সুয়ারেজ, অধিনায়ক আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, জেরার্ড পিকেসহ একঝাঁক তারকা ফুটবলার ছিলেন না। কিন্তু তাতে কি! এতে বার্সিলোনার জয়যাত্রা থেমে থাকেনি। বুধবার রাতে স্প্যানিশ কোপা ডেল রে ফুটবলের শেষ ৩২এর দ্বিতীয় লেগের ম্যাচে কাতালানরা ৬-১ গোলের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত করে ভিয়ানোভেন্সকে।

ন্যু-ক্যাম্পে বার্সার হয়ে দুর্দান্ত হ্যাটট্রিক করেন সান্ড্রো রামিরেজ, জোড়া গোল করেন তরুণ উদীয়মান মুনির আল হাত্তাদি। একটি গোল করেন দানিয়েল আলভেজ। এর আগে দু’দলের প্রথম লেগের ম্যাচ গোলশূন্য ড্র হয়েছিল। দুই লেগ মিলিয়ে তাই ৬-১ গোলের জয় নিয়ে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে লুইস এনরিকের দল। একই রাতে শেষ ৩২ পর্বের প্রথম লেগের ম্যাচে মাঠে নেমেছিল রিয়াল মাদ্রিদ। কাডিজের মাঠ থেকে রোনাল্ডোহীন গ্যালাক্টিকোরা ৩-১ গোলের ঘাম ঝরানো জয় পায়। কিন্তু নিয়ম ভঙ্গ করার কারণে নিষিদ্ধ হওয়ার শঙ্কার মধ্যে পড়েছে রিয়াল। রিয়ালের জয়ে জোড়া গোল করেন ইস্কো। একটি গোল করেন যাকে খেলানো নিয়ে বিতর্ক সেই ডেনিস চেরশেভ। রাশিয়ার জাতীয় দলের উইঙ্গার চেরশেভ গত মৌসুমে ভিয়ারিয়ালের হয়ে ধারে খেলতে গিয়ে তিনটি হলুদ কার্ড পেয়েছিলেন এই কোপা ডেল রেতেই। যে কারণে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। সেই নিষেধাজ্ঞা জারির পর পরশু প্রথম মাঠে নেমেছিলেন ২৬ বছর বয়সী এই রাশিয়ান ফুটবলার। রিয়ালের হয়ে ম্যাচের তৃতীয় মিনিটে প্রথম গোলটিও তিনিই করেন। বিরতির পর তার পরিবর্তে মাটেও কোভাচিচকে মাঠে নামান মাদ্রিদ কোচ রাফায়েল বেনিতেজ। তবে তার এই নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি না জানার দাবি জানিয়ে বেনিতেজ বলেন, আসলেই আমরা এ সম্পর্কে কিছুই জানি না। ভিয়ারিয়াল কিংবা ফেডারেশন কেউই আমাদের এ বিষয়ে সতর্ক করেনি। আমরা যখন জেনেছি তখনই তাকে বসিয়ে দিয়েছি।

নিয়ম ভঙ্গ করায় রিয়ালের ভাগ্যে কি ঘটে সেটা নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা-কল্পনা। রিয়াল কি আদৌ টুর্নামেন্টে টিকে থাকবে নাকি প্রতিযোগিতার বাইলজ অনুযায়ী নিষিদ্ধ হবে সময়ই তা বলে দিবে। তবে ম্যাচ শেষে কাডিজের প্রেসিডেন্ট মানোলো ভিজাইনো ক্লাবের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, মাদ্রিদের প্রতি আমাদের পূর্ণ শ্রদ্ধা আছে। কিন্তু আমরা এ ব্যাপারে অভিযোগ দায়েরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ আমাদের মনে হয়েছে এটা সমর্থকদের জন্য করা উচিত। রিয়াল মাদ্রিদের পরিচালক এমিলিও বুট্রাগেনো স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন ও ভিয়ারিয়ালকে ঘটনার জন্য দায়ী করে বলেছেন, এই ধরনের পরিস্থিতিতে রিয়াল আগে কখনও পড়েনি। এমনকি চেরশেভ নিজেও এ সম্পর্কে কোন কিছু অবহিত করেনি। এর আগে মৌসুমের শুরুতে মিরানডেসের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচে অযোগ্য খেলোয়াড় মাঠে নামানোর দায়ে দ্বিতীয় বিভাগের দল ওসাসুনাকে কাপ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এই ঝামেলার পরও ইস্কো আরও দুই গোল করে রিয়ালের জয় নিশ্চিত করেন। তবে ম্যাচের শেষের দিকে ক্রিশ্চিয়ান মারকুয়েজ কাডিজের পক্ষে এক গোল পরিশোধ করেন।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়ালের বিপদের রাতে প্রতিপক্ষের জালে হাফডজন গোল করে সেরা ষোলো নিশ্চিত করেছে বার্সিলোনা। এই ম্যাচে দ্বিতীয় সারির দল মাঠে নামিয়েছিলেন কোচ লুইস এনরিকে। ছিলেন না দলের প্রায় সব শীর্ষ তারকা। তবে তাদের ছাড়াও বার্সা মেতে ওঠে গোলোৎসবে। দারুণ নৈপুণ্য দেখিয়ে হ্যাটট্রিক করেন বার্সার তরুণ ফরোয়ার্ড সান্ড্রো রামিরেজ। জোড়া গোল করেন মুনির। ন্যু ক্যাম্পে চতুর্থ মিনিটে ম্যাচের প্রথম গোলটি করেন আলভেজ। ২১ ও ৩১ মিনিটে দুটি গোল করে দলের জয় প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেন রামিরেজ। বিরতির পর গোলের জন্য মরিয়া হয়ে মাঠে নামে বার্সা। ৫১ মিনিটে ভিয়ানোভেন্সের জালে বল জড়ান মুনির। ৭৬ মিনিটে ম্যাচের শেষ গোলটিও করেন প্রতিভাবান এই ফুটবলার। আর আগে ম্যাচের ৬৯ মিনিটে নিজের তৃতীয় গোল করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন রামিরেজ। ম্যাচের ২৯ মিনিটে ভিয়ানোভেন্সের পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন জুয়ানফ্রান।

নির্বাচিত সংবাদ