২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মেসির প্রশংসায় ক্রুইফ

  • ফার্ডিনান্দের মতে এলএম টেন শিল্পী আর সিআর সেভেন ফুটবল যন্ত্র

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ লিওনেল মেসি আর ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। সময়ের দুই সেরা ফুটবলার। গত কয়েক মৌসুমে অসাধারণ পারফর্মেন্স উপহার দিয়ে নিজেদের নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। তবে জোহান ক্রুইফ রোনাল্ডোর চেয়ে মেসিকেই এগিয়ে রাখছেন। এ বিষয়ে হল্যান্ডের সাবেক এই কিংবদন্তি ফুটবলার বলেন, ‘মেসি একজন দলীয় খেলোয়াড় এবং ব্যক্তিগত পারফর্মেন্সের বিচারেও সে অনন্য। অন্যদিকে রোনাল্ডোর পারফর্মেন্স খুবই সীমিত। সে রিয়াল মাদ্রিদকে গোল করতে সহায়তা করে। এটাই মূলত দুইজনের মধ্যে পার্থক্য। মেসি দলের জন্য অনেক গোল করার পাশাপাশি সতীর্থদেরও সহায়তা করে থাকে।’

এদিকে আগামী ১১ তারিখে জুরিখে আলো ঝলমলে মঞ্চে ঘোষণা করা হবে ফিফা বর্ষসেরা ফুটবলারের নাম। এবারের বর্ষসেরা ফুটবলারের সংক্ষিপ্ত তালিকায় স্থান পেয়েছেন বার্সিলোনার মেসি ও তার সতীর্থ নেইমার এবং রিয়াল মাদ্রিদের ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। তবে গত সাতবারের মতো এবারও বর্ষসেরার মূল লড়াইটা মেসি আর রোনাল্ডোর মধ্যেই হবে বলে মনে করছেন অনেক ফুটবল বোদ্ধা। এদিকে সময়ের সেরা এ দুই তারকাকে নতুন উপাধি দিয়েছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে খেলা সাবেক ইংলিশ ফুটবলার রিও ফার্ডিনান্দ। ক্লাব পর্যায়ে ৭১০ ম্যাচ খেলা ফার্ডিনান্দের মতে, ‘মেসি ফুটবলের শিল্পী আর রোনাল্ডো ফুটবলের যন্ত্র।’ ইংল্যান্ড জাতীয় দলের হয়ে ৮১ ম্যাচ খেলা ফার্ডিনান্দ ইংলিশদের অনুর্ধ-১৬ দলের কাছে মেসি আর রোনাল্ডো প্রসঙ্গে নিজের মন্তব্য তুলে ধরতে গিয়ে বলেন, ‘রোনাল্ডো ফুটবল মাঠে যন্ত্রের ন্যায় কাজ করেন। তিনি নিজেকে সুপারস্টার করে তুলেছেন। ক্লাব পর্যায় থেকেই তিনি দারুণ একজন মেধাবী ফুটবলার। তাকে সঠিক পথেই যন্ত্র হিসেবে চালানো হয়েছে। রোনাল্ডোর দুর্দান্ত শটগুলোতে পাওয়ার (শক্তি) লক্ষ্য করা যায়।’ মেসি প্রসঙ্গে রোনাল্ডোর সাবেক ক্লাব সতীর্থ ফার্ডিনান্দ জানান, ‘আর্জেন্টাইন অধিনায়ক একজন বিস্ময়কর ফুটবলার। তিনি প্রকৃতি প্রদত্ত প্রতিভা পেয়েছেন। মাঠে ফুটবলের একজন শিল্পী হিসেবেই খেলে থাকেন মেসি। তাকে সঠিকভাবে ব্যাখ্যা করতে গেলে বলতেই হবে, মেসি সত্যিই একজন প্রতিভাবান ফুটবলার।’ মেসি গত বিশ্বকাপে নিজের দেশকে ফাইনালে তুলেছিলেন। চলতি বছর কোপা আমেরিকার ৪৪তম আসরে আর্জেন্টাইনদের ফাইনালের মঞ্চে নিয়ে যান। ক্লাব পর্যায়ে গত মৌসুমে তার দল জিতেছে ট্রেবল শিরোপা। অপরদিকে নিজ প্রতিভা গুণে রোনাল্ডো রিয়ালের হয়ে একের পর এক গোল করেন। তবে ক্লাব পর্যায়ে শিরোপাহীন থাকতে হয় পর্তুগিজ অধিনায়ককে।

৪০ দল খেলানোর পরিকল্পনা ফিফার

বিশ্বকাপ ফুটবল ২০২৬

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ১৯৯৮ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ৩২ দল নিয়ে বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হয়েছিল ফ্রান্সে। ফুটবলের উন্নয়ন এবং আরও ছড়িয়ে দেয়ার জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা (ফিফা)। টানা ৫ বিশ্বকাপে ৩২ দলই অংশ নিয়েছে। তবে অনেকদিন ধরেই অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা আরও বাড়ানোর দাবি ছিল। সেটা এবার বিবেচনায় আনছে ফিফা। ২০১৮ সালে রাশিয়ায় এবং ২০২২ সালে কাতারে বিশ্বকাপ ফুটবল অবশ্য ৩২ দল নিয়েই অনুষ্ঠিত হবে। তবে ২০২৬ সালের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা ৪০টি করার পরিকল্পনা নিয়েছে ফিফা। বৃহস্পতিবার ফিফার এক কর্মকর্তা এমনটাই জানিয়েছেন।

১৯৩০ সালের প্রথম বিশ্বকাপ ফুটবল আসরে অংশ নিয়েছিল মাত্র ১৩টি দল। তবে ১৯৩৪ সালে দ্বিতীয় আসর থেকেই তা বাড়িয়ে করা হয় ১৬টি। ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত ১০টি বিশ্বকাপে ১৬ দলই অংশ নিয়েছে। ১৯৮২ বিশ্বকাপ থেকে আরও ৮ দল বাড়িয়ে ২৪টি নিয়ে বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হয়।