২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উৎসবমুখর পরিবেশে মনোনয়নপত্র জমা

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ শেষ দিনে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার সাথে পৌরসভা নির্বাচনের প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দেন। খবর স্টাফ রিপোর্টার , নিজস্ব সংবাদদাতাদের -

ময়মনসিংহ

মুক্তাগাছা পৌরসভা নির্বাচনে বর্তমান মেয়র আব্দুল হাই আকন্দ (আওয়ামী লীগ) শহীদুল ইসলাম (বিএনপি), ত্রিশাল পৌরসভায় জাহিদুল ইসলাম সরকার জয়েল (আওয়ামী লীগ), আমিনুল ইসলাম (বিএনপি), ফুলবাড়িয়া পৌরসভায় গোলাম কিবরিয়া (আওয়ামী লীগ), ওমর ফারুক (বিএনপি), বিএনপির বিদ্রোহী চান মাহমুদ, জাতীয় পার্টি থেকে জিয়া উদ্দিন, ফুলপুর পৌরসভায় শশধর সেন (আওয়ামী লীগ), আমিনুল ইসলাম (বিএনপি), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী বর্তমান মেয়র মোঃ শাহজাহান ও বিএনপির এমএইচ ইউসুফ, নান্দাইলে রফিক উদ্দিন ভুইয়া (আওয়ামী লীগ), আজিজুল ইসলাম পিকুল (বিএনপি), গৌরীপুর পৌরসভায় বর্তমান মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম (আওয়ামী লীগ), সুজিত কুমার দাস (বিএনপি), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী শফিকুল ইসলাম হবি ও আবু কাউসার চৌধুরী রন্টি, আব্দুল হালিম স্বতন্ত্র, ঈশ্বরগঞ্জ পৌরসভায় বর্তমান মেয়র হাবিবুর রহমান (আওয়ামী লীগ), ফিরোজ আহম্মদ ভুলু (বিএনপি), আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী আব্দুস সাত্তার কমান্ডার, দেলোয়ার হোসেন রিপন, আবুল খায়ের, বিএনপির বিদ্রোহী শামছুল হাকীম বকুল মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

জয়পুরহাট

জয়পুরহাট জেলার ৩ পৌরসভায় মেয়রপদে ২২ জন এবং কাউন্সিলর (সাধারণ) পদে ১৪৩ ও মহিলা কাউন্সিলর পদে ৫০ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। জয়পুরহাট পৌরসভায় মেয়রপদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক, বিএনপির জেলা কমিটির সদস্য সামছুল হক, জাসদের আমেজ উদ্দিন। কমিউনিস্ট পার্টির দেওয়ান বদিউজ্জামান, শহর জামায়াতের আমির হাসিবুল আলম এবং আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নন্দলাল পার্শী। এছাড়া স্বতন্ত্র হিসেবে ২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। তারা হলেনÑ খন্দকার সাজ্জাদ আহমেদ ময়না এবং মানবতাবিরোধী অপরাধে সাজাপ্রাপ্ত আব্দুল আলীমের পুত্র সাজ্জাদ বিন আলীম। কাউন্সিল (সাধারণ) পদে ৬৯ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১৯ জন। আক্কেলপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী গোলাম মাহফুজ চৌধুরী অবসর, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এনায়েতুর রহমান আকন্দ স্বপন, বিএনপির রেজাউল করিম, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আলমগীর চৌধুরী বাদশা (বর্তমান মেয়র), আহসানুল ইসলাম নান্নু (জাপা) এবং আব্দুর রহিম রতন (স্বতন্ত্র)। এ পৌরসভায় কাউন্সিলর (সাধারণ) পদে প্রার্থী হয়েছেন ৪০ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১৯ জন প্রার্থী হয়েছেন। কালাই পৌরসভায় মেয়রপদে প্রার্থী হয়েছেন আওয়ামী লীগের হালিমুল আলম জন, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাজ্জাদুল রহমান কাজল, হেলাল উদ্দিন মোল্লা, বিএনপির প্রার্থী সাজ্জাদুর রহমান তালুকদার সোহেল, বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী আনিছুর রহমান, জাপা প্রার্থী মোঃ আমিনুল ইসলাম এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী তাজমহল তালুকদার। এছাড়া কাউন্সিলর (সাধারণ) পদে ৩৪ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ১২ জন প্রার্থী হয়েছেন।

নীলফামারী

দলীয় মনোনয়নবঞ্চিত নীলফামারীর দুই পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি জাতীয় পার্টি থেকে তিন নেতা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। জানা যায়, সৈয়দপুর পৌরসভায় বিএনপির পক্ষে মেয়রপদে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন সৈয়দপুর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বর্তমান মেয়র আমজাদ হোসেন সরকার। তিনি মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তার সঙ্গে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন সৈয়দপুর বিএনপির সভাপতি আব্দুল গফুর সরকার। এই পৌরসভায় জাতীয় পার্টির দলীয়ভাবে মনোয়নপত্র দাখিল করেন মেয়র প্রার্থী জয়নাল আবেদীন। এখানেও দলীয় মনোনয়নবঞ্চিত দলের অপর নেতা জাকির হোসেন বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এদিকে জলঢাকা পৌরসভায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন থেকে বঞ্চিত বর্তমান মেয়র ইলিয়াছ হোসেন বাবলু বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এখানে আওয়ামী লীগের দলীয়ভাবে মেয়রপদে মনোনয়ন পেয়েছেন জলঢাকা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগকারী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য আব্দুল ওয়াহেদ বাহাদুর। তিনি দলের সকল নেতাকর্মী সঙ্গে নিয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

চট্টগ্রাম

সীতাকু- পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৬ জন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের বদিউল আলম, বিএনপির সৈয়দ আবুল মনসুর, জাতীয় পার্টির নুরুন নবী ভুঁইয়া এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজউদ্দৌলা, নায়েক শফিউল আলম ও তৌহিদুল হক চৌধুরী। এর মধ্যে সিরাজউদ্দৌলা ও নায়েক শফি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এবং তৌহিদুল হক স্থানীয় জামায়াত নেতা। কাউন্সিলর পদে সীতাকু-ে সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে ৭ জন ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৪৫ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

সন্দ্বীপ ॥ সন্দ্বীপ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ২ প্রার্থী। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের জাফর উল্লাহ টিটু ও বিএনপির আজমত আলী বাহাদুর। এ পৌরসভায় কাউন্সিলর পদে সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে ৭ জন ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৩৩ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। রাউজান পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৫ প্রার্থী। আওয়ামী লীগের দেবাশীষ পালিত, বিএনপির কাজী আবদুল্লাহ আল হাসান এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী, সাইফুল ইসলাম চৌধুরী ও মীর মনসুর আলম। স্বতন্ত্র ৩ জনই আওয়ামী লীগের স্থানীয় বিদ্রোহী নেতা। কাউন্সিলর পদে এ পৌরসভায় সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৫ জন নারী ও সাধারণ ওয়ার্ডে ১৩ জন পুরুষ মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

রাঙ্গুনীয়া পৌরসভায় মেয়র পদে ৮ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের শাহজাহান সিকদার, বিএনপির হেলাল উদ্দিন শাহ, ইসলামী ফ্রন্টের আবদুর রহমান জামি এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল ইসলাম চৌধুরী, ইমাম হোসেন, মফিজুল ইসলাম, মোজাম্মেল হক ও নুরুল আমিন। এখানে কামরুল ইসলাম চৌধুরী ও ইমাম হোসেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থী। কাউন্সিলর পদে রাঙ্গুনীয়ায় সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে ১২ জন ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৪০ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

চন্দনাইশ পৌরসভায় মেয়র পদে ৪ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগের মাহবুবুল আলম খোকা, এলডিপির আইয়ুব কুতুবী, ইসলামী ফ্রন্টের আবদুল হাকিম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ জসিম উদ্দিন। কাউন্সিলর এ পৌরসভায় সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৫ জন মহিলা ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৪৩ জন পুরুষ মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

বাঁশখালী পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন ৩ জন। তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগের সেলিমুল হক চৌধুরী, বিএনপির কামরুল ইসলাম হোসাইনি ও জাতীয় পার্টির ইব্রাহিম খান হোসাইনি। কাউন্সিলর পদে এ পৌরসভায় সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ১১ জন মহিলা ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৪০ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

সাতকানিয়া পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে ৩ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। তারা হলেনÑ আওয়ামী লীগের মোঃ জোবায়ের হোসেন, বিএনপির রফিকুল আলম ও জাতীয় পার্টির মোঃ ইউসুফ। এ পৌরসভায় কাউন্সিলর পদে সংরক্ষিত নারী ওয়ার্ডে ৬ জন ও সাধারণ ওয়ার্ডে ৪০ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

কুমিল্লা

কুমিল্লার ছয় পৌরসভায় বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ-বিএনপিসহ বিভিন্ন দলের ৩৮ জন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিতে ১২ বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগে ৬ জন ও বিএনপিতে ৬ জন প্রার্থী রয়েছেন। দলের কঠোর নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তারা মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। জানা গেছে, চৌদ্দগ্রাম পৌরসভায় মেয়র পদে ৫ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এদিকে দাউদকান্দি পৌরসভায় মেয়র পদে ৭ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। বরুড়া পৌরসভায় মেয়র পদে ৮ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। চান্দিনা পৌরসভায় মেয়র পদে ৫ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। লাকসাম পৌরসভায় মেয়র পদে ৫ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। হোমনা পৌরসভায় মেয়র পদে ৮ জন প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেছেন।

বরিশাল

উজিরপুর পৌরসভার মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন আ’লীগের গিয়াস উদ্দিন, বিএনপির শহিদুল ইসলাম খান, গৌরনদী পৌরসভায় আ’লীগের প্রার্থী হারিছুর রহমান, বিএনপির সফিকুর রহমান স্বপন শরীফ, বাকেরগঞ্জ পৌরসভায় আ’লীগের লোকমান হোসেন ডাকুয়া, বিএনপির মতিন মোল্লা। বানারীপাড়া পৌরসভায় আ’লীগের সুভাষ চন্দ্র শীল, বিএনপির মাহবুবর রহমান মাস্টার, মেহেন্দীগঞ্জ পৌরসভায় আ’লীগের কামাল উদ্দিন, বিএনপির গিয়াস উদ্দিন দীপেন। মুলাদী পৌরসভায় আ’লীগের মেয়র প্রার্থী সফিকউজ্জামান রুবেল, বিএনপির মনোনীত আসাদ মাহমুদ।

সাতক্ষীরা

দুটি পৌরসভা নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য মেয়র পদে ১০ ও কাউন্সিলর পদে ৭৮ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এদের মধ্যে সাতক্ষীরা পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন, বিএনপির মনোনয়ন নিয়ে জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তাজকিন আহমেদ চিশতি, জাতীয় পার্টির মনোনয়ন নিয়ে শেখ আজহার হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নাসিম ফারুক খান মিঠু ও নুরুল হুদা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

এদিকে কলারোয়া পৌরসভায় মেয়র পদে পাঁচজন, কাউন্সিলর পদে ২৮ জন ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে আমিনুল ইসলাম লাল্টু, আক্তারুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির মুনসুর আলী এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আরাফাত হোসেন ও আমির ইমান আলী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

টাঙ্গাইল

জেলায় এবার ৮টি পৌরসভায় বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন টাঙ্গাইল পৌরসভায়- আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী জামিলুর রহমান মিরন, বিএনপির প্রার্থী মাহমুদুল হক সানু। কালিহাতী পৌরসভায়- আওয়ামী লীগের প্রার্থী আনছার আলী বিকম, বিএনপির প্রার্থী আলী আকবর জব্বার। গোপালপুর পৌরসভায়- দলীয় প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রকিবুল হক ছানা, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক এনামুল হক, যুবলীগের সদস্য বেলায়েত হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক আশারাফুজ্জামান আজাদ, বিএনপির প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রুবেল। ভুঞাপুর পৌরসভায়- দলীয় প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক মাসুদুল হক মাসুদ, বিএনপির প্রার্থী উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা আব্দুল খালেক ম-ল।

ধনবাড়ি পৌরসভায়- উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক দলীয় প্রার্থী মঞ্জুরুল ইসলাম তপন, বিএনপির প্রার্থী পৌর বিএনপির আহ্বায়ক এসএমএ সোবহান। মধুপুর পৌরসভায়- দলীয় প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাসুদ পারভেজ, বিএনপির প্রার্থী উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সরকার শহিদুল ইসলাম শহীদ। মির্জাপুর পৌরসভায়- দলীয় প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহাদত হোসেন সুমন, বিএনপির প্রার্থী পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী। সখীপুর পৌরসভায়- আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান মেয়র আবু হানিফ আজাদ, বিদ্রোহী প্রার্থী উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর তালুকদার, বিএনপির প্রার্থী উপজেলার সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন।

আখাউড়া

বিএনপি মনোনীত প্রার্থী মোঃ মন্তাজ মিয়া ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তাকজিল খলিফা কাজল মনোনয়নপত্র জমা দিলেও উভয় দলের’ই একজন করে বিদ্রোহী প্রার্থী রয়েছে।

মাদারীপুর

মাদারীপুর পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে খালিদ হোসেন ইয়াদ, বিএনপির মিজানুর রহমান মুরাদ। শিবচর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আওয়ালাদ খান, বিএনপির জাহাঙ্গীর কামাল জমা দিয়েছেন।

কালকিনি পৌরসভায় আওয়ামী লীগের এনায়েত হোসেনসহ ৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

নওগাঁ

নওগাঁর দুটি পৌরসভায় মেয়র পদে মোট ৯ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী দেওয়ান ছেকার আহমেদ শিষান, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী নজমুল হক সনি মনোনয়নপত্র জমা দেন। অপরদিকে পতœীতলা উপজেলার নজিপুর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৪ জন প্রার্থী।

রংপুর

রংপুরের বদরগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মনোনয়রপত্র দাখিল করেন। বিএনপি প্রার্র্থী ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যাপক পরিতোষ চক্রবর্তী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

শেরপুর

শেরপুরের ৪ পৌরসভায় মেয়র পদে ২২ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

প্রার্থীরা হচ্ছেনÑ শেরপুর পৌরসভায় সাবেক মেয়র গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন (আওয়ামী লীগ), সাবেক পৌরপতি আব্দুর রাজ্জাক আশীষ (বিএনপি), বর্তমান মেয়র হুমায়ুন কবীর রুমান (আ’লীগ বিদ্রোহী)। নালিতাবাড়ী পৌরসভায় মেয়র পদে আবু বক্কর সিদ্দিক বাক্কার (আ’লীগ), সাবেক মেয়র আব্দুল হালিম উকিল (আ’লীগ বিদ্রোহী), বর্তমান মেয়র আনোয়ার হোসেন ভিপি (বিএনপি) ও শামছুল আলম সওদাগর (বিএনপি বিদ্রোহী)। নকলা পৌরসভায় সাবেক উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান লিটন (আ’লীগ), নুরে আলম সিদ্দিকী উৎপল (আ’লীগ বিদ্রোহী), আনোয়ারুল ইসলাম (আ’লীগ বিদ্রোহী), বর্তমান মেয়র মোখলেসুর রহমান তারা (বিএনপি)। শ্রীবরদী পৌরসভায় আবু সাইদ (আ’লীগ), আলমগীর হোসেন (আ’লীগ বিদ্রোহী), এ্যাডভোকেট শাহীদ উল্লাহ শাহী (আ’লীগ বিদ্রোহী), ডাঃ আশরাফী লতা (আ’লীগ বিদ্রোহী), বর্তমান মেয়র মোঃ আব্দুল হাকিম (বিএনপি) ও আবু রায়হান আল বেরুনী (বিএনপি বিদ্রোহী)।

কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ায় পাঁচ পৌরসভায় মোট ২৭ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। কুষ্টিয়া পৌরসভায় মোট মোট ৭ প্রার্থী মেয়র পদে মনোনয়ন দাখিল করেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের বর্তমান মেয়র হাজী আনোয়ার আলী, বিএনপির কুতুব উদ্দিন আহমেদ মনোনয়ন দাখিল করেন। ভেড়ামারা পৌরসভায় মোট ৩ মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এদের মধ্যে ২০ দলীয় জোটের শরীক জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) মহিউদ্দিন বানাত, আওয়ামী লীগের প্রার্থী শামিউল ইসলাম ছানা ও জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম স্বপন মেয়র পদে মনোনয়ন দাখিল করেন। মিরপুর পৌরসভায় মোট ৭ প্রার্থী মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাজী এনামুল হক, বিএনপি প্রার্থী আব্দুল আজিজ খান মনোনয়ন জমা দেন। কুমারখালী পৌরসভায় মোট ৫ প্রার্থী মেয়র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। খোকসা পৌরসভায় মেয়র পদে মোট ৫ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এদের মধ্যে আওয়ামী লীগের তারিকুল ইসলাম ও বিএনপির রাজু আহম্মেদ মনোনয়ন জমা দেন।

পাবনা

উৎসবমুখর পরিবেশে পাবনার ৭টি পৌর নির্বাচনে ৩৩ জন মেয়র পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। পাবনা পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে ৫ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রাকিব হাসান টিপু, বিএনপির প্রার্থী নূর মোহম্মদ মাসুম বগা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। চাটমোহর পৌর নির্বাচনে ৫ জন মেয়র পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের প্রার্থী এ্যাড. সাখাওয়াত হোসেন সাকো, স্বতন্ত্র প্রার্থী মির্জা রেজাউল করিম দুলাল, বিএনপির প্রার্থী অধ্যক্ষ আব্দুর রহিম কাল। ভাঙ্গুড়া পৌর নির্বাচনে ৫ জন মেয়র পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আওয়ামী লীগ প্রার্থী গোলাম হাসনায়েন রাসেদ, বিএনপি প্রার্থী এ্যাডভোকেট মজিবুর রহমান, স্বতন্ত্র দাঁড়িয়েছেন আজাদ খান, অধ্যাপক মাহবুব আলম, আলহাজ আব্দুল মালেক। সাঁথিয়ায় মেয়র পদে ৫ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। বর্তমান মেয়র আওয়ামী লীগ প্রার্থী মিরাজুল ইসলাম প্রামাণিক, বিএনপির সিরাজুল ইসলাম, মফিজ উদ্দিন, সাইফুল ইসলাম ও আশিক ইকবাল স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। সুজানগর মেয়র পদে ৬ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আওয়ামী লীগের আব্দুল ওহাব, বিএনপির আজম আলী বিশ্বাস, সাবেক মেয়র বিএনপি নেতা কামাল বিশ্বাস, বর্তমান মেয়র আওয়ামী লীগ নেতা তোফাজ্জল হোসেন তোফা, আফজাল আলী স্বতন্ত্র ও জাতীয় পার্টির মোমতাজ উদ্দিন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। ফরিদপুর মেয়র পদে ৫ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। বর্তমান মেয়র খ ম কামরুজ্জামান মাজেদ আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিএনপি প্রার্থী এনামুল হক চন্দন আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান, আওয়ামী লীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। ঈশ্বরদী পৌর মেয়র পদে ২ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। বর্তমান মেয়র আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ মিন্টু, বিএনপির প্রার্থী হয়েছেন মোখলেছুর রহমান বাবলু।

ঝিনাইদহ

কোটচাঁদপুর পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন ৪ জন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের সহিদুজ্জামান, বিএনপির এসকেএম সালাউদ্দিন বুলবুল সিডল, স্বতন্ত্র শরিফুল ইসলাম ও জাহিদুল ইসলাম।

হরিণাকুন্ডু পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৩ জন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের শাহিনুর রহমান রিন্টু, বিএনপির জিন্নাতুল হক ও স্বতন্ত্র আব্দুর রাজ্জাক।

মহেশপুর পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ৬ জন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের আব্দুর রশিদ খান, বিএনপির নজিবুদ্দৌল্লাহ, জাসদের রমজান আলী।

শৈলকুপা পৌরসভায় মেয়র পদে মনোনয়পত্র জমা দিয়েছেন ৫ জন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের কাজী আশরাফুল আ জ ম, বিএনপির খলিলুর রহমান, সতন্ত্র রাবেয়া বেগম, তৈয়বুর রহমান খান ও রেজাউল ইসলাম রাজু।

মাগুরা

মেয়র পদে আওয়ামী লীগ প্রার্থী খুরশিদ হায়দার টুটুল এবং বিএনপি প্রার্থী বর্তমান মেয়র ইকবাল আখতার খান।

ফেনী

৩টি পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে ৮ জন, সাধারন কাউন্সিলর পদে ৬৩ ও সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৭ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ফেনী পৌর সভার একজন মেয়র পদে আওয়ামী লীগের হাজী আলাউদ্দিন, বিএনপির ফজলুর রহমান বকুল, জাতীয় পার্টির মির্জা মোহম্মদ ইকবাল ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আতিকুল আলম মজুমদার।

পরশুরাম পৌর সভার একজন মেয়র পদে আওয়ামী লীগের নিজাম উদ্দিন সাজেল , বিএনপির মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ।

দাগন ভূঞা পৌর সভার একজন মেয়র পদে আওয়ামী লীগের ওমর ফারুখ খান, বিএনপির কাজী সাইফুর রহমান স্বপন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

গোপালগঞ্জ

মেয়র পদে গোপালগঞ্জ পৌরসভায় সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী লিয়াকত আলী লেকু ও টুঙ্গীপাড়া পৌরসভায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগের সভাপতি শেখ আহম্মদ হোসেন মীর্জাকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। আওয়ামী লীগের প্রার্থী কাজী লিয়াকত আলী লেকু, বিএনপি প্রার্থী জেলা যুবদল সভাপতি মোঃ তৌফিকুল ইসলাম তৌফিক, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বর্তমান পৌর-মেয়র রেজাউল হক সিকদার (রাজু) ও মুশফিকুর রহমান লিটন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

টুঙ্গীপাড়া উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী কেন্দ্রীয় আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা লীগের সভাপতি শেখ আহম্মদ হোসেন মীর্জা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ফোরকান বিশ্বাস মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন।

মুন্সীগঞ্জ

মুন্সীগঞ্জে পৌরসভায় মেয়র পদে ৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এরা হলেন আওয়ামী রীগের হাজী ফয়সাল বিপ্লব, বর্তমান মেয়র বিএনপির একেএম ইরাদাত মানু ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. মহিউদ্দিন বেপারী। এছাড়া স্বতন্ত্র হিসাবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আমরা মুক্তিযোদ্ধা সন্তানের জেলা সভাপতি মোঃ রেজাউল ইসলাম সংগ্রাম ও শহর ব্যবসায়ী সমিতির যুব লীগ নেতা মোঃ আরিফুর রহমান এবং যুবলীগ নেতা জালাল উদ্দিন রুমি রাজন। এছাড়া সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী ৯, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪৬ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছে। মিরকাদিম পৌরসভায় মেয়র পদে ৬ জন মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এরা হলেন আওয়ামী লীগের বর্তমান মেয়র শহিদুল ইসলাম শাহীন, বিএনপি মোঃ শামসুর রহমান, জেপি’র (মঞ্জু) সাবেক মেয়র মোহাম্মদ হোসেন রেণু ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আব্দুল গফুর মিয়া। স্বতন্ত্র হিসেবে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মনসুর আহম্মেদ কালাম ও আওয়ামী লীগের জামান হোসেন।

নরসিংদী

নরসিংদী, মাধবদী ও মনোহরদী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে ১৯, কাউন্সিলর ১২৭ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৭ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।