১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহীদের’ বসিয়ে দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

  • মাঠে থাকবে একক প্রার্থী

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে মাঠে একক প্রার্থী দেখতে চান। বিদ্রোহী প্রার্থীদের বুঝিয়ে দল মনোনীত একক প্রার্থীর পক্ষে কাজ করানোর ব্যবস্থা করার জন্য তিনি সংশ্লিষ্টদের প্রতি নির্দেশ দেন। এদিকে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা পাওয়ার পর আজ শুক্রবার থেকে কেন্দ্রীয় নেতারা যাচ্ছেন তৃণমূলে। আগামী ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত কেন্দ্রীয় নেতারা তৃণমূলে থাকবেন।

বৃহস্পতিবার রাতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা গণভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর হাতে শতাধিক বিদ্রোহী প্রার্থী তালিকা তুলে দেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিতব্য দলীয় প্রতীকে পৌর নির্বাচনে বিজয়ী হতে মাঠে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী রাখতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশনা পাওয়ার পর কিভাবে বিদ্রোহী প্রার্থী সরানো যায় সে ব্যাপারে করণীয় ঠিক করতে আজ শুক্রবার সকালে ধানম-ির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে জরুরী বৈঠক ডাকা হয়েছে। একই সঙ্গে মাদারীপুরের কালকিনিতে আওয়ামী লীগ নেতাদের পদত্যাগের বিষয়টির সুষ্ঠু সুরাহ করার জন্য দলীয় সভানেত্রীর নির্দেশে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ সদস্য এসএম কামাল সেখানে যাবেন।

জানা গেছে, গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য সুজিত রায় নন্দী, এসএম কামাল প্রমুখ।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় কয়েকজন নেতা, স্থানীয় সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতাদের আত্মীয়-স্বজনদের বাদ দিয়ে ত্যাগী ও জনপ্রিয় নেতাদের আসন্ন পৌর নির্বাচনে একক প্রার্থী করে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার/পৌর মেয়র মনোনয়ন বোর্ড। মনোনয়ন না পাওয়ায় প্রভাবশালী নেতাদের ক্ষুব্ধ আত্মীয়-স্বজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মনোনয়ন বঞ্চিতরা যদি স্বতন্ত্র প্রার্থী হন তবে তারা বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে চিহ্নিত হবেন। এ ব্যাপারে দলের সিদ্ধান্তের কথা জনিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হলে বহিষ্কার করা হবে। দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দল যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষে সবার কাজ করতে হবে। এটা না মানলে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে সাংগঠনিক সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হবে।