২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাংবাদিকের এটিএম কার্ড ছিনতাইকারী চক্রের ৬ সদস্য গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রিক্সাচালকের ছদ্মবেশে রাতের ঢাকায় ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটছে। এক মাসেরও বেশী সময় পর বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজের বার্তা সম্পাদক সারোয়ার হোসেনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে এটিএম কার্ড দিয়ে অর্ধলাখ টাকা তুলে নেয়ার ঘটনায় জড়িত দলনেতা মিন্টুসহ ৬ ছিনতাইকারী গ্রেফতারের পর বেরিয়ে এসেছে এমন তথ্য। তাদের ৪ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। ৭ সদস্যের দলটির সেকেন্ড ইন কমান্ড মাইনুল আগেই গ্রেফতার হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা পেশাদার ছিনতাইকারী। তাদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টা থেকে অভিযান চালিয়ে রাজধানীর বাড্ডা এলাকা থেকে দলনেতা মিন্টু ও তার সহযোগী শহীদুল, আসলাম, সোহাগ, আরেফিন ও হাসানকে গ্রেফতার করে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার উপ-পরিদর্শক মারগুব তৌহিদের দল।

এই কর্মকর্তা জনকন্ঠকে জানান, গ্রেফতারকৃতরা ছিনতাইয়ের দায় স্বীকার করেছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সাধারণ মানুষের চোখ ফাঁকি দিতে তারা অভিনব কায়দায় রিক্সাচালকের বেশে রিক্সাযোগেই ছিনতাই করত। তারা পেশাদার ছিনতাইকারী। দলটির নেতা মিন্টু। আর সেকেন্ড ইন কমান্ড তার শ্যালক মাইনুল। সে অন্য একটি মামলায় অস্ত্রসহ গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছে। আর চক্রটির পরিকল্পনাকারী শহীদুল। তার পরিকল্পনায় ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটনাগুলো ঘটানো হয়। তারা রিক্সাযোগে রাতভর ঢাকার রাস্তায় ঘুরে বেড়ায়। সুযোগ বুঝে ছিনতাই করে থাকে।

চলতি বছরের ২ নবেম্বর এ চক্রটির শিকার হন সাংবাদিক সারোয়ার হোসেন। তিনি রাজধানীর কাওরানবাজারের অফিস থেকে রিক্সায় বনশ্রীর বাসায় ফিরছিলেন। রিক্সাটি তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানাধীন চায়না মোড়ের কাছে গেলে আচমকা একটি রিক্সা ওই রিক্সাটিকে ইচ্ছে করেই লাগিয়ে দেয়। এরপর দুই রিক্সাচালকের মধ্যে ঝগড়া শুরু হয়। দুইটি রিক্সায় একজন করে ছিল। মূলত তারা ছিনতাইকারী। রিক্সাচালকের বেশে ছিনতাই করে থাকে। পরে ৪ ছিনতাইকারী সাংবাদিকের রিক্সার গতিরোধ করে। একজন আগ্নেয়াস্ত্রের মুখে সাংবাদিককে জিম্মি করে। পরে তাকে গুলশানের নিকেতনের ৩ নম্বর সড়কে নিয়ে যায়। সেখান নিয়ে তার কাছ থেকে এটিএম কার্ড নেয়। অস্ত্রের মুখে এটিএম কার্ডের গোপন পিন নম্বর নিয়ে ৫০ হাজার টাকা তুলে নেয়। এরপর তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ছেড়ে দেয়। ওই এটিএম বুথের সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ ও গ্রেফতারকৃত মিন্টুর তথ্যমতে ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এরা ৭ জনের একটি পেশাদার ছিনতাইকারী গ্রুপ। তাদের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানা অনেক মামলা রয়েছে।