২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিএনপি নিয়ে জনগণ মাথা ঘামাচ্ছে না ॥ হানিফ

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ এমপি বলেছেন, বিএনপিকে নিয়ে জনগণ মাথা ঘামাচ্ছে না। বিএনপি জনগণ থেকে এতোটাই বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে যে, শত চেষ্টা করেও তাদের আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে জয়লাভ করার সুযোগ নেই। এটা বুঝতে পেরে তারা সরকারের বিরুদ্ধে নানা অপপ্রচার ও মিথ্যাচার করে একটা বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে। যাতে জনগণের কাছ থেকে কিছুটা অনুকম্পা পাওয়া যায়। তবে আমরা আশা করব বিএনপি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে।

শুক্রবার ধানম-ির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের কেন্দ্রীয় সম্পাদকম-লীর সভা শেষে প্রেস ব্রিফিংকালে এক প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, বিদ্রোহী প্রার্থীদের মধ্যে যদি কেউ ১৩ তারিখের মধ্যে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করেন, তাহলে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে আওয়ামী লীগের কোন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নেবে না।

তিনি বলেন, বিএনপি এখন মিথ্যাচারের মধ্যেই আছে। এইটা নিয়ে জনগণ মাথা ঘামাচ্ছে না। বিএনপি যেমন নির্বাচন নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে না বলে দাবি করছে, জনগণও বিএনপিকে নিয়ে মাথা ঘামাচ্ছে না। তিনি বলেন, যারা গণতন্ত্রের বিশ্বাসী তারা নির্বাচন করবে। আমি আশাকরি বিএনপি শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবে। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিয়ে বিএনপি ভুল করেছিল। সে কারণে রাজনীতি থেকে তারা অনেকটাই ছিটকে পড়েছিল। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, তৃণমূল পর্যায় থেকে যে গাইড লাইন আমরা দিয়েছিলাম, সেই অনুযায়ী তাদের (তৃণমূল) সুপারিশ এবং আমাদের মাঠ জরিপের তথ্য নিয়ে প্রার্থিতা দেয়া হয়েছে। এ সময় গণমাধ্যমে প্রার্থী তালিকা আগে প্রকাশ না করাকে রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের হিসেব অনুযায়ী ৭১টি পৌরসভায় বিকল্প প্রার্থী রয়েছে। আমরা আশা করছি ১৩ ডিসেম্বরের মধ্যে একটি পৌরসভায়ও কোন বিদ্রোহী প্রার্থী থাকবে না।

ব্রিফিংকালে অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মেজবাহ উদ্দিন সিরাজ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ধানের শীষের কথা জনগণ ভুলে গেছে- সুরঞ্জিত ॥ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এমপি বলেছেন, দেশের মানুষ অনেক দিন ধরে ধানের শীষ দেখে না। ধানের শীষের কথা মানুষ ভুলে গেছে। এইবার পৌর নির্বাচন দলীয় প্রতীকে হওয়ায় দেশের জনগণ জনবিচ্ছিন্ন ধানের শীষ মার্কা দেখতে পাবে। আর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই বিএনপিকে নির্বাচন করার সুযোগ করে দিয়েছেন।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর কাকরাইলে ইন্সটিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন নির্বাচন করে, সরকার করে না। নির্বাচন কমিশন আমাদের কথাও শোনে না। এতেই বোঝা যায় সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। জাতীয় নির্বাচনের আলোকে পৌর নির্বাচন হবে। এমপি-মন্ত্রীদের পৌর নির্বাচনে দলের পক্ষে প্রচারের সুযোগের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, বেশিরভাগ দলের প্রধানরাই এমপি-মন্ত্রী। তাছাড়া বেগম খালেদা জিয়ারও একটা স্ট্যাটাস আছে। হাসানুল হক ইনু তো গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি, বিটিভির মালিকই। রাশেদ খান মেনন সাহেবেরও একটা দল আছে। এইচ এম এরশাদ সাহেবেরও কিছু একটা আছে। তাই এগুলো বিবেচনা করে একটা লেভেল প্লেইং ফিল্ড আনতে হবে।

বঙ্গবন্ধু একাডেমির সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির মিজির সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগেরসহ সভাপতি ফয়েজ উদ্দিন মিয়া, সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় নেতা হারুন চৌধুরী প্রমুখ।