২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বরিশাল পাউবোর শত কোটি টাকার জমি বেহাত

স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ অসাধু কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের যোগসাজশে কতিপয় প্রভাবশালী বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের কয়েকশ’ কোটি টাকার জমি দখল করে নিয়েছেন। দীর্ঘদিনেও দখল হওয়া জমি উদ্ধারে কর্তৃপক্ষের নেই কোন মাথাব্যথা।

জানা গেছে, জেলায় পাউবোর ২ হাজার ৯শ’ একর জমি রয়েছে। এ জমির মধ্যে ২ হাজার ৪৮০ একর পাউবোর দখলে থাকলেও বাকি ৪শ’ একর জমিই এখন বেহাত হয়ে গেছে। অভিযোগে জানা গেছে, বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী পরিচালক (ভূমি ও রাজস্ব) হুমায়ুন কবির ২০০২ সালে বরিশালে যোগদানের পর থেকেই এই ৪শ’ একর জমি প্রভাবশালীরা দখল করে নিয়েছেন।

বাকি জমি নিয়েও চলছে অর্থ বাণিজ্য। এখানকার প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী ও নির্বাহী প্রকৌশলীকে অন্ধকারে রেখে হুমায়ুন কবির গত ১৩ বছরে সরকারী এ জমি লিজের নামে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। জমির কোন খবর উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানতেও দেয়া হয়নি।

সাম্প্রতিক সময়ে তার এ লিজ বাণিজ্য ধরা পড়ে কর্তৃপক্ষের হাতে।

সূত্র মতে, হিজলা উপজেলার কালিকাপুর মৌজার ৬ একর জমি ৯৯ বছরের লিজের ভুয়া কাগজ বানিয়ে হুমায়ুন কবির তার মালিকানা বুঝিয়ে দেয় ইউসুব আলী হাওলাদার নামের এক ব্যক্তিকে। ওই জমি লিজের জন্য পাউবোর উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে আবেদন করেন একই এলাকার আরিফ তালুকদার ও ছায়েম খান।

আবেদনের পর বরিশালের নির্বাহী প্রকৌশলী সরেজমিন পরিদর্শনে গেলে ইউসুব আলী ৯৯ বছরের লিজ নেয়ার একটি ভুয়া কাগজ উপস্থাপন করেন। ওই লিজের কাগজে নির্বাহী প্রকৌশলীর স্বাক্ষর জাল করে তৈরি করা কাগজ ধরা পড়ার পর বেরিয়ে আসতে থাকে সহকারী পরিচালক হুমায়ুন কবিরের লিজ বাণিজ্যের নানা খতিয়ান। একই কায়দায় নগরীর ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কীর্তনখোলা নদীর তীরের কয়েক কোটি টাকার প্রায় ১০ একর জমি মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি জসিম উদ্দিন, ১২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কেএম শহিদুল্লাহ, একই দপ্তরের এক কর্মচারীর পুত্র আরিফ তালুকদার ও একই দপ্তরের কর্মচারী নৌযান চালক আজিজুর রহমান তুহিন তাদের নামে লিজ নেয়। কর্তৃপক্ষের অগোচরে উল্লেখিত জমি হুমায়ুন কবির লিজ দেখিয়ে প্রভাবশালীদের বুঝিয়ে দিয়েছেন।

জোট কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি হুমায়ুন কবির ও একই দপ্তরের নৌযান চালক আজিজুর রহমান তুহিনের যোগসাজশে দীর্ঘদিন থেকে এই কর্মকা- চালিয়ে আসলেও বিষয়টি দেখার যেন কেউ নেই।

একই দফতরের সিবিএর সভাপতি আব্দুল খালেক জানান, নগরীর আলেকান্দা এলাকার বাসিন্দা তুহিন একই দফতরের কর্মচারী হয়েও উর্ধতন কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে নিজের নামে কীর্তনখোলা নদীর তীরবর্তী এলাকায় জমির লিজ নেয়ার বিষয়টি রহস্যজনক। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত পাউবোর সহকারী পরিচালক (ভূমি ও রাজস্ব) হুমায়ুন কবির বলেন, ৯৯ বছরের লিজের বিষয়টি তিনি জানেন, তবে এ ঘটনার সঙ্গে তার কোন সম্পৃক্ততা নেই।

কোটি কোটি টাকার সরকারী জমি অসদুপায়ে লিজ দেয়া ও উদ্ধারের র‌্যাপারে বরিশাল পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী বাবুল আকতার বলেন, মাত্র তিন মাস হলো আমি এখানে যোগদান করেছি। যোগদানের পর থেকে জমি সংক্রান্ত একাধিক আবেদন ও অভিযোগ পেয়েছি। প্রতিটি ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।