২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ট্যাক্সের নামে অনিয়ম করছে বিদেশি এয়ারলাইন----আটাব

স্টাফ রিপোর্টার ॥

এ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ’ (আটাব)অভিযোগ করে বলেছে, বিমানের টিকেটে ট্যাক্সের নামে অযৌক্তিক ফুয়েল সারচার্জের মাধ্যমে বিদেশী বিমান সংস্থাগুলো দেশ থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করে নিয়ে যাচ্ছে। বলা হয়েছে এয়ার টিকেটের চূড়ান্ত মূল্য নির্ধারণ করা হয় ভাড়া ও আনুষাঙ্গিক ট্যাক্সের সমন্বয়ে। কিন্তু বিদেশি এয়ারলাইন্সগুলো ট্রাভেল এজেন্টদের কমিশন না দেওয়ার হীন উদ্দেশে ভাড়ার পরিমাণ কমিয়ে ফুয়েল সারচার্জকে ট্যাক্স দেখিয়ে ট্যাক্সের পরিমাণ বাড়িয়ে ব্যবসা করছে। ফুয়েল সারচার্জ আদৌ কোনো ট্যাক্স নয়। অথচ টিকেটের চূড়ান্ত মূল্যের প্রায় ৫০ শতাংশই এখন ট্যাক্স। রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে বিদেশী এয়ারলাইন্সগুলো ট্যাক্সের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করছে। এতে জনগণ (যাত্রী) যেমন ঠকছে তেমনি সরকারও বৈদেশিক মূদ্রা হারাচ্ছে।

শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টস্থ আটাব কার্যালয়ে এক আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ তোলা হয়।আটাব সভাপতি এসএন মঞ্জুর মোর্শেদ (মাহবুব) সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, আটাবের সহ-সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম, তাজুল ইসলাম, আবু জাফর, আব্দুল জব্বার জলিল, মহাসচিব আসলাম খান, যুগ্ম মহাসচিব আব্দুস সালাম আরেফ প্রমুখ।

মঞ্জুর মোর্শেদ ‍বলেন, টাকা পাচার রোধে আগামী ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে বিমানের টিকেটে ফুয়েল সারচার্জ বাতিল করতে হবে। অন্যথায় বাংলাদেশের তিন হাজার ট্রাভেলস এজেন্সী মালয়েশিয়া ও ইতিহাদসহ অন্যান্য বিদেশি এয়ারলাইন্সের টিকেট বিক্রি বন্ধসহ বৃহত্তর কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবে।