১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সিরিয়ায় বিমান হামলা স্থগিত রাখুন ॥ তুরস্ককে যুক্তরাষ্ট্র

ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বে চলমান লড়াইয়ে তুরস্ক আরও সক্রিয় ভূমিকা পালন করুক- যুক্তরাষ্ট্র এর দীর্ঘদিনের ওই অনুরোধ নীরবে স্থগিত রেখেছে। গত সপ্তাহে ন্যাটো মিত্র তুরস্ক এক রুশ বিমানকে গুলি করে ভূপাতিত করার পর যুক্তরাষ্ট্র এ পদক্ষেপ নিল। এক মার্কিন কর্মকর্তা এ কথা জানান। খবর ইয়াহু নিউজের।

চরমে ওঠা তুর্কি-রুশ উত্তেজনা প্রশমিত হওয়ার মতো যথেষ্ট সময় দেয়াই ওই পদক্ষেপের উদ্দেশ্য। ২৪ নবেম্বর রুশ বিমান ভূপাতিত করার পর তুরস্ক সিরিয়ায় আইএসের বিরুদ্ধে কোয়ালিশনের বিমান অভিযানে একবারও অংশ নেয়নি। দু’মার্কিন কর্মকর্তা এ কথা জানান।

যুক্তরাষ্ট্রের ওই অনুরোধ স্থগিত রাখা তুরস্কের ভূমিকা নিয়ে মার্কিন যুদ্ধ পরিকল্পনাকারীদের ধৈর্য পরীক্ষার ক্ষেত্রে সর্বশেষ জটিলতার সৃষ্টি করল। তারা চান, তুরস্ক যুদ্ধে বিশেষত সিরিয়া সংলগ্ন সীমান্তের একটি অংশ নিরাপদ করার ক্ষেত্রে আরও জোরালো অবদান রাখুক। সীমান্তের ওই অংশটি আইএসের জন্য রসদ সরবরাহের পক্ষে খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে গণ্য করা হয়। চলতি সপ্তাহে ব্রিটেন সিরিয়ায় বিমান হামলা শুরু করেছে। গত মাসে প্যারিসে চরমপন্থী দলটির ভয়াবহ হামলার পর ফ্রান্স যুদ্ধে এর ভূমিকা আরও জোরদার করেছে। তখন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ্যাশ কার্টার আরও বড় সামরিক ভূমিকা পালনের জন্য তুরস্কের প্রতি প্রকাশ্যে আহ্বান জানান। ওই শীর্ষ কর্মকর্তা বলেন, তুরস্ক সিরিয়া সংলগ্ন এর দক্ষিণাঞ্চলীয় সীমান্ত নিরাপদ করুক, এটি যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত বিষয়। যুক্তরাষ্ট্র প্রায় ৬০ মাইল বিস্তৃত সীমান্ত এলাকা নিয়ে উদ্বিগ্ন। কারণ আইএস এ এলাকা দিয়েই বিদেশী যোদ্ধাদের নিয়ে আসে এবং অবৈধ ব্যবসা-বাণিজ্য চালায়।