১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করছে আইএস প্রধান

  • দিল্লীতে ঢুকে পড়েছে লস্কর জঙ্গী, আকাশে সন্দেহজনক কিছু দেখলেই গুলির নির্দেশ

জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ আইএসের টার্গেট এবার সরাসরি নরেন্দ্র মোদি। নিজের লেখা বইতে মোদির বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করেছেন খোদ আইএস প্রধান বাগদাদি। তার সদ্য প্রকাশিত ‘ব্ল্যাক ফ্ল্যাগ ফ্রম দ্য ইসলামিক স্টেট’ বইতে বাগদাদির ঘোষণা- এবার ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করবে আইএস। কারণ নরেন্দ্র মোদি মুসলমানদের কোণঠাসা করা শুরু করেছেন। খবর আনন্দবাজার অনলাইনের।

ইন্টারনেটে প্রকাশিত হয়েছে বাগদাদির এই নতুন বই। আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বাগদাদির এই নতুন বই সন্ত্রাসের নতুন ম্যানিফেস্টো। সারাবিশ্বে কিভাবে সন্ত্রাস ছড়ানো হবে, কেন এ সন্ত্রাসবাদ প্রয়োজনীয়- তার নানা বাখ্যা দিয়েছেন বাগদাদি। আইএস একনাগাড়ে যে গণহত্যা চালিয়ে যাচ্ছে, তার সমর্থনেও যুক্তি তুলে ধরেছেন বাগদাদি।

‘ব্ল্যাক ফ্ল্যাগ ফ্রম দ্য ইসলামিক স্টেট’ বইতে আইএসপ্রধান লিখেছেন- ইরাক এবং সিরিয়া ছেড়ে আর কোন্ কোন্ দেশে হামলা চালাবে তার সংগঠন। বইতে লেখা হয়েছে- ‘আইএস এবার ইরাক, সিরিয়া থেকে বাইরে বেরুবে।...এবার তারা ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশ আর আফগানিস্তানে পা রাখবে। আইএস এবার ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করবে।’

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে বিষ উগড়ে বাগদাদি লিখেছেন- ‘নরেন্দ্র মোদি দক্ষিণপন্থী হিন্দু রাষ্ট্রবাদী। মুসলমানদের বিরুদ্ধে ভবিষ্যতে যুদ্ধ ঘোষণার জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদি এখন নিজের লোকদের তৈরি করছেন।’

দিল্লীতে ঢুকে পড়েছে দুই লস্কর জঙ্গী ॥ জঙ্গী হামলার মুখে পড়তে পারে দিল্লী। রাজধানীর বুকে রেকি করা শুরু করে দিয়েছে লস্কর-ই-তৈয়্যবার পাঠানো দুই জঙ্গী। গোয়ন্দা সূত্রে এমনই খবর পেয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। দোজানা এবং উকাশা নামে দু’জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে তাদের খোঁজ শুরু করেছে দিল্লী পুলিশ।

রাজধানীর কয়েকটি জনবহুল এলাকায় হামলা হতে পারে। হামলা চালানো হতে পারে কয়েকজন ভিআইপির ওপর। এমনই খবর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে। তাই রাজধানীর ১৫ এলাকাকে চিহ্নিত করে সেসব এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কুখ্যাত লস্কর জঙ্গী দোজানা ও উকাশা দীর্ঘদিন জম্মু-কাশ্মীরে সক্রিয় ছিল। সেই দু’জনকেই এবার লস্কর-ই-তৈয়বা দিল্লীতে পাঠিয়েছে বলে জানতে পেরেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। দোজানা ও উকাশা দিল্লীতে রেকি চালানোর পাশাপাশি জঙ্গী হামলার জন্য প্রয়োজনীয় প্রযুক্তিগত প্রস্তুতি এবং পরিবহনের ব্যবস্থা করছে বলে পুলিশ জানতে পেরেছে। লস্কর-ই-তৈয়বার শীর্ষ কমান্ডাররা নিয়মিত দোজানা ও উকাশার সঙ্গে যোগাযাগ রাখছে বলেও দিল্লী পুলিশের দায়ের করা এফআইআরে লেখা হয়েছে।

জঙ্গী হামলা রুখতে মরিয়া হয়ে মাঠে নেমেছে দিল্লী পুলিশ। সিআইএসএফ এবং বিমানবাহিনীর কাছ থেকে দিল্লী পুলিশ সাহায্য চেয়েছে বলে জানা গেছে। সূত্র জানায়, উত্তর ভারতের বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি চালানো হচ্ছে দোজানা ও উকাশার খোঁজে। তারা নুমান, জাইদি এবং খুরশিদ ছদ্মনামে ঘুরে বেড়াচ্ছে বলে গোয়েন্দাদের কাছে খবর রয়েছে।

‘মেল টুডে’ নামে একটি সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবর বলছে, দিল্লীতে হামলার ছক কষেছে আইএস। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে উদ্ধৃত করেই সে খবর ছেপেছে কাগজটি। ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে যেভাবে হামলা হয়েছিল, অনেকটা সেভাবেই আইএস হামলা চালানোর ছক কষেছে বলে আশঙ্কা। তবে সাধারণ বিমানের পরিবর্তে ড্রোন নিয়েও হামলা হতে পারে। তাই দিল্লীর আকাশসীমায় নজরদারি কঠোর করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ রাজধানীর আকাশে সন্দেহজনক কিছু উড়তে দেখলেই তৎক্ষণাত গুলি করে নামাতে হবে।