২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গেইল-আফ্রিদি মুখোমুখি আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দলের চেয়ে কোন কোন সময় ক্রিকেটার অনেক বড় হয়ে ওঠেন। আজ দুপুর ২টায় যে বরিশাল বুলস ও সিলেট সুপার স্টারস লড়াই হবে এ ম্যাচে তাই ঘটছে। ম্যাচের রেজাল্টের চেয়ে যেন দুই ক্রিকেটার বরিশালের ক্রিস গেইল ও সিলেটের শহীদ আফ্রিদির তা-ব দেখার অপেক্ষাতেই আছেন সবাই। যা সচরাচর দেখা যায় না, তাই ঘটতে যাচ্ছে আবার। এ দুই ক্রিকেটারই পরস্পরের মুখোমুখি! দিনের দ্বিতীয় ম্যাচেও সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় যে রংপুর রাইডার্স ও ঢাকা ডায়নামাইটস মুখোমুখি হবে সেই ম্যাচে আবার দুই মহাতারকা সাকিব আল হাসান ও কুমার সাঙ্গাকারার মধ্যকার লড়াই হবে।

মজার তথ্য হচ্ছে যখনই ‘বুমবুম’ আফ্রিদির মুখোমুখি হয়েছেন ‘ব্যাটিং দানব’ গেইল; তখনই জয়ী ক্রিকেটার হয়েছেন আফ্রিদি। এ পর্যন্ত গেইল-আফ্রিদি লড়াই দেখা গেছে তিনবার। এ দুই ক্রিকেটার ম্যাচে খেলেছেন এমন ম্যাচ ২০১৩ সালে দুইবার ও ২০১৪ সালে একবার হয়েছে। ২০১৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে মাত্র ৫ রান করেন গেইল। ম্যাচটিতে আফ্রিদি হাঁকান ২৭ বলে ৪৬ রান। পাকিস্তান জিতে ২ উইকেটে। দ্বিতীয় ম্যাচে ১ রান করেন টি২০ ক্রিকেটে সর্বোচ্চ অপরাজিত ১৭৫ রান করা গেইল। আফ্রিদিও ৬ রানের বেশি করতে পারেননি। তবে এবারও পাকিস্তান জিতে ১১ রানে। ২০১৪ সালে গিয়ে দুই ক্রিকেটার আবার মুখোমুখি হন একটি ম্যাচে। সেই ম্যাচে গেইল আবার ব্যর্থ হন। মাত্র ৫ রান করেন। আফ্রিদি করেন ১৮ রান। এবার অবশ্য ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতে ৮৪ রানে। তার মানে বেশিরভাগ সময় আফ্রিদিরই জয় হয়েছে। আজও কি তাই হবে?

যদি তাই হয়, তাহলে বিপিএলের তৃতীয় আসরের দ্বিতীয় পর্বে খেলার সম্ভাবনা জেগে থাকবে সিলেটের। হারলেও ক্ষীণ সম্ভাবনা থাকবে। তবে সেটির কোন নিশ্চয়তা নেই। আর আজ যদি হেরে যায় সিলেট তাহলে বরিশাল সবার আগে দ্বিতীয় পর্বে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে। ঢাকার বিপক্ষে যদি রংপুর জিতে তাহলে তাদেরও দ্বিতীয় পর্বে উঠে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকছে।

এবার নিয়ে বিপিএলের তৃতীয় আসর হচ্ছে। আগের দুই আসরেই খেলেছেন গেইল। এবারও খেলছেন। শহীদ আফ্রিদি সেখানে দুই আসরে খেলেছেন। প্রথম আসরে খেলেছেন। তৃতীয় আসরে খেলছেন। নৈপুণ্যে আফ্রিদির চেয়ে গেইল ‘যোজন-যোজন’ এগিয়ে আছেন। টুর্নামেন্টের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান গেইল। প্রথম আসরেই বরিশালের হয়ে দুটি শতক হাঁকিয়েছেন। দ্বিতীয় আসরেও একটি শতক করেছেন। সেটি ঢাকার হয়ে। টুর্নামেন্টে এখন পর্যন্ত যে ৮টি শতক হয়েছে, তারমধ্যে গেইলেরই রয়েছে ৩টি শতক।

বিপিএলের প্রথম ও দ্বিতীয় আসর মিলিয়ে ৬ ম্যাচ খেলে ৩টি শতক করেছেন গেইল! প্রথম আসরে যেমন তৃতীয় আসরেও বরিশালের হয়ে খেলছেন গেইল। বরিশালেরই হয়ে প্রথম আসরে সিলেটের বিপক্ষে শতক করেন টি২০ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপন গেইল। করেন অপরাজিত ১০১ রান। একই আসরে ঢাকার বিপক্ষে ৬১ বলে ১১৬ রানের ইনিংস খেলেন। দ্বিতীয় আসরে ঢাকার হয়ে খেলেন গেইল। সিলেটের বিপক্ষেই (৫১ বলে ১১৪ রান) শতক করেন। তিন শতকের দুটিই সিলেটের বিপক্ষে করেছেন। আজ আবার সিলেটের বিপক্ষেই খেলতে নামছেন গেইল। তাহলে কি আরেকটা শতক হয়ে যাবে?

সেই তুলনায় আফ্রিদি প্রথম আসরে ঢাকার হয়ে ২ ম্যাচ খেলে একটি অর্ধশতকও করতে পারেননি। দুই ম্যাচ মিলিয়ে ২৭ রান করেছেন। এবার সিলেটের হয়ে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই ৬২ রান করেছেন আফ্রিদি।

আফ্রিদি বিপিএল খেলতে নামার আগে বলেছিলেন, ‘বিপিএলে খেলার অপেক্ষায় আছি। এ টুর্নামেন্ট আমার পারফর্মেন্স আরও উন্নত করবে।’ প্রথম ম্যাচেই সেই ঝলক দেখিয়ে দিয়েছেন। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের এভিন লুইস তৃতীয় আসরের প্রথম শতকটি করার পর গেইল বলে দিয়েছিলেন, ‘আরেকটি (শতক) ধরে রাখ।’ আর শুক্রবার বাংলাদেশের মাটিতে পা রেখেই পরিকল্পনার কথা বলতে গিয়ে জানিয়েছেন, ‘পরিকল্পনা শুধু ছক্কা হাঁকানো।’ তার মানে বোঝাই যাচ্ছে আজ গেইল ও আফ্রিদির মধ্যকার জমজমাট একটি লড়াই হবে। যে লড়াইয়ের দিকেই সবার দৃষ্টি থাকছে।