২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ডেমরায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতাকে হাত-পা বেঁধে গলাকেটে হত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর ডেমরার এক ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতাকে হাত-পা বেঁধে গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে। পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দু’জন নিহত হয়েছে। দক্ষিণখানে সেপটিক ট্যাঙ্ক বিস্ফোরণে দগ্ধ গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় দগ্ধ চারজন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে। রমনার মৌচাক এলাকায় এক হোটেলে দুই কর্মচারীর সঙ্গে মারপিটের ঘটনায় এক কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া শাহজাহানপুরে সাড়ে ২৮ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার পুলিশ ও মেডিক্যাল সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজধানীর ডেমরার পশ্চিম সানারপাড় এলাকায় এনামুল হক গিয়াস (৫০) নামে এক ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতাকে হাত-পা বেঁধে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। নিহত গিয়াস সারুলিয়া ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। নিহতের বাবার নাম মৃত আব্দুল মজিদ ভূঁইয়া। নিহত এনামুল হক দুই ছেলে ও এক মেয়ের জনক। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সানারপাড় গ্রিন সিটির উত্তর পাশে তাঁতীরোডে একটি ডোবার পাশে বহু পুরানো একটি নির্মাণাধীন বাড়ি রয়েছে। সেখানে রাখা বালুর ওপর লাশটি ছিল। লাশটির দুই হাত বাঁধা ও গলা কাটা অবস্থায় পড়ে ছিল। লাশের পরনে ছিল লুঙ্গি ও খয়েরি রঙের ফুলশার্ট। খবর পেয়ে পুলিশ সকাল সাড়ে ১১টার দিকে সেখান থেকে লাশ উদ্ধার করে। পরে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য দুপুর ২টার দিকে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ (মিটফোর্ড) মর্গে পাঠায়।

ডেমরা থানার এসআই আব্দুল কুদ্দুস জানান, ওই পুকুরপাড়ের দক্ষিণে দেয়াল দিয়ে ঘেরা একটি পরিত্যক্ত নির্মাণাধীন ভবনের বালু স্তূপ থেকে গিয়াসের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনাস্থলটি গিয়াসের বাড়ি থেকে ২০০ গজ দূরে। নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে এসআই কুদ্দুস জানান, শুক্রবার রাত ১১টার দিকে সর্বশেষ তিনি সারুলিয়া এলাকার বাসায় গিয়েছিলেন। তারপর রাতে তার কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরে সকালে স্থানীয় লোকজন লাশ দেখে পুলিশে খবর দেয়। গিয়াসের সঙ্গে কারও কোন বিরোধ আছে কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ওয়ারি জোনের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (এডিসি) মাঈনুল ইসলাম জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, গিয়াসউদ্দিনকে অন্যত্র খুন করে গভীর রাতে যে কোন সময়ে ওই খালপাড়ে ফেলে চলে যায়। তবে এ হত্যাকা-ের ব্যাপারে তদন্ত শুরু হয়েছে। পরিবারের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। আশাপাশের প্রতিবেশীদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে এডিসি মাঈনুল ইসলাম জানান। তিনি জানান, উর্ধতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে বিষয়টি পরে জানানো হবে। দুপুর দেড়টার দিকে ওয়ারি জোনের উপ-কমিশনার সৈয়দ নূরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। স্থানীয়রা জানান, গত দুই সপ্তাহে ডেমরায় এটি দ্বিতীয় হত্যাকা-।

সড়ক দুঘর্টনায় দু’জনের মৃত্যু ॥ রাজধানীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক গাড়ি চালকসহ দুইজন নিহত হয়েছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার ভোর চারটার দিকে রূপনগরের রুস্তমপুর বেড়িবাঁধে ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে জসিম উদ্দিন (২৭) নামে এক ব্যক্তি মৃত্যু হয়েছে। নিহত জসিম পিকআপের চালক। তার বাবার নাম শামছুল হক। গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানা এলাকায়। রূপনগর থানার এসআই আশরাফ আলী জানান, ভোরের দিকে বেড়িবাঁধ এলাকায় ট্রাক-পিকআপ মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই পিকআপ চালক জসিম উদ্দিন মারা যান। পরে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে পাঠানো হয়। এদিকে শুক্রবার গভীররাতে পুরান ঢাকার গে-ারিয়া রেলস্টেশনে ট্রেনে কাটা পড়ে অজ্ঞাত (৩৫) এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। ঢাকা রেলওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল মজিদ জানান, শুক্রবার রাতে মরদেহ উদ্ধার করে ঢামেকে পাঠানো হয়। তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

সেপটিক ট্যাঙ্ক বিস্ফোরণ দগ্ধ গৃহবধূর মৃত্যু ॥ রাজধানীর দক্ষিণখান ফায়দাবাদ এলাকায় সেপটিক ট্যাঙ্ক বিস্ফোরণে দগ্ধ গৃহবধূ রুমানা আক্তারের (৩০) মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আবাসিক চিকিৎসক ডাঃ পার্থ শঙ্কর পাল জানান, দুপুর সোয়া একটার দিকে রুমানার মৃত্যু হয়। তার শরীরের ৬০ শতাংশ দগ্ধ হয়েছিল। তিনি জানান, এই ঘটনায় দগ্ধ চারজন হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।

হোটেল কর্মচারীর মৃত্যু ॥ রাজধানী রমনার মৌচাক এলাকায় মা রাঁধুনী হোটেলে দুই কর্মচারীর সঙ্গে মারপিটের ঘটনায় রনি (২৭) নামে এক কর্মচারীর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার গভীর রাতে ঢামেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। রমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মশিউর রহমান জানান, মারপিটের ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে হাসান (১৮) ও শিমুল (২০) নামে হোটেলের দুই কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মারপিটের মামলাটি হত্যা মামলা করা হয়েছে। শনিবার তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও জানান, বুধবার রাতে হাসান ও শিমুল রনিকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে রাত দুইটার দিকে রনিকে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার গভীর রাতে তার মৃত্যু হয়।