২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সৃজনশীলতার পরিচর্যার মাধ্যমে নতুন সমাজ গড়তে হবে ॥ জ্বালানি উপদেষ্টা

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ একটি সমাজের উন্মেষ হয় উদ্ভাবনের মাধ্যমে। সৃজনশীলতার মাধ্যমে নতুন সমাজ গড়ে তুলতে হবে। বাংলাদেশে যেসব ইনোভেশন হচ্ছে সেগুলোর যথাযথ পরিচর্যা করতে হবে।

শনিবার চট্টগ্রামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুত, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এক্সেস টু ইনফরমেশন (এ টু আই) প্রকল্পের সহায়তায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় ‘ইনোভেশন সার্কেল চট্টগ্রাম বিভাগ-২০১৫’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে, যা অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেন, প্রযুক্তিগত দিক থেকে বাংলাদেশ ক্রমেই এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারের কর্মকর্তারাও অনেক এগিয়েছেন। তবে সৃষ্টিশীল কাজের মূল্য দিতে হবে। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী কোন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে না পারলেও তা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করছেন। দেশের সর্বক্ষেত্রে অগ্রগতি ঘটছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এতে মানুষের জীবন সহজ হচ্ছে। দেশ হিসেবে আমরা ক্রমেই ভাল অবস্থানে উপনীত হচ্ছি।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আবদুল্লাহর সভাপতিত্বে এতে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোঃ নজরুল ইসলাম, বহির্গমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক এনএম জিয়াউল আলম, সমবায় অধিদফতরের নিবন্ধক ও মহাপরিচালক মফিজুল ইসলাম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন এবং দায়িত্বশীল উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ।

দক্ষ মানবসম্পদ উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস জাপানের

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ বাংলাদেশে দক্ষ মানবসম্পদ উন্নয়ন ও তথ্যপ্রযুক্তি খাতের বিকাশে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানে আগ্রহী উন্নয়ন সহযোগী দেশ জাপান। চেম্বার কার্যালয়ে গত বৃহস্পতিবার মতবিনিময়কালে এই আশ্বাস ব্যক্ত করেন জাপানিজ আইসি নেট লিমিটেডের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ড. তাকুজিরো ইতো। এ সময় চেম্বার নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ, পরিচালক মাহফুজুল হক শাহ, এস এম শামসুদ্দিন এবং আইসিনেট বাংলাদেশস্থ অফিসের ইউমি ইয়ামাগুছি। মতবিনিময়কালে চেম্বার সহ-সভাপতি সৈয়দ জামাল আহমেদ জাপানকে বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু রাষ্ট্র মন্তব্য করে এদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে জাপান সরকারের সার্বিক সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।