১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মুস্তাফিজ-নাসিরের প্রশংসায় সাঙ্গাকারা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ চমক দিয়ে আবির্ভাব। ওয়ানডে ক্রিকেটে পদার্পণেই বিশ্বরেকর্ড। সবমিলিয়ে মাত্র ৮ মাসের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ৯ ওয়ানডে খেলে ২৬ উইকেট। চলতি বছরে উইকেট শিকারির তালিকায় বিশ্বে ৯ নম্বরে বাংলাদেশের তরুণ পেসার মুস্তাফিজুর রহমান। এরচেয়ে বড় কথা এ বছর বিশ্ব ক্রিকেটে যাদের পদযাত্রা শুরু হয়েছে তাদের মধ্যে তিনিই সেরা। সে কারণে সম্মানটা পেয়েছেন, আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে জায়গা করে নিয়েছেন যা বাংলাদেশের ক্রিকেটে নতুন এক ঘটনা। চলতি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টি২০ আসরে ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে খেলছেন তিনি। দলের নেতৃত্বে আছেন শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার কুমার সাঙ্গাকারা। তিনি দারুণ প্রশংসা করলেন মুস্তাফিজের। সেই সঙ্গে নিজে অবসর নিয়ে ফেললেও বর্ষসেরা দলে সুযোগ পেয়ে আশ্চর্যই হয়েছেন তিনি। সাঙ্গাকারার দলে আছেন অলরাউন্ডার নাসির হোসেন। তারও প্রশংসা ঝরলো সাঙ্গাকারার কণ্ঠে। শনিবার সকালে ডায়নামাইটসের অনুশীলন শেষে এসব কথা জানান সাঙ্গাকারা।

এ বছর অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডে ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপের পরই ওয়ানডে থেকে অবসরে গেছেন সাঙ্গাকারা। বিশ্বকাপে টানা চারটি সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়েন তিনি। সবমিলিয়ে ২০১৪-১৫ মৌসুমে ওয়ানডেতে মাত্র ১৪ ম্যাচে ৮৬২ রান করে দশ নম্বরে আছেন তিনি। এ কারণে অবসরে গেলেও আইসিসি বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে তাকে রাখা হয়েছে। এ বিষয়ে সাঙ্গাকারা বলেন, ‘আইসিসির বর্ষসেরা দলে থাকতে পারাটা অবশ্যই সম্মানের বিষয়। চমৎকার ব্যাপার হচ্ছে এই দলে মুস্তাফিজের নামটাও আছে। আমি ইতোমধ্যেই অবসর নিয়েছি। তারপরও আইসিসির দলে থাকাটা অবাক হওয়ার মত বিষয়। গত বছর কিছুটা ভাল খেলেছি বলেই হয়তো এটা হয়েছে। সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে আমি থাকতে পেরে খুশি।’ বিপিএলে ডায়নামাইটসের অধিনায়কত্ব করছেন তিনি। সতীর্থ হিসেবে পেয়েছেন তরুণ বিস্ময় মুস্তাফিজকে। তিনিও এবার ঠাঁই করে নিয়েছেন আইসিসি বর্ষসেরা দলে। মুস্তাফিজকে পেয়ে দারুণ সন্তুষ্ট সাঙ্গাকারা বলেন, ‘ঢাকা ডায়নামাইটসে মুস্তাফিজের সাথে সময়টা উপভোগ করছি। সে খুবই ভাল বোলার। সে এখনও তরুণ এবং যেহেতু তরুণ সেহেতু অনেক ভাল করবে। তার মধ্যে শেখার তাড়না আছে। সে বাংলাদেশের হয়ে আরও ভাল কিছু করবে।’

চলতি বিপিএলে ডায়নামাইটস ৬ ম্যাচে ৩ জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে আছে চার নম্বরে। পরাজয়গুলোর পেছনে বেশকিছু ভুল ছিল যা কাটিয়ে উঠে ঢাকায় ভাল কিছু করার লক্ষ্য সাঙ্গাকারার। তিনি বলেন, ‘আমরা কিছু ভুল করেছি। ফলে ম্যাচ হারতে হয়েছে। আসলে টি২০ ক্রিকেট এমনই। আমরা ভালভাবে অনুশীলন করছি। সামনে ইতিবাচক ক্রিকেট খেলতে হবে।’ ব্যাট হাতে বেশ ফর্মে আছেন সাঙ্গাকারা। ৬ ম্যাচে ৪৪.৮০ গড়ে করেছেন ২২৪ রান। নিজের ফর্ম নিয়ে সন্তুষ্ট সাঙ্গাকারা জানালেন আরও রান করতে চান তিনি। দলের বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের নিয়ে সাঙ্গাকারা বলেন, ‘আমাদের দলের ব্যাটিং লাইনটা বেশ ভারসাম্যপূর্ণ। স্থানীয় খেলোয়াড়রাও ভাল খেলছে। তাদের আরো জ্বলে উঠতে হবে এবং আমার পুরোপুরি বিশ্বাস আছে যে, তারা সেটা পারবে। আমার দলের স্থানীয় খেলোয়াড়রা বাংলাদেশের সেরা খেলোয়াড়দের মধ্যে আছে। তাদের সুযোগ দিতে হবে।’ তবে দলের আইকন নাসির হোসেন অবশ্য ব্যাট হাতে তেমন ধারাবাহিক না। কিন্তু বল হাতে দলকে ভাল সহায়তা দিচ্ছেন তিনি। নাসিরের ওপর আস্থা সাঙ্গাকারার, ‘নাসির ব্যাটে-বলে আমাদের জন্য দারুণ খেলেছে। আমি নিশ্চিত সে আরও ভাল করবে। তার ম্যাচ শেষ করে আসার ক্ষমতা আছে। তাকে নিয়ে আমার কোন চিন্তা নেই। সে বাংলাদেশের সেরা খেলোয়াড়দের একজন। তাকে দলে পেয়ে আমি খুশি।’