২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশ ওপেন ব্যাডমিন্টন সমাপ্ত

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ ইনডোর স্টেডিয়ামে শনিবার শেষ হয়েছে ‘ইউনেক্স-সানরাইজ বাংলাদেশ ওপেন আন্তর্জাতিক ব্যাডমিন্টন চালেঞ্জ’। শনিবার চূড়ান্ত খেলায় পুরুষ এককে ভারতের বি সাই প্রনীথ ২১-১৪, ৮-২১, ২১-১৭ পয়েন্টে স্বদেশী সামির ভার্মাকে; মহিলা এককে ভারতের গাদ্দে রুথভিকা শিবানী ২৩-২১, ১৯-২১, ২১-১৮ পয়েন্টে যুক্তরাষ্ট্রের আইরিস ওয়াংকে; পুরুষ দ্বৈতে ভারতের প্রণব জেরি চোপড়া-অক্ষয় দেয়ালকার জুটি ২১-১৬, ২১-১৬ পয়েন্টে মালয়েশিয়ার চি তিয়েন তান-উই গিয়েন তান জুটিকে; মহিলা দ্বৈতে থাইল্যান্ডের চালাদচালাম চয়নিত জুটি ২১-১৫, ২১-১৯ পয়েন্টে মালয়েশিয়ার উইন লু লিম-মেং ইয়েন লি জুটিকে এবং মিশ্র দ্বৈতে সিঙ্গাপুরের ইয়ং কাই তেরি হি-ওয়েই হান তান জুটি ২১-১০, ১৯-২১, ২১-১২ পয়েন্টে মালয়েশিয়ানর উই গিয়েন তান-মেভন জেমি লাই জুটিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হন। যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার বিজয়ী খেলোয়াড়দের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন কম্পিউটার সোর্স-এর পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) সামছুল হুদা, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিঃ-এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট কামাল উদ্দিন জসিম এবং বাংলাদেশ অলিম্পিক এ্যাসোসিয়েশনের উপ-মহাসচিব আশিকুর রহমান মিকু। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ব্যাডমিন্টন ফেডারেশনের সভাপতি ও স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন সচিব আবদুল মালেক।

মার্সেল জাতীয় বক্সিং শুরু

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ২৫ দলের ৮০ বক্সার নিয়ে শনিবার থেকে শুরু হয়েছে ‘মার্সেল জাতীয় পুরুষ ও মহিলা বক্সিং প্রতিযোগিতা।’ এই প্রতিযোগিতা চলবে ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত। উদ্বোধনী দিনে পুরুষ ৪৯ কেজি ওজন শ্রেণীতে বিকেএসপির আরিফুল ইসলামকে হারান বাংলাদেশ আনসারের সজীব হোসেন। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর শাহিন ইবনে ওমর হারান ঢাকা জেলার আনিসুর রহমানকে। আর সিটি বক্সিং ক্লাব রাজশাহীর মো. আবদুল্লাহকে হারান বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর গ্রেগরি হাসদা। মহিলা ৫৩ কেজি ওজন শ্রেণীতে বাংলাদেশ আনসারের শামীমা আক্তার হারান রাজশাহী জেলার সুমি খাতুনকে।

এক্সিম ব্যাংক জাতীয় পুরুষ হ্যান্ডবল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ শহীদ (ক্যাপ্টেন) এম. মনসুর আলী জাতীয় হ্যান্ডবল স্টেডিয়ামে শনিবার থেকে শুরু হয়েছে ‘এক্সিম ব্যাংক জাতীয় পুরুষ হ্যান্ডবল প্রতিযোগিতা।’ উদ্বোধনী দিনের খেলায় যশোর জেলা ১৬-১৬ গোলে সুনামগঞ্জ জেলার সঙ্গে ড্র করে। এ ছাড়া কুষ্টিয়া ঝালকাঠিকে, দিনাজপুর পটুয়াখালীকে, বান্দরবান মাদারীপুরকে, নারায়ণগঞ্জ ফেনীকে, জয়পুরহাট গোপালগঞ্জকে, চট্টগ্রাম নওগাঁকে, সুনামগঞ্জ বরিশালকে, কুমিল্লা জামালপুরকে, পঞ্চগড় নাটোরকে, মাদারীপুর সিলেটকে, পটুয়াখালী ঝালকাঠীকে, কুষ্টিয়া দিনাজপুরকে, চুয়াডাঙ্গা গোপালগঞ্জকে এবং ময়মনসিংহ নওগাঁকে হারায়।

পাঁচ নেপালী ফুটবলার আজীবন নিষিদ্ধ

ম্যাচ ফিক্সিং

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ম্যাচ ফিক্সিংয়ের অভিযোগে নেপালের ৪ ফুটবলার ও এক কর্মকর্তা এবং তাজিকিস্তানের এক রেফারিকে আজীবনের জন্য নিষিদ্ধ করেছে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি)।

ফুটবলের এই আঞ্চলিক সংস্থা শুক্রবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায় যে, ম্যাচ গড়াপেটার বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করেছে এএফসি। ম্যাচ ফিক্সিং ও গায়ের জোরে ফলাফলকে প্রভাবিত করার অভিযোগে এই মামলাটিই তার উৎকৃষ্ট উদাহরণ। ২০০৮ সাল থেকে ২০১২ সালের মধ্যে অনুষ্ঠিত বিভন্ন আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী ম্যাচ অর্থের বিনিময়ে প্রভাবিত করার অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় নেপালের কর্মকর্তা অঞ্জন কেসি এবং চার ফুটবলার বিকাশ সিং চেত্রি, সন্দ্বিপ রায়, হৃতেশ থাপা এবং সাগর থাপাকে আজীবনের জন্য ফুটবল থেকে নিষিদ্ধ করে এএফসি।

এদিকে ২০১৫ সালের ৬ অক্টোবর এএফসি অনুর্ধ-১৯ চ্যাম্পিয়নশিপে মালদ্বীপ বনাম তাজিকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচে দুর্নীতির মাধ্যমে প্রভাবিত করার প্রমাণ পাওয়ায় তাজিক রেফারি মুর্তাজোয়েভ পারভিজকে ফুটবল থেকে নিষিদ্ধ করে এএফসি।