১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিষিদ্ধই হলো রিয়াল মাদ্রিদ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গত কয়েকদিন ধরেই আলোচনার প্রাণকেন্দ্র ছিল কোপা থেকে রিয়াল মাদ্রিদের নিষিদ্ধ হওয়ার বিষয়টি। বাকি ছিল শুধুই আনুষ্ঠানিকতার। শুক্রবার তাও নিশ্চিত হয়ে গেল। এর ফলে চলতি বছরের কোপা ডেলরেতে আর খেলতে পারছে না স্প্যানিশ জায়ান্টরা। তবে নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপীল করবে রিয়াল মাদ্রিদ।

গত বুধবার রিয়াল মাদ্রিদ ৩-১ গোলে হারায় কাদিজকে। আর সহজ জয়ের সেই ম্যাচটিতেই রাশিয়ান মিডফিল্ডার ডেনিস চেরিশেভকে মাঠে নামানোর দায়ে রিয়ালের বিপক্ষে অভিযোগ আনে প্রতিপক্ষ ক্লাবটি। গত মৌসুমে রিয়াল থেকে ধারে ভিয়ারেলে খেলতে যায় চেরিশেভ। আর সেই ক্লাবে তিনটি হলুদ কার্ড পাওয়ায় এক ম্যাচ নিষেধাজ্ঞার শাস্তিতে পড়ে। সেই নিষেধাজ্ঞা এবারের কোপা মৌসুমের প্রথম ম্যাচটিতে কার্যকর করার কথা ছিল। কিন্তু তৃতীয় বিভাগের দলটির বিপক্ষে কোচ রাফায়েল বেনিতেজ চেরিশেভকে নামিয়ে বিপদে পড়েন। ম্যাচের প্রথম গোলটিও এসেছে তার পা থেকে। যদিও নিষেধাজ্ঞার বিষয়টি না জানার দাবি জানিয়েছে রিয়াল। তারা জানায়, বিষয়টি অবহিত হবার সাথে সাথে ‘বিরতির পরে চেরিশেভকে মাঠ থেকে উঠিয়ে নেয়া হয়েছে।

ম্যাচের পরপরই এ বিষয়ে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের কাছে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করে কাদিজ। আর তারই ফলশ্রুতিতে প্রতিযোগিতার বিচার কমিটি লস ব্ল্যাঙ্কোসদের প্রতিযোগিতা থেকে নিষিদ্ধ করার ঘোষণা দেয়। মাদ্রিদ সভাপতি পেরেজ অবশ্য এর বিরুদ্ধে আপীলের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। গত মৌসুমে ভিয়ারিয়ালের হয়ে ধারে খেলার সময় শেষ ৩ ম্যাচে হলুদ কার্ড পেয়েছিলেন ডেনিস চেরিশেভ। তাই চলতি মৌসুমে এক ম্যাচ নিষেধাজ্ঞায় থাকার কথা ছিল তার। কিন্তু রিয়াল মাদ্রিদ সেই নিষেধাজ্ঞা মানেননি। যদিওবা রিয়াল মাদ্রিদের অভিজ্ঞ কোচ রাফায়েল বেনিতেজ আত্মপক্ষ সমর্থন করে বলেছেন, চেরিশেভ বা ভিয়ারিয়াল কেউই তাদের এই নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারটি তাদের জানায়নি।’ আর ক্লাব সভাপতি ফ্লোরেন্তিনা পেরেজ বলেছেন, ‘আইন অনুযায়ী খেলোয়াড়কে নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে না জানালে তা কার্যকর করা যায় না। অথচ চেরিশেভকে বিষয়টি জানানো হয়নি।’ আরও কিছু আইনী দিকও নিজের পক্ষে ব্যাখ্যা দেন রিয়ালের সভাপতি। তবে সেই ব্যাখ্যা গ্রহণযোগ্য হয়নি। যে কারণেই স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশন বহিষ্কারের মতো কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আর এতে কপাল পুড়লো রিয়ালের ভক্ত-অনুরাগীদের। এই মৌসুমে কোপায় আর তারা বেল-রোনাল্ডোদের পারফর্মেন্স দেখার সুযোগ পাচ্ছে না। তবে রিয়ালের জন্য এখন আপীলের দরজা খোলা। এ জন্য তাদের প্রথমে স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের আপীল কমিটিতে আপীল করতে হবে। সেখানে খারিজ হলে দেশটির সর্বোচ্চ ক্রীড়া আদালতে আপীলের সুযোগও থাকছে। ক্লাবটি আপীলের সিদ্ধান্তের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছে। তবে আপীল গ্রহণযোগ্য না হলে চলতি মৌসুমে কোপা ডেলরেতে রিয়ালের খেলা শেষ হয়ে যাবে ওই ম্যাচের মধ্য দিয়েই।

এদিকে রিয়ালের ফরাসী তারকা করিম বেনজেমাও নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়তে যাচ্ছেন। ‘সেক্স টেপ’ বিতর্কের জের ধরে ফ্রান্স জাতীয় দলে নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছেন তিনি। ফ্রান্সের ফুটবল ফেডারেশন এ ব্যাপারে নীতিগতভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে বলে জানিয়েছে ফরাসী সংবাদ মাধ্যম। তবে সেটা আগামী বৃহস্পতিবার বোর্ডের নির্বাহী কমিটির মিটিং শেষেই আনুষ্ঠাতিকভাবে জানানো হবে। রিয়াল মাদ্রিদের এ ফরাসী স্ট্রাইকার জাতীয় দলের সতীর্থ ম্যাথিউ ভালবুয়েনার একটি সেক্স টেপ নিয়ে বিতর্কে জড়ান। ভালবুয়েনার একটি সেক্স টেপ ব্ল্যাকমেইলারদের হাতে চলে যায়। তারা ফোন করে ভালুবয়েনার কাছে অর্থ দাবি করে। তা না হলে তারা সে টেপ ফাঁস করে দেয়ার হুমকি দেয়। আর এ সেক্স টেপ ফাঁস হওয়ার ব্যাপারে জাতীয় দলের সতীর্থ করিম বেনজেমার দিকেই অভিযোগের আঙ্গুল তোলেন তিনি। এতে বেনজেমার বিপক্ষে ফৌজদারি মামলায় তদন্ত চলছে। কিন্তু বেনজেমা তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করেন। বরং সতীর্থ ভালবুয়েনাকে সাহায্য করতেই চেয়েছিলেন বলে জানান তিনি। ফ্রান্সের ফুটবল ফেডারেশন বেনজেমার বিষয়ে কঠিন হলেও তার পাশে দাঁড়িয়েছেন রিয়ালের কোচ রাফায়েল বেনিতেজ। তবে শেষ পর্যন্ত কি হয় সেটাই এখন দেখার অপেক্ষা।