২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গণতন্ত্র মুক্তি দিবস আজ

গণতন্ত্র মুক্তি দিবস আজ

অনলাইন ডেস্ক ॥ আজ স্বৈরাচার পতন ও গণতন্ত্র মুক্তি দিবস। ১৯৯০ সালের এই দিনে ছাত্র জনতার গণ আন্দোলনের মুখে সামরিক স্বৈরশাসক এরশাদ সরকারের পতন হয়। প্রায় নয় বছর পর দেশের মানুষ ফিরে পায় তাদের কাঙ্ক্ষিত গণতন্ত্র।

১৯৮২ সালের এই দিনে জেনারেল জিয়াউর রহমানের পদাঙ্ক অনুসরণ করে এইচএম এরশাদ অবৈধ পথে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে সামরিক শাসন কায়েম করেন। গুটিকয়েক রাজনৈতিক নেতা নিজেদের দল ছেড়ে ক্ষমতার ভাগ নিতে এরশাদের সঙ্গে যোগ দেন। ১৯৮৩ সালের মধ্য ফেব্রুয়ারি থেকে ছাত্রসমাজ শুরু করে এরশাদবিরোধী আন্দোলন। দীর্ঘ ৮ বছর ধরে স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলন হয়েছে রাজপথে।

এরশাদবিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে রাজপথে প্রাণ দিয়েছিলেন নূর হোসেন, সেলিম, দেলোয়ার, দিপালী, ডা. মিলন, ফিরোজ, জাহাঙ্গীরসহ অনেককে। তবে সম্মিলিতভাবে স্বৈরাচার এরশাদ বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলার ফলে পদত্যাগে বাধ্য হয় এরশাদ। জয় হয় গণতন্ত্রকামী মানুষের । দিবসটি উপলক্ষে গণতন্ত্রের ভিত্তিকে আরো শক্তিশালী করতে ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের প্রধান প্রধান দল এবং বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন নানা আয়োজনে পালন করবে দিবসটি।