২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বোয়ালমারীতে আওয়ামী লীগে গৃহবিবাদ

নিজস্ব সংবাদদাতা, ফরিদপুর, ৬ ডিসেম্বর ॥ জেলার বোয়ালমারী পৌরসভার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের গৃহবিবাদ চরম আকার ধারণ করেছে। বিদ্রোহী প্রার্থী বোয়ালমারী উপজেলা চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেনের ভাই পৌর আওয়ামী লীগ সদস্য মোজাফফর হোসেন বাবলু মিয়াকে নির্বাচন থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্য কেন্দ্রীয় নেতাদের তৎপরতাকে অগ্রাহ্য করেছেন এই প্রার্থী। এমনকি উপজেলা চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন তার ভাইয়ের দায়িত্ব না নেয়ার কথা কেন্দ্রীয় নেতাদের জানিয়ে নিয়েছেন। এ রকম গৃহবিবাদ থাকলে এই পৌরসভায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শাহজাহান মীরদাহ পিকুলের কোণঠাসা হয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল আলীম মোল্যা বলেন, নিজের ভাইকে মেয়র পদে দাঁড় করিয়ে দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতায় নেমেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান এমএম মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়া। কেন্দ্রীয় দুই নেতা মুশা মিয়াকে দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতার বিষয়ে তাকে ফোন দিলে তিনি মিথ্যাচার করে পদ বাঁচানোর অপকৌশল বেছে নেন।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়াকে ফোন করে দলের মনোনীত প্রার্থী শাহজাহান মীরদাহ পিকুলের বিরোধিতার বিষয়ে এবং তার ভাই মোজাফফর হোসেন বাবলু মিয়াকে বিদ্রোহী প্রার্থী করা সম্পর্কে জানতে চান।

সূত্র জানায়, টেলিফোনের জবাবে, মুশা মিয়া দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতার বিষয়টি অস্বীকার করে কেন্দ্রীয় নেতাদের বলেন তিনি দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতা করছেন না। তিনি ও তার পরিবার দলীয় মনোনীত প্রার্থীর সঙ্গে আছেন এবং নিজের ভাই বাবলু মিয়াকে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে তিনি দাঁড় করাননি। এটা বাবলুর নিজের সিদ্ধান্ত এবং নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালে সেটাও তার নিজের সিদ্ধান্ত।

ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন জানান, রবিবার সকালে আমি বোয়ালমারী উপজেলা চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়াকে ফোন করলে তিনি জানান, আমি দলীয় প্রার্থীর পক্ষে আছি। আমি নিজের ভাইকে নির্বাচন থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করব। তিনি আরও বলেন, দলীয় প্রার্থীর বিরোধিতা করলে বিদ্রোহী প্রার্থী বোয়ালমারী পৌর আওয়ামী লীগ সদস্য মোজাফফর হোসেন বাবলু মিয়া ও তার ভাই বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়ার বিরুদ্ধে কঠোর সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তবে মোশাররফ হোসেন মুশা মিয়া কেন্দ্রীয় দুই নেতার সঙ্গে ফোনালাপের কথা স্বীকার না করে বলেন, কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে এ ধরনের কোন কথাবার্তা হয়নি। অন্য কোন কথা বলার সুযোগ না দিয়ে তিনি লাইনটি কেটে দেন।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল আলীম মোল্যা বলেন, আওয়ামী লীগের সভাপতি মুশা মিয়া কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে চরম মিথ্যাচার করেছেন। মুশা তার ভাইয়ের জন্য সবার কাছে ভোট চাইছেন।