০৭ ডিসেম্বর ২০১৫

মৃত্যুদণ্ড রায়ের বিরুদ্ধে ঐশীর আপীল

স্টাফ রিপোর্টার ॥ পুলিশ দম্পতি মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না রহমান হত্যার ঘটনায় হাইকোর্টের দেয়া মৃত্যুদ- রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করেছেন ঐশী। রবিবার দুপুরে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ঐশীর আইনজীবী মাহবুব হাসান রানা এ আপীল আবেদন করেন। আপীল আবেদনে মৃত্যুদ- থেকে খালাস চাওয়ার সঙ্গে ঐশীর বিচারপ্রক্রিয়াকে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে বলেও জানান আইনজীবী মাহবুব হাসান রানা। হাইকোর্টের আপীল শুনানিতে ঐশীর পক্ষে থাকবেন সিনিয়র আইনজীবী আফজাল এইচ খান। এদিকে নির্বাচনে অংশগ্রহণে ইচ্ছুক দুই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। ইনজেকশনের মাধ্যমে বিষপ্রয়োগ করে স্ত্রী হত্যার দায়ে সিরাজুল হক নামে এক পাষ- স্বামীর ফাঁসির রায় বহাল রেখেছে হাইকোর্ট। রবিবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চ এ আদেশগুলো প্রদান করেছে।

মৃত্যুদ- রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করেছেন ঐশী। এর আগে ১৯ নবেম্বর বাবা-মাকে হত্যার দায়ে ঐশী রহমানকে মৃত্যুদ- দেয়া নিম্ন আদালতের রায়ের নথি ডেথ রেফারেন্স হাইকোর্টে আসে। পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের (পলিটিক্যাল শাখা) পরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ও তার স্ত্রী স্বপ্না রহমান হত্যা মামলায় গত ১২ নবেম্ব^র নিহতদের একমাত্র মেয়ে ঐশী রহমানকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদ-াদেশ দেন ঢাকার ৩ নম্বর দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক সাঈদ আহমেদের আদালত। ঐশীকে মৃত্যুদ-ের পাশাপাশি ২০ হাজার টাকা জরিমানা ও জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর কারাদ-ের নির্দেশ দেয়া হয়।

মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ ॥ নির্বাচনে অংশগ্রহণে ইচ্ছুক দুই স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। দাউদকান্দি পৌরসভার ওই প্রার্থীরা হলেন নাজমা আক্তার ও তার স্বামী মোঃ শাহজাহান মিয়া। রবিবার দুপুরে বিচারপতি মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মোঃ আশরাফুল কামালের বেঞ্চ তাদের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দেন। নাজমা আক্তার ও মোঃ শাহজাহান শুক্রবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিব উদ্দীন আহমদের কাছে অভিযোগ করেন, রিটার্নিং কর্মকর্তা ‘উপরের নির্দেশে’ তাদের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেননি। এরপর রবিবার সকালে উচ্চ আদালতে তারা রিট করলে আদালত তাদের মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দেয়।

স্বামীর মৃত্যুদ- বহাল ॥ ইনজেকশনের মাধ্যমে বিষপ্রয়োগ করে স্ত্রী হত্যার দায়ে সিরাজুল হক নামে এক পাষ- স্বামীর ফাঁসির রায় বহাল রেখেছে হাইকোর্ট। মৃত্যুদ- নিশ্চিতকরণ ও জেল আপীলের শুনানি শেষে রবিবার বিকেলে বিচারপতি সৌমেন্দ্র সরকার এবং বিচারপতি এএনএম বশিরউল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি এ্যাটর্নি জেনারেল এমএ মান্নান মোহন। আসামিপক্ষে ছিলেন এ্যাডভোকেট শামসুর রহমান।