২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ডুয়েটে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপে সংঘর্ষে আহত ১২ ॥ বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর, ৭ ডিসেম্বর ॥ গাজীপুরে ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (ডুয়েট) আধিপত্য বিস্তার ও হলের সিট দখলকে কেন্দ্র করে সোমবার বিকেলে ছাত্রলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১২ জন আহত হয়েছে। এ সময় তারা আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন মালামাল ভাংচুর ও তছনছ করে। পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় কর্তৃপক্ষ অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ও সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে ছাত্রদের এবং মঙ্গলবার সকাল ৮টার মধ্যে ছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠিতব্য সকল পরীক্ষা স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেক্ট্রিক্যাল এ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স (ইইই) বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র রুহুল আমিনসহ একাধিক ছাত্র জানান, ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (ডুয়েট) কুদরত-ই-খুদা হল থেকে ইলেক্ট্রিক্যাল এ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক্স (ইইই) বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছাত্রলীগ কর্মী রুহুল আমিনকে সোমবার দুপুরে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র বাশারের নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নাসির উদ্দিনের সমর্থকরা মারধর করে হল থেকে বের করে দেয়। এ ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউর রহমান রাতুল সমর্থকরা এ ঘটনার প্রতিবাদ জানাতে ওই হলে যায়। এ সময় প্রতিপক্ষ সভাপতির সমর্থকদের সঙ্গে তাদের বাগ্বিত-া ও হাতাহাতি হয়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের কর্মী ও সমর্থকরা লোহার রড, লাঠি ও বটি-দা নিয়ে প্রতিপক্ষের ওপর হামলা চালায় এবং আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন মালামাল ভাংচুর ও তছনছ করেছে। এতে দু’পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ শুরু হয়। প্রতিপক্ষের ধাওয়া খেয়ে সাধারণ সম্পাদকের সমর্থকরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বাইরে গিয়ে অবস্থান নেয়। সংঘর্ষে অন্তত ১২ জন আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র চঞ্চল কুমার ও ইইই বিভাগের একই বর্ষের ছাত্র মাসুদ রানাকে প্রথমে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তাদের অবস্থার অবনতি হওয়ায় সেখান থেকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এছাড়াও আহত সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং চতুর্থ বর্ষের দেবজিৎ চন্দ্র আকাশ, একই বর্ষের ছাত্র রাকিব হোসেন লিংকন, জুয়েল বিশ্বাস, সফিকুর রহমান ও সোলায়মান এবং ইইই’র ছাত্র গিয়াস উদ্দিনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত অন্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এঘটনার পর সন্ধ্যায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আহত চঞ্চল কুমার মারা গেছেÑ এমন গুজব ছড়িয়ে পড়লে ক্যাম্পাস ও আশপাশের এলাকায় উত্তেজনা দেখা দেয়।