১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিএনপি পেট্রোল বোমা রেখে নির্বাচনে আসায় গণতন্ত্র বিকশিত হবে ॥ সুরঞ্জিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টাম-লীর সদস্য এবং আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, বিএনপি এখন পেট্রোল বোমা রেখে নির্বাচনে এসেছে। এই নির্বাচনে ক্ষমতা বদল না হলেও নৌকা, ধানের শীষ দেখা হবে। আর এর মাধ্যমে অবরুদ্ধ গণতন্ত্রের পথ বিকশিত হবে। আর বিএনপি নির্বাচনে এসেছে বলেই এখন তাদের অফিস সরগরম। আগে একটা মাছিও সেখানে পড়ত না। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে প্রার্থী থেকে তাদের বিদ্রোহী প্রার্থী বেশি।

সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির গোলটেবিল মিলনায়তনে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত ১৬ ডিসেম্বর মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

নারায়ণগঞ্জের সাত খুন হত্যা মামলার পুনঃতদন্ত এবং নূর হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার দাবি জানিয়ে সুরঞ্জিত বলেন, যাকে কেন্দ্র করে ঘটনা ঘটেছে, তাকে কোন প্রশ্ন করা হবে না, এটা হতে পারে না। বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উদ্দেশে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সফলতাকে স্বীকার করে পেট্রোল বোমা, জঙ্গীবাদ, হেফাজত আমদানির জন্য জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়ে শান্তির পথে আসুন। ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয়। মুক্তিযুদ্ধ, যুদ্ধাপরাধীর বিচার না মানলে এ দেশে রাজনীতি করা যাবে না। জামায়াত নিয়ে যাত্রা কখনই শুভ হবে না।

দিনাজপুরের কান্তজিউ মন্দিরের রাসমেলায় বোমা হামলার ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা প্রসঙ্গে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, একজন পুলিশকে সাসপে- করে দিলেন আর এ ঘটনা শেষ হয়ে গেল, তা হয় না। ঘটনার সময় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কোথায় ছিলেন? পুলিশের সীমাহীন গাফলতির কারণে ওই ওসিকে ক্লোজ করতে হবে।

আয়োজন সংগঠনের সভাপতি জাকির আহমেদের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেনÑ সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।

১৪ দলের বৈঠক আজ ॥ আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় ধানম-ির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে ১৪ দলের বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে। বৈঠকে পৌর নির্বাচন এবং জোট শরীক ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপিকে প্রাণনাশের হুমকিসহ নানা বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে। ১৪ দলের কেন্দ্রীয় মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম যথাসময়ে বৈঠকে উপস্থিত থাকার জন্য ১৪ দলের শীর্ষ নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় পৌরসভা নির্বাচনে নিজ নিজ দল থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে ১৪ দলীয় জোটের শরিক দলগুলো। আওয়ামী লীগও এককভাবে নির্বাচনে নেমেছে। তবে এ নির্বাচনের প্রচার কৌশল নির্ধারিত হয়নি এখনও। জোটের নেতারা আশা করছেন, আলাদা আলাদা নির্বাচন করলেও বিএনপি-জামায়াত বিরোধী নির্বাচনী প্রচারের কৌশল ঠিক হবে আজকের বৈঠকে।