২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তিনদিনব্যাপী ক্যাপিটাল এক্সপো শুরু হচ্ছে বৃহস্পতিবার

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে তিনদিনব্যাপী ‘বাংলাদেশ ক্যাপিটাল মার্কেট এক্সপো-২০১৫।’ রাজধানীর কাকরাইলে অবস্থিত ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে এ মেলা চলবে শনিববার পর্যন্ত। পুঁজিবাজারের প্রচার ও উৎকর্ষ বিকালে এই মেলার উদ্বোধন করবেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮ পর্যন্ত মেলা চলবে। মেলাকে আকর্ষণীয় করতে দিনশেষে বিশেষ র‌্যাফেল ড্র আয়োজন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার রাজধানীর পল্টনে অবস্থিত বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটে (বিআইসিএম) আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান মেলার আয়োজক ও একটি অনলাইন পত্রিকার সম্পাদক জিয়াউর রহমান। জিয়াউর রহমান বলেন, মেলা প্রায় ৬৫টি স্টল থাকছে। এতে অংশ গ্রহণ করছে বিভিন্ন ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক, অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি, ক্রেডিট রেটিং এজেন্সি, ট্রাস্টি, অডিট ফার্ম, কাস্টোডিয়ান ও তালিকাভুক্ত বিভিন্ন কোম্পানি। এ ছাড়া দ্য ইনস্টিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্টেন্ট অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি), দ্য চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) ও দ্য ইনস্টিটিউট অব চার্টার্ড সেক্রেটারিজ অব বাংলাদেশ (আইসিএসবি) অংশ গ্রহণ করছে।

সংবাদ সম্মেলনে বিআইসিএমের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান বলেন, বাংলাদেশের শিল্পায়ন এখনো ব্যাংকনির্ভর। শিল্প বিকাশে আমাদের পুঁজিবাজার এখনো অনেক পিছিয়ে রয়েছে। পুঁজিবাজার যেন শিল্প বিকাশে ভূমিকা রাখতে পারে সেদিকে সংশ্লিষ্টদের নজর দিতে হবে। জিয়াউর রহমান আরও বলেন, পুঁজিবাজারে যোগ্য নেতৃত্বের অভাব রয়েছে। ব্রোকারেজ হাউস, মার্চেন্ট ব্যাংক, অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিসহ পুঁজিবাজার সংশ্লিষ্ট সব প্রতিষ্ঠান যোগ্য নেতার অভাবে ভুগছে। এই শূন্যস্থান পূরণ করার লক্ষ্যে নতুন প্রজন্মের মধ্যে নেতৃত্ব সৃষ্টি করতে হবে। আর যোগ্য নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যকে সামনে রেখে মেলার আয়োজন করা হয়েছে। নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে মেলায় ২১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তাদের কাছে পুঁজিবাজারের মৌলিক বিষয়াদিসহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরা হবে। এই মেলার বিভিন্ন দিনের সেমিনারে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, জ্বালানি ও বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

মেলার তিনদিনই দর্শনার্থীদের জন্য বিনামূল্যে কূপনের ব্যবস্থা থাকছে। প্রতিদিন ২১ জন বিভিন্ন পুরস্কার পাবেন। এর মধ্যে ঢাকা টু মালয়েশিয়া টু ঢাকা, ঢাকা টু কক্সবাজার টু ঢাকা ভ্রমণের সুযোগসহ অন্যান্য পুরস্কারের ব্যবস্থা রয়েছে।

নির্বাচিত সংবাদ