২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাঁশখালীতে নৌকার পালে হাওয়া

  • মতভেদ ভুলে এক মঞ্চে আ’লীগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, বাঁশখালী, ৮ ডিসেম্বর ॥ চট্টগ্রামের বাঁশখালী পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিদিন রাজনৈতিক মাঠে নতুন নতুন করে যোগ হচ্ছে বিভিন্ন আলোচনা। আজ বুধবার থেকে সকল প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারণায় নামছেন। তফসিল ঘোষণা হওয়ার পর থেকে সকল প্রার্থী প্রচারণা চালালেও বিধিমোতাবেক আজ থেকে প্রকাশ্যে নামবে সকল প্রার্থী। বাঁশখালীর রাজনীতি হচ্ছে পৌরসভাকেন্দ্রিক। পৌরসভায় যারা ক্ষমতায় থাকে তারা রাজনৈতিক দিক দিয়ে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে। বিশেষ করে রাজনৈতিক কর্মকা-ে এগিয়ে থাকে ক্ষমতাসীন দল। তাছাড়া বাঁশখালী আওয়ামী লীগে দীর্ঘদিন দলীয় কোন্দল থাকলেও পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মতভেদ ভুলে সকল নেতাকর্মী একই মঞ্চে দাঁড়িয়েছে। তাই এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকার পালে হাওয়া লাগবে বলেও স্থানীয়দের অভিমত। বাঁশখালী পৌরসভা নির্বাচনে তিনজন প্রার্থী মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও বিশেষ করে আওয়ামী লীগের প্রার্থী শেখ সেলিমুল হক চৌধুরী ও বিএনপির প্রার্থী কামরুল ইসলাম হোছাইনীর মধ্যে ভোটযুদ্ধ সীমাবদ্ধ থাকবে। বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের পক্ষ থেকে বাঁশখালী পৌরসভায় নিজেদের অবস্থান নিশ্চিত করার জন্য মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকে মরিয়া হয়ে উঠেছে বিএনপির নেতাকর্মীরা। তবে পৌরসভা নির্বাচনে জামায়াতের পক্ষ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও পরবর্তীতে বিএনপির সঙ্গে সমঝোতা করে তারা মনোনয়নপত্র জমা দেয়নি। আওয়ামী লীগের সাংসদ ক্ষমতায় আসার পর থেকে বাঁশখালীতে কয়েক শ’ কোটি টাকার উন্নয়ন কর্মকা- পরিচালিত হয়েছে এবং বাঁশখালীতে নতুন নতুন উন্নয়ন কর্মকা- অব্যাহত রয়েছে। সেক্ষেত্রে পৌরসভায় যদি আওয়ামী লীগের প্রার্থী নির্বাচিত না হয়ে অন্য কোন দলের প্রার্থী নির্বাচিত হয় তাহলে পৌরসভার আশানুরূপ উন্নয়ন হবে কিনা, তা নিয়ে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের অভিমত ব্যক্ত করছেন। বাঁশখালী পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে তিনজন, সংরক্ষিত আসনে ১১ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বাঁশখালী পৌরসভার ১১টি ভোটকেন্দ্রে ১২ হাজার ১শ’ ৪৭ জন পুরুষ ভোটার এবং ১১ হাজার ৬শ’ ৪৬ জন মহিলা ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।