২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিদ্রোহীরা প্রত্যাহার না করলে সুবিধা পাবে স্বতন্ত্র প্রার্থী

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ, ৮ ডিসেম্বর ॥ জেলার সাতটি পৌরসভার মধ্যে জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নির্বাচনী এলাকা হোসেনপুর পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে ছয় প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের মনোনীত দলীয় প্রতীক নৌকা ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকে প্রার্থীরা তাদের দলীয় নেতাকর্মী-সমর্থকদের নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। অপরদিকে আওয়ামী লীগের দুই ও বিএনপির এক বিদ্রোহী প্রার্থীও মাঠে রয়েছে।

এখানে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন গত নির্বাচনে পরাজিত জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল কাইয়ুম খোকন, সাবেক ভিপি রাইসুল হাসান কেনেডি ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আব্দুল কাদির স্বপন। পরে কেন্দ্র আব্দুল কাইয়ুম খোকনকে দলীয় মনোনয়ন দেয়। এ অবস্থায় মনোনয়ন বঞ্চিত কেনেডি ও স্বপন বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে এখনও রয়ে গেছেন।

অপরদিকে বিএনপির বর্তমান মেয়র ও পৌর বিএনপির আহ্বায়ক মাহবুবুর রহমান ছাড়াও মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন অপর প্রার্থী বিএনপি নেতা আনোয়ার আলী মৃধা রতন। পরে কেন্দ্র থেকে সমর্থন দেয় মাহবুবুর রহমানকে। এ অবস্থায় আনোয়ার আলী মৃধা রতন মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে এখনও গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন। এদিকে বড় দু’দলের বিদ্রোহী প্রার্থী নিয়ে যখন দলীয় প্রার্থীরা বেকায়দায় পড়েছে। তখন সাধারণ ভোটাররা মনে করেন, ভৌগোলিক অবস্থান ও মাইনরিটি হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যবসায়ী সৈয়দ হোসেন হাছু রয়েছেন সুবিধাজনক অবস্থায়।

প্রার্থীর বিরুদ্ধে ভুয়া কাগজ দাখিলের অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ৮ ডিসেম্বর ॥ কলাপাড়া পৌরসভা নির্বাচনে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালের স্ত্রী, সংরক্ষিত মহিলা আসনের কাউন্সিলর প্রার্থী রানী বেগমের বিরুদ্ধে মনোনয়নপত্রের কাগজপত্রের সঙ্গে ভুয়া কর চিহ্নিতকরণ নাম্বার (ইটিআইএন) ব্যবহারের অভিযোগ করা হয়েছে। সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী এবং উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সম্পাদক উম্মে তামিমা বিথী পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছে লিখিত এ অভিযোগ করেন। অভিযোগে বলা হয়েছে, ৭, ৮, ৯ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থী রানী বেগম ভুয়া এবং জাল-জালিয়াতিমতে সৃষ্ট কর চিহ্নিতকরণ নাম্বার তৈরি করে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিনে অন্যান্য কাগজপত্রের সঙ্গে জমা দিয়েছেন।