২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সব অমীমাংসিত সমস্যার শীঘ্রই সমাধান ॥ রাষ্ট্রপতি

  • পঙ্কজের বিদায়ী সাক্ষাত

রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ আবদুল হামিদ বলেছেন, স্থল সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়ন বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যেকার সম্পর্ক ত্বরাম্বিত করেছে। দু’দেশের মধ্যেকার সকল অমীমাংসিত ইস্যু শীঘ্রই সমাধান হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার পঙ্কজ শরণ মঙ্গলবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাত করতে গেলে তিনি একথা বলেন। খবর বাসস’র।

সাক্ষাতকালে আবদুল হামিদ বলেন, বাংলাদেশ এবং ভারতের সংস্কৃতি ও ইতিহাস একই। তিনি দু’দেশের জনগণের কল্যাণে সংস্কৃতি বিনিময়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। তিনি সম্প্রতি বন্যায় ভারতের জানমালের ক্ষয়ক্ষতিতে শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করে বলেন, প্রয়োজনের সময় বাংলাদেশ সব সময় ভারতের পাশে থাকবে। দু’দেশের মধ্যে সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য বৃদ্ধি পেয়েছে বলে রাষ্ট্রপতি এবং হাইকমিশনার একমত প্রকাশ করেন। আবদুল হামিদ দুই ঘনিষ্ঠ প্রতিবেশী দেশের মধ্যে সম্পর্ক জোরদারে ভূমিকা রাখার জন্য পঙ্কজ শরণের প্রশংসা করেন। পঙ্কজ শরণ বলেন, ভারত সব সময় বাংলাদেশকে ভাল অংশীদার হিসেবে বিবেচনা করে।

শ্রীলঙ্কার বিমান বাহিনী প্রধানের সাক্ষাত ॥ শ্রীলঙ্কার বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল গগন পাওলাসথি বুলাথসিংহালা বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন। এ সময় রাষ্ট্রপতি বলেন, দু’দেশের মধ্যে প্রতিরক্ষা সম্পর্ক সম্প্রসারণের ব্যাপক সুযোগ রয়েছে। তিনি দু’দেশের মধ্যে উচ্চ পর্যায়ের সামরিক কর্মকর্তা বিনিময়ের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। বাংলাদেশে সামরিক প্রশিক্ষণের সুযোগ-সুবিধার কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, শ্রীলঙ্কার সামরিক কর্মকর্তারা প্রশিক্ষণ গ্রহণে এ সুযোগ কাজে লাগাতে পারেন।

ব্রিটিশ হাইকমিশনারের বিদায়ী সাক্ষাত ॥ বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট গিবসন মঙ্গলবার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাত করেছেন। সাক্ষাতকালে রাষ্ট্রপতি দ্বি-পক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারে গিবসনের ভূমিকার প্রশংসা করেন এবং ভবিষ্যতে এই সম্পর্ক আরও জোরদার হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। ব্রিটিশ হাইকমিশনার বাংলাদেশে তার দায়িত্ব পালনকালে সহযোগিতা করার জন্য রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। রাষ্ট্রপতির সংশ্লিষ্ট সচিবরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।