১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ব্যাংকে ধাতব মুদ্রা না নেয়ায় বিক্ষোভ

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ॥ ব্যাংকে ধাতব মুদ্রার কয়েন না নেয়ার প্রতিবাদে বুধবার সকালে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও স্মারকলিপি দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

জেলা পরিবেশক সমিতির ব্যানারে বেলা ১১টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা পার্ক থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে সমাবেশ করে।

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিবেশক সমিতির সভাপতি গোলাম শাহনেওয়াজ অপু। সমাবেশে অভিযোগ করে বলা হয়, ১, ২ ও ৫ টাকার ধাতব মুদ্রার কয়েন প্রচলিত থাকলেও জেলার কোন ব্যাংকের শাখায় তা গ্রহণ করা হচ্ছে না। ফলে ব্যবসায়ীরা কয়েন নিয়ে বেকায়দায় পড়েছেন। এতে করে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা গুটিয়ে নেয়ার সম্মুখীন হচ্ছেন। সমাবেশ শেষে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।

সিরাজগঞ্জে মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার সিরাজগঞ্জ থেকে জানান, ব্যবসায়ীরা প্রায় কোটি টাকার ধাতব মুদ্রা বা কয়েন নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। সরকারের প্রজ্ঞাপন থাকা সত্ত্বেও সরকারী-বেসরকারী ব্যাংকগুলো ২ টাকা এবং ৫ টাকা মানের কয়েন জমা নিচ্ছে না। বেসরকারী ব্যাংকের অধিকাংশই যেমন প্রাইম ব্যাংক, ইসলামী ব্যাংক, ন্যাশনাল ব্যাংকসহ অন্য ব্যাংকগুলো ৫, ১০, ২০ ও ৫০ টাকা এমনকি এক শ’ টাকার নোটও জমা নিতে চায় না। অনলাইন ব্যাংকিংয়ের ক্ষেত্রে এ সমস্যা আরও প্রকট হয়ে উঠেছে। এ কারণে ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। বুধবার সকালে পরিবেশক সমিতি, রেস্তারাঁ মালিক সমিতি, জুয়েলারি মালিক সমিতি, চাল ব্যবসায়ীসহ জেলার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা সিরাজগঞ্জ চৌরাস্তা মোড়ে মানববন্ধন শেষে প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ব্যবসায়ী নেতা গৌতম সাহা, কামরুল হাসান, আব্দুল মতিন চৌধুরী প্রমুখ। পরে একটি মৌন মিছিল শহর প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে।

না’গঞ্জে রাজউকের উচ্ছেদ ॥ প্রতিবাদে বিক্ষোভ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ, ৯ ডিসেম্বর ॥ নগরীর চাষাঢ়া বালুরমাঠ এলাকায় ট্যাক্সি ও মাইক্রোবাসসহ ৫০টি স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে রাজউক। উচ্ছেদ অভিযানের পর পাঁচটি প্লটের প্রায় ৪৮ কাঠা জমি উদ্ধার করে রাজউক কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে নিজেদের দখলে নিয়েছে। অবশ্য নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন বলছে, আদালতের স্থতিগাদেশ অমান্য করে রাজউক এ উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে দশটা থেকে দুপুর পর্যন্ত রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইফতেখার আহম্মেদ চৌধুরীর নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়। উচ্ছেদের পর নগরীর একমাত্র ট্যাক্সিস্ট্যান্ডের চালক ও গাড়ি মালিকরা নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনে গিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেন। এ সময় তারা শহরে একটি বিকল্প স্ট্যান্ডের দাবি জানান। উচ্ছেদ অভিযানে উপস্থিত ছিলেন- রাজউকের স্টেট পরিচালক দুলাল কৃষ্ণ সাহা, ট্রেড সদস্য আব্দুল হাই, নারায়ণগঞ্জে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জাকারিয়াসহ বিপুলসংখ্যক পুলিশ।