২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভোটের আগের ভোটে হেরে এককাট্টা দলীয় সিদ্ধান্তেই

নিজস্ব সংবাদদাতা, সান্তাহার, ৯ ডিসেম্বর ॥ বগুড়ার সান্তাহার পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদের জন্য মনোনয়ন পেতে উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের তিন নেতার মধ্যে ছিল প্রবল প্রতিদ্বন্দি¦তা। কেউ কাউকে ছাড় দিতে রাজি না থাকা প্রতিদ্বন্দ¦ী তিন প্রার্থী ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ও সান্তাহার ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান আশরাফুল ইসলাম মন্টু, উপজেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক রাশেদুল ইসলাম রাজা এবং সান্তাহার পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর বারী।

শেষতক উপজেলা ও পৌর পর্যায়ের কমিটির নেতৃবৃন্দ বিষয়টি নিয়ে ভোটের আগেই ভোটোভুটির আয়োজন করেছিলেন। ২৮ নবেম্বর রাতে উপজেলা অডিটোরিয়ামে আয়োজিত উপজেলা ও পৌর কমিটির যৌথ বর্ধিত সভায় উপস্থিত ১২৯ ভোটারের ভোটে রাশেদুল ইসলাম রাজা সর্বোচ্চ ৭৫ ভোট পান। তৃণমূল নেতাকর্মীদের রায় অনুযায়ী হাইকমান্ড রাশেদুল ইসলাম রাজাকে দলীয় মনোনয়ন প্রদান করেছেন। মনোনয়ন প্রদান এবং বুধবার থেকে মেয়র পদে আনুষ্ঠানিক প্রচার-প্রচারণা শুরুর পর থেকে পাল্টে গেছে দৃশ্যপট। মনোনয়ন পেতে প্রতিদ্বন্দ¦ী দুই প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম মন্টু এবং জাহিদুর বারী ভোটের আগের ভোটে হেরে যাওয়ায় দলীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেনি। তারা সরে এসেছেন আগের অবস্থান থেকে। ওরা দু’জন এখন দলীয় প্রার্থীর পক্ষে এককাট্টা হয়ে কাজ করছেন।

এ ব্যাপারে জাহিদুর বারী বলেন, পৌর নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য অনেক আগে থেকে মাঠে কাজ করেছি। কিন্তু যেহেতু দলের তৃণমূল নেতাকর্মীদের রায় পাইনি তখন তাদের মতামতের বিরুদ্ধে যাওয়াকে সঠিক মনে করিনি। দলের মনোনীত প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

ঠাকুরগাঁওয়ে বিভেদ ভুলে একতার সুর

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও, ৯ ডিসেম্বর ॥ দীর্ঘ ১০ বছর পর গত বছরের অক্টোবরে সম্মেলনে নতুন নেতৃত্ব পায় জেলা আওয়ামী লীগ। সেই সঙ্গে এসে জোটে কোন্দল ও বিভেদ। এ কোন্দল ছড়িয়ে পরে শুধু আওয়ামী লীগে নয় স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ এমনকি ছাত্রলীগেও।

এবার পৌরসভা নির্বাচনে দলটি থেকে মেয়র পদে বিভেদের ডামাডোলে কিছুটা দূরে থাকা তাহমিনা মোল্লাকে মনোনয়ন দেয়া হয়। এতে ঠাকুরগাঁওয়ের রাজনীতির মাঠ গরম করে রাখা নেতারা কিছুটা বিস্মিত হলেও তাহমিনা মোল্লাকে কেন্দ্র করে নির্বাচনে একাট্টা হয়ে দলের জন্য কাজ করতে চাচ্ছেন।

জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বুধবার পৌর আওয়ামী লীগের এক সভায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা পৌর নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে এক হয়ে কাজের ঘোষণা দেন। দুপুরে ওই সভায় ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা নির্বাচনী প্রচারে খরচ না নেয়ারও ঘোষণা দেন। পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোস্তাফিজুর রহমান, মোস্তাক আলম, মনোনয়ন প্রত্যাশী ইকরামুল হক, দলের মেয়র পদপ্রার্থী তাহমিনা মোল্লা প্রমুখ বক্তব্য দেন। মোস্তাক আলম বলেন, কেন্দ্র ঘোষিত প্রার্থীর পক্ষে আন্তরিকতা থেকেই ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা বিনা খরচে নির্বাচনী কর্মকা- পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছেন। জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শফিউল ইসলাম বলেন, বিভেদ ভুলে আমরা পৌর নির্বাচনে তাহমিনা মোল্লাকে সামনে নিয়ে কাজ করতে চাই।