২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তৃতীয় দিনেও পুঁজিবাজারে সূচকের পতন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ তৃতীয় দিনের মতো মূল্য সূচকের পতনে শেষ হয়েছে পুঁজিবাজারের লেনদেন। বুধবার সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে দেশের উভয় বাজারে সূচকের সামান্য পতন হয়েছে। একইসঙ্গে লেনদেনের পরিমাণও কমেছে। সারাদিন সূচকের ওঠানামার পরে শেষ পর্যন্ত পতনের ধারাতেই থাকলো উভয় বাজারে। একইভাবে লেনদেনের গতিও আগের দিনে চেয়ে কিছুটা কম থাকায় সার্বিক লেনদেনের নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

সকালে সূচকের ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর বেলা এগারোটর পর থেকেই সূচকের তীর নিচে নামতে থাকে। এরপর পুরোদিনই সূচকের ওঠানামা চলতে থাকে। দিনশেষে প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্সের পতন হয়েছে ৬.১১ পয়েন্ট। দিনশেষে সূচক গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৫৮৭.৩৭ পয়েন্টে।

আগের দিনে ডিএসইতে সূচক কমেছিল ১৪.৫৬ পয়েন্ট। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩২৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দিনশেষে দর বেড়েছে ১৪৪টির, কমেছে ১২৬টির ও অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৩টির দর। এদিকে বুধবারও ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪০০ কোটি টাকার নিচে। দিনশেষে লেনদেন হয়েছে ৩৮১ কোটি ৪১ লাখ টাকা।

পরিশোধিত মূলধনের দিক থেকে দেখা যায়, বাজারে চাহিদা বেশি ছিল ১০০-৩০০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের, যা আগের দিনের তুলনায় ১৩.১০ শতাংশ বেড়েছে। অন্যদিকে, হ্রাস পেয়েছে ৫০-১০০ এবং ৩০০ কোটি টাকার ওপরে পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের যা আগের দিনের তুলনায় ৫.২২ শতাংশ এবং ৯.১৫ শতাংশ কমেছে।

অন্যদিকে, ২০-৫০ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধনী প্রতিষ্ঠানের লেনদেনের পরিমাণ আগের দিনের তুলনায় ১০.২৫ শতাংশ বেড়েছে। পিই রেশিও ৪০-এর ওপরে থাকা শেয়ারের লেনদেন, আগের দিনের তুলনায় ৩৮.২২ শতাংশ বেড়েছে। অন্যদিকে, পিই রেশিও ২০-৪০ এর মধ্যে থাকা শেয়ারের লেনদেন আগের দিনের তুলনায় ১৩.৪৬% কমেছে।

দিনটিতে লেনদেনের শীর্ষে রয়েছে আফতাব অটো। দিনশেষে কোম্পানিটির ১৬ কোটি ৫১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মার লেনদেন হয়েছে ১৬ কোটি ৩৬ লাখ ২৮ হাজার টাকা। ১৩ কোটি ৯৩ লাখ ৮৬ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে স্কয়ার ফার্মা।

লেনদেনে এরপর রয়েছে যথাক্রমে কাশেম ড্রাইসেল, ডেল্টা লাইফ, বিএসআরএম স্টিল, ইউনাইটেড পাওয়ার, কেডিএস এক্সেসরিজ, এম আই সিমেন্ট, শাশা ডেনিমস।

এদিকে ঢাকার বাজারের মতো দিনটিতে অপর বাজারেও সূচক ও লেনদেনে কিছুটা ভাটা দেখা গেছে।

বেশিরভাগ কোম্পানির দর কমার কারণে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সিএসসিএক্স ১৫.৭১ পয়েন্ট কমে দিনশেষে ৮ হাজার ৫১৮.৭৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সেখানে লেনদেন হয়েছে ২৭ কোটি ১৮ লাখ টাকার। সেখানে লেনদেনে অংশ নেয়া কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৯৭টির, কমেছে ১১৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির দর।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো- কেয়া কসমেটিকস, কাসেম ড্রাইসেল, শাশা ডেনিমস, বিএসআরএম স্টিল, আফতাব অটোস, কেডিএস এক্সেসরিজ, ইউনাইটেড এয়ার, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, বেক্সিমকো ফার্মা ও ইউনাইটেড এয়ার।