২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

স্কয়ার হাসপাতালকে ২ লাখ ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আইন অমান্য করায় রাজধানীর পান্থপথে অবস্থিত স্কয়ার হাসপাতালকে ২ লাখ ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। অনুমোদন না নিয়ে জরুরী বিভাগ, আইসিইউ, সিসিইউ, ডায়ালাইসিস সেন্টার চালুসহ নানা অভিযোগে এ জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া রাজধানীতে অজ্ঞানপার্টির কবলে পড়ে এক ব্যবসায়ী ও তার কর্মচারী লাখ টাকা খুইয়েছেন।

বুধবার দুপুর ১২টা থেকে বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত অভিযান পরিচালিত হয়। র‌্যাব-২ এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ হেলালউদ্দিন জানান, স্কয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অনুমোদন না নিয়েই জরুরী বিভাগ, সিসিইউ, আইসিইউ, এনএসইউ ও ডায়ালাইসিস সেন্টার চালাচ্ছিল। এ ছাড়া ব্লাডব্যাংক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের লাইসেন্স ২০১৪ সালে মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে যায়। নতুন করে লাইসেন্স নবায়ন করেনি। হাসপাতালটির মেডিক্যাল ডিভাইস ও সার্জিক্যাল অপারেটরের ডিএআর লাইসেন্স নেই। এমনকি হাসপাতালটির ফুটকোর্টে তৈরিকৃত খাবারের বিএসটিআই-এর কোন অনুমোদন নেই। যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমোদন না নিয়েই খাবার তৈরি করে তা বিক্রি করছিল। এমনকি ফুডকোর্টের ব্যবসা করার জন্য নিয়মানুযায়ী ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের ট্রেড লাইসেন্স থাকা বাধ্যতামূলক। ট্রেড লাইসেন্স পাওয়া যায়নি। হাসপাতালটি ৩শ’ বেডের। কিন্তু বিনা অনুমতিতে ৬৫টি বেড বাড়িয়েছে। চুক্তি অনুযায়ী ৫ শতাংশ বেডের রোগীদের ফ্রি চিকিৎসা সেবা দেয়ার কথা থাকলেও তা দিচ্ছে না।

এসব অনিয়মের কারণে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ২ লাখ ৬৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জরিমানার টাকা তাৎক্ষণিক আদায় করে তা রাষ্ট্রীয় কোষাগারে জমা দেয়া হয়।