১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নজরুলের স্ত্রীর রিটের আদেশ ১৪ ডিসেম্বর ॥ সাজা কমল শীর্ষ সন্ত্রাসী জোসেফের

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনায় নিহত নজরুল ইসলামের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বিউটির করা মামলায় অধিকতর তদন্তের নির্দেশনার রিট আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে। আদেশের জন্য আগামী ১৪ ডিসেম্বর দিন ঠিক করা হয়েছে। আদালত অবমাননার অভিযোগে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুনসহ দুইজনকে তলব করেছে হাইকোর্ট। আগামী ৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার হাইকোর্টে সশরীরে হাজির হয়ে আদালত অবমাননার ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। এদিকে রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়ের (নতুন জাতীয়করণ) সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য তৈরিকৃত প্যানেলভুক্ত শিক্ষকদের নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। অন্যদিকে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ব্যবসায়ী মোস্তফা হত্যা মামলায় আলোচিত ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ তোফায়েল আহমেদ জোসেফের মৃত্যুদ- কমিয়ে যাবজ্জীবন দ- দিয়েছে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগ। মামলার অপর এক আসামি কাবিল সরকারকে যাবজ্জীবন দ- থেকে খালাস দেয়া হয়েছে। বুধবার আপীল বিভাগ এবং হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চগুলো এ আদেশ প্রদান করেছে।

সাত খুনের ঘটনায় অধিকতর তদন্তের নির্দেশনার রিট আবেদনের ওপর আদেশের জন্য আগামী ১৪ ডিসেম্বর দিন ঠিক করা হয়েছে। একই সঙ্গে ঘটনায় জড়িত বাদ যাওয়া ৫ আসামির বাদীর নারাজি আবেদনের বিচারিক আদালতের পরীক্ষা সংক্রান্ত তথ্য বৃহস্পতিবারের মধ্যে হাইকোর্টে জমা দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি আমির হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। গত ৬ ডিসেম্বর ওই আবেদনের শুনানি করে আদেশের জন্য ৯ ডিসেম্বর দিন ঠিক করেছিল আদালত। গত ২৯ নবেম্বর রিটের ওপর শুনানি শুরু হয়। তার আগে গত ১ ডিসেম্বর এ রিটের ওপর দ্বিতীয় দিনের শুনানি করেন আইনজীবীরা। ৬ ডিসেম্বর সর্বশেষ শুনানি করে আদেশের জন্য দিন ঠিক করে আদালত। বুধবার আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন এ্যাডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার; তার সঙ্গে ছিলেন মন্টু ঘোষ। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি এ্যার্টনি জেনারেল শেখ মনিরুজ্জামান কবির।

মাউশির ডিজিকে তলব ॥ আদালত অবমাননার অভিযোগে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ফাহিমা খাতুনসহ দুইজনকে তলব করেছে হাইকোর্ট। আগামী ৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার হাইকোর্টে সশরীরে হাজির হয়ে আদালত অবমাননার ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে। এক আবেদনের শুনানির পর বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি মোঃ মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি মোঃ মজিবুর রহমান মিয়ার সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে ফাহিমা খাতুনসহ সাত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে কেন আদালত অবমাননার অভিযোগে ব্যবস্থা নেয়া হবে নাÑ তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেছেন আদালত। শিক্ষা সচিব, ফাহিমা খাতুন ও হেলাল উদ্দিনসহ সাত কর্মকর্তাকে আদালত অবমাননার এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আদালতে রিটকারীদের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার এবিএম আলতাফ হোসেন। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী এআরএম কামরুজ্জামান কাকন।

নিয়োগের নির্দেশ ॥ রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়ের (নতুন জাতীয়করণ) সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের জন্য তৈরিকৃত প্যানেলভুক্ত শিক্ষকদের নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। রায়ের কপি পাওয়ার পর দুই মাসের মধ্যে নিয়োগ দিতে বলা হয়েছে। বুধবার হাইকোর্টের বিচারপতি ফারাহ মাহবুব ও বিচারপতি কাজী মোঃ ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ বিষয়ে আগে জারি করা রুলের চূড়ান্ত নিষ্পত্তি করে এ রায় দেন। আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ্যাডভোকেট সিদ্দিক উল্যাহ মিয়া। রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী এ্যাটর্নি জেনারেল নুসরাত জাহান।

যাবজ্জীবন কারাদ- ॥ রাজধানীর মোহাম্মদপুরের ব্যবসায়ী মোস্তফা হত্যা মামলায় আলোচিত ‘শীর্ষ সন্ত্রাসী’ তোফায়েল আহমেদ জোসেফের মৃত্যুদ- কমিয়ে যাবজ্জীবন দ- দিয়েছে সুপ্রীমকোর্টের আপীল বিভাগ। মামলার অপর এক আসামি কাবিল সরকারকে যাবজ্জীবন দ- থেকে খালাস দিয়েছে আদালত। জোসেফ ও কাবিলের আপীল খারিজ করে বুধবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে তিন সদস্যের আপীল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ এই রায় দেন। এদিন আদালতে আসামিপক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন ও এসএম শাহজাহান।

১৯৯৬ সালে লালমাটিয়ায় ব্যবসায়ী মোস্তফা নামে ফ্রিডম পার্টির এক নেতাকে গুলি করে হত্যা করার অভিযোগ ছিল আসামির বিরুদ্ধে। হত্যার অভিযোগে ব্যবসায়ীর স্ত্রী রশিদা বেগম মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন ওই বছরের ৮ মে। এ মামলায় ২০০৪ সালের ২৫ এপ্রিল জোসেফ ও মাসুদ জমাদারকে মৃত্যুদ- এবং তিনজনকে যাবজ্জীবন কারাদ- দিয়ে রায় ঘোষণা করে দ্রুতবিচার ট্রাইব্যুনাল।