২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মহাখালী থেকে সাতরাস্তা হয়ে তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড এলাকা পার্কিংমুক্ত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজধানীর মহাখালী বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকা থেকে শুরু করে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল এলাকা ও সাতরাস্তা মোড় হয়ে তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড এলাকাকে পার্কিংমুক্ত এলাকা হিসেবে ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আনিসুল হক। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের কোন নির্দিষ্ট এলাকাকে আনুষ্ঠানিকভাবে পার্কিং ফ্রি এরিয়া হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে তেজগাঁও সাতরাস্তা এলাকায় একটি আধুনিক ট্রাকস্ট্যান্ড নির্মাণ ও মহাখালী বাসস্ট্যান্ডকে দ্বিতল বা ৩ তলাবিশিষ্ট বাসস্ট্যান্ড নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় এমপি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বৃহস্পতিবার রাজধানীর তেজগাঁও ট্রাকস্ট্যান্ড এলাকায় ডিএনসিসি কর্তৃক আয়োজিত এক বিশাল আলোচনা সভায় তারা এসব কথা বলেন। সভায় স্থানীয় বাস ট্রাক মালিক সমিতি, পরিবহন শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ও ডিএনসিসি এলাকার নির্বাচিত কাউন্সিলররা ঢাকার যানজট কমাতে ও অবৈধ দখল রোধে কী কী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া যায়, সে সম্পর্কে মতামত প্রদান করেন।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে মেয়র বলেন, শুধু রাজনৈতিক সদিচ্ছার কারণেই এ এলাকা থেকে গত ৪০ বছরের কলঙ্কজনক ইতিহাস মুছে দেয়া সম্ভব হয়েছে। এ এলাকা থেকে অবৈধ ট্রাকস্ট্যান্ড সরাতে এর আগে অনেক সরকারের লোকজনই চেষ্টা করেছে কিন্তু তা করতে পারেনি। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী চান ঢাকা শহর হোক যানজটমুক্ত। তাই এ শহরের কোন এলাকায় যেন যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং করে রাখা না হয় সে লক্ষ্যে আমি ও আমার কাউন্সিলররা দিনরাত কাজ করে যাচ্ছি। উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, তরুণ সমাজকে সঙ্গে নিয়ে নাগরিকদের রাস্তার উপর পার্কিং করে রাখা গাড়ির কারণে সৃষ্ট যানজটের সমস্যার কথা বুঝিয়ে বলায় মোহাম্মদপুরের তরুণ ওয়ার্ড কমিশনার তারেক রাজীব আজ সফল। বর্তমানে মোহাম্মদপুরে রাস্তার উপর থেকে কার পার্কিং বন্ধ করতে সক্ষম হয়েছে। এখন আর উক্ত এলাকার রাস্তায় কোন বাস ট্রাক আমরা পড়ে থাকতে দেখি না। আজ থেকে এ তেজগাঁও মহাখালী বাসস্ট্যান্ড এলাকায়ও কোন বাস ট্রাক কাভার্ডভ্যান রাস্তার উপর পড়ে থাকবে না। তবে এ এলাকার অবৈধ ট্রাকস্ট্যান্ডটি সরিয়ে নিতে আমি একা প্রশংসার যোগ্য নই। কারণ এ এলাকার মালিক শ্রমিক ও তাদের নেতৃবৃন্দসহ সকল শ্রেণীর নাগরিকদের সহযোগিতায় কেবল তা করা সম্ভব হয়েছে। তবে এলাকাটিকে পার্কিং ফ্রি এলাকা হিসেবে ধরে রাখতে নাগরিকদের নিয়ে কাজ করতে হবে। এজন্য তিনি স্থানীয় ওয়ার্ড কমিশনার শফিউল্লাহকে সর্বোচ্চ সহযোগিতার আহ্বান জানান।

আনিসুল হক বলেন, আজ থেকে ঘোষিত পার্কিং ফ্রি এরিয়ায় কেউ গাড়ি, বাস, ট্রাক কিংবা যে কোন পরিবহন পার্কিং করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। আজ থেকে উক্ত এলাকায় নির্দিষ্ট স্থান ব্যতীত রাস্তার উপর সকাল সন্ধ্যা