২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গাড়ি চালানোর দায়ে দণ্ড পাওয়া নারী এখন সৌদি পৌর নির্বাচনের প্রার্থী

গাড়ি চালানোর অপরাধে তাকে ১০ সপ্তাহের কারাদ- দেয়া হয়েছিল। তবে সৌদি কর্তৃপক্ষ এবার তাকে নির্বাচনে অংশগ্রহণের অনুমতি দিয়েছে। বুধবার এই চমকপ্রদ পরিবর্তন ঘটে। সৌদি আরব মানবাধিকার কর্মী ও নির্বাচনের প্রার্থী লাওজাইন আল-হাথলুলের ওপর থেকে নির্বাচনী নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেয়। দেশটিতে নারীদের গাড়ি চালানো নিষেধ। গত বছর তিনি এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে সবার নজরে আসেন। এই সিদ্ধান্ত হাথলুলের নির্বাচনে অংশ নেয়ার পথ পরিষ্কার করে দিল। সৌদি আরবে শনিবার পৌর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কট্টর রক্ষণশীল এই দেশটিতে প্রথমবারের মতো নারীরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে এবং ভোট দিতে যাচ্ছে। নির্বাচনে সাত হাজার প্রার্থীর মধ্যে নয় শ’রও বেশি নারী।

নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে বুধবার রাত পর্যন্তও দুই মানবাধিকার কর্মীসহ কয়েক বিশিষ্ট নারী কর্মীর সঙ্গে হাথলুলের ওপরও নিষেধাজ্ঞা ছিল। তার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নেয়ার বিষয়ে তিনি কিছু সপ্তাহ ধরে চেষ্টা তদ্বির করেছেন। তিনি বলেন, মূলত আমি তাদের বিরক্ত করতে চেয়েছি। আমার মনে হয় এ কাজ হয়েছে। এটি একটি চমৎকার সংবাদ। সৌদি কর্তৃপক্ষ এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের কোন ব্যাখ্যা দেয়নি, যেমন এর আগেও খোলাসা করেনি কেন কয়েক প্রার্থীর ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

কিন্তু হাথলুলের সমর্থকদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনার কারণেই হয়ত সৌদি কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে অন্য দুই নারী মানবাধিকার কর্মীর ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে কিনা তা স্পষ্ট নয়। হাথলুল বলেন, যখন আমাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল, তখন আমি নিশ্চিত করতে চেয়েছি যে আমি উপেক্ষিত নই।-ওয়াশিংটন পোস্ট