১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জিরাউডের হ্যাটট্রিকে শেষ ষোলোতে আর্সেনাল

  • বেয়ার্নের জার্সিতে গার্ডিওলার শততম জয়, লেভানডোস্কির জোড়া গোল, নকআউট ;###;পর্বে মরিনহোর চেলসি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গ্রুপ পর্বের কঠিন সমীকরণ নিয়েই অলিম্পিয়াকোসের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল আর্সেনাল। আর অলিভার জিরাউড দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক করে সব সমীকরণেরই সমাধান করে দিলেন। প্রথমার্ধের ২৯ মিনিটে শুরু এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৪৯ আর ৬৭ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন গানারদের এ তারকা ফুটবলার। সেইসঙ্গে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শেষ ষোলোর টিকেটও নিশ্চিত করে আর্সেন ওয়েঙ্গারের দল।

গ্রিসের জায়ান্ট অলিম্পিয়াকোসের ঘরের মাঠে শুধু জয় নয় বরং শেষ ষোলোতে যেতে হলে বড় ব্যবধানে জয়ের বিকল্প নেই। এমন সমীকরণ নিয়েই মাঠে নামে গানাররা। আর সেই কাজটাই খুব সহজে করে দিলেন জিরাউড। ম্যাচের ২৯ মিনিটে এ্যারন রামসের সহায়তায় গোলের শুরু করেন জিরাউড। বিরতির পর ৪৯ মিনিটে আবারও ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এই ফরাসী স্ট্রাইকার। দুই রক্ষণসৈনিককে ফাঁকি দিয়ে কোস্টারিকান তারকা জো ক্যাম্পবেল বল বাড়িয়ে দেন জিরাউডকে। জোরালো শটে অলিম্পিয়াকোসের জালে বল জড়াতে মোটেও ভুল করেননি তিনি। ম্যাচের ৬৭ মিনিটে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করার আগেই আর্সেনালের শেষ ষোলোর টিকেট নিশ্চিত হয়ে যায়। তবে, তৃতীয় গোলটি করতে পেনাল্টির সুযোগকে কাজে লাগান জিরাউড। ডি-বক্সের ভেতরে স্বাগতিক ফুটবলার ওমরের হাতে বল লাগলে পেনাল্টি পায় আর্সেনাল। সে সুযোগকে নষ্ট করেননি হ্যাটট্রিক হিরো জিরাউড। ‘এফ’ গ্রুপ থেকে আগেই শেষ ষোলোর টিকেট নিশ্চিত করেছে বেয়ার্ন মিউনিখ। সর্বোচ্চ ১৫ পয়েন্ট নিয়ে পরের রাউন্ডের টিকেট কাটে পেপ গার্ডিওলার দল। বুধবার তারা ২-০ গোলে সহজেই হারায় ডায়নামো জাগরেবকে। এদিনও চমক দেখান দুর্দান্ত ফর্মে থাকা রবার্ট লেভানডোস্কি। সম্প্রতি গিনেস বুক অব রেকর্ডসে জায়গা পেয়েছেন পোল্যান্ডের ২৭ বছর বয়সী এ স্ট্রাইকার। এক ম্যাচে ভিন্ন চার রেকর্ডের মালিক হয়ে ভিন্ন ভিন্ন চারটি বিশ্বরেকর্ডের সনদ পান তিনি। ডায়নামো জাগরেবের বিপক্ষে ম্যাচের ৬১ মিনিটে প্রথম আর ৬৪ মিনিটে নিজের ও দলের দ্বিতীয় গোল করেন লেভানডোস্কি। তবে, ৮৮ মিনিটে টমাস মুলার পেনাল্টির সুযোগ নষ্ট না করলে ব্যবধানটা আরও বাড়াতে পারত বেয়ার্ন। এই ম্যাচ দিয়েই বেয়ার্নের কোচ হিসেবে শততম ম্যাচ জয়ের স্বাদ পান পেপ গার্ডিওলা।

গ্রুপের শেষ ম্যাচে অনায়াস জয় পেয়েছে চেলসিও। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা এদিন নিজেদের মাঠ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে আতিথ্য দেয় শক্তিশালী পোর্তোকে। আর পর্তুগীজ ক্লাবকে ২-০ গোলে হারিয়ে ‘জি’ গ্রুপ থেকে শীর্ষ দল হিসেবে নকআউট পর্বে উঠে জোশে মরিনহোর দল। পোর্তোর বিপক্ষে ম্যাচের শুরু থেকেই দারুণ খেলে স্বাগতিক ফুটবলাররা। আর গোলের দেখা পায় ম্যাচের ১২ মিনিটে। তবে আত্মঘাতী গোলে প্রথম এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। পোর্তোর মারকানো সিয়েরার ভুলের মাসুলে প্রথমার্ধের শুরুতেই ১-০ গোলের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় চেলসি। দ্বিতীয়ার্ধেও উজ্জীবিত ব্লুজদের দেখা যায়। প্রিমিয়ার লীগে নিষ্প্রভ থাকা চেলসিকে বিরতির পর আরও এক গোল করে এগিয়ে দেন ব্রাজিলিয়ান তারকা উইলিয়ান। আর ব্যবধান দ্বিগুণ করতে উইলিয়ানকে সহায়তা করেন ইডেন হ্যাজার্ড। বাকি সময় পোর্তোর সঙ্গে সমানে সমান লড়তে থাকে স্বাগতিকরা। তবে আর কোন গোল না হলে সহজ জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে জোশে মরিনহোর শিষ্যরা। এ জয়ের ফলে ৬ ম্যাচে ব্লুজদের সংগ্রহ বেড়ে দাঁড়ায় সর্বোচ্চ ১৩। দিনের অন্য ম্যাচে ডাইনামো কিয়েভ হারায় তেল আবিবকে। আর এই জয়েই নকআউট পর্বে চেলসির সঙ্গী হয় ডায়নামো কিয়েভ।