১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

জিরাফের পূর্বপুরুষ

  • এনামুল হক

আজকের জিরাফ প্রাণীটির এক দূর সম্পর্কের আত্মীয় ছিল এক অদ্ভুদ ধরনের প্রাণী। আকারে ওটা ছিল মুজ নামে মর্দা হরিণ বিশেষের সমান। তবে প্রাণীটির গলা ছিল এত লম্বা যে ওটা বাড়িয়ে দিয়ে গাছের পাতা খেতে পারত আবার নিচে নামিয়ে এনে ঘাস খেতে পারত। সামোথেরিয়াম মেজর নামে পরিচিত এই প্রাণীটির পুরো এক সেট ঘাড়ের হাড়ের জীবাশ্ম প্রথমবারের মতো পূর্ণাঙ্গরূপে বিশ্লেষণ করে বিজ্ঞানীরা এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন।

সামোথেরিয়াম প্রাণীটি প্রায় ৭০ লাখ বছর আগে ইউরেশিয়ার বনভূমিতে বাস করত। এদের ঘাড় ছিল প্রায় ১ মিটার লম্বা। অর্থাৎ আজকের জিরাফের ঘাড়ের দৈর্ঘ্যরে প্রায় অর্ধেক। নেংটি ইঁদুর থেকে শুরু করে সুউচ্চ জিরাফ পর্যন্ত বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠ স্তন্যপায়ী প্রাণীদের মতো এই প্রাণীটির ঘাড়েও ছিল ৭টি কশেরুকা।

জিরাফ প্রাণীটির জীবতাত্ত্বিক নাম জিরাফা ক্যামেলোপারডালিস। এই প্রজাতির মধ্যে গুটিকয়েক উপপ্রজাতিও আছে এবং সেগুলো আফ্রিকার সাহারা সন্নিহিত এলাকায় বিক্ষিপ্তভাবে ছড়িয়ে আছে। কিছু কিছু বিজ্ঞানীর দীর্ঘদিন থেকে ধারণা যে জিরাফ তার নিকট আত্মীয় ওকাপির মতো দেখতে একটা প্রাণী থেকে বিবর্তনের মধ্য দিয়ে এসেছে। ওকাপির বাস মধ্য আফ্রিকার উষ্ণম-লীয় বনাঞ্চলে।

জিরাফ, সামোথেরিয়াম মেজর ও ওকাপি এই তিন শ্রেণীর প্রাণীর হাড়গোড় বিশ্লেষণ করে গবেষকদের ঐ ধারণাই সুপ্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সামোথেরিয়ামের ঘাড়ের হাড়ের দৈর্ঘ্য জিরাফের ঘাড় আর ওকাপির ঘাড়ের হাড়ের দৈর্ঘ্যরে মাঝামাঝি পর্যায়ের শুধু এই কারণেই যে তারা অমন ধারণা করেছেন তা নয়। যেমন, ওকাপির ঘাড়ের হারে সেতুবন্ধ ও অন্যান্য বৈশিষ্ট্য যথেষ্ট লক্ষণীয়। কিন্তু জিরাফের ঘাড়ের হাড়ে সেগুলো সম্পূর্ণ অনুপস্থিত। অথচ সামোথেরিয়ামের ঘাড়ের হাড়ে সেগুলো ছোট আকারে বিদ্যমান।

সূত্র : লাইফ সায়েন্স