২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিখ্যাত ধনীদের অদ্ভুত যত শখ

সবারই শখ থাকে। তবে সবাই কি আর শখ পূরণ করতে পারেন। বাগান করা থেকে শুরু করে বিমান চালনাও মানুষের শখের তালিকায় আসতে পারে। বিশ্বের বিখ্যাত সব ধনীরা ব্যবসা নিয়ে দৌড়াদৌড়ি করলেও, তাদেরও কিন্তু শখ রয়েছে। এখানে দেখুন এমনই কিছু মানুষের অদ্ভুত কিছু শখের কথা।

১. প্রথমেই ‘বিনিয়োগ গুরু’ ওয়ারেন বাফেটের কথাই বলা যাক। এই বিলিওনিয়ার কেবল ব্যবসা নিয়েই যে ব্যস্ত থাকেন, তা নয়। তার খুব প্রিয় একটি শখ উকুলেলে বাজানো। হাওয়াইন গিটারের মতোই দেখতে এক বাদ্যযন্ত্র। সাধারণত ৪টি নাইলনের তার থাকে এতে। বাফেট এটা বাজাতে খুবই পছন্দ করেন।

২. এ্যাপলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ ওজনিকের শখটিও অদ্ভুত। মাল্টি বিলিয়ন অফিসে বসে তিনি প্রায়ই পোলো খেলেন। অদ্ভুত এই কারণে যে, পোলো ঘোড়ায় চেপে খেলা হয়। কিন্তু তিনি মাঠে এটি খেলেন সেগওয়ে দিয়ে। জার্মানিতে অনুষ্ঠিত সেগওয়ে পোলো ওয়ার্ল্ড কাপে অংশ নেন ওজনিক।

৩. ইয়াহুর সিইও মারিসা মেয়ার। সম্প্রতি এক গোপন শখের কথা প্রকাশ করেন তিনি। এক সাক্ষাতকারে জানান, বাড়িতে কাপকেক বানানোর সুযোগ একদম নষ্ট করতে চান না তিনি। এ কাজে যা যা লাগবে তার সবকিছুই মারিসার পাকের ঘরে প্রস্তুত থাকে।

৪. ২০১৪ সালে এক সাক্ষাতকারে পেপলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা পিটার থিয়েলের একমাত্র শখ ইন্টারনেটে দাবা খেলা। আরও অন্যান্য খেলা তার ভাল লাগলেও এটা নেশা হয়ে গেছে।

৫. ওরাকলে যখন ছিলেন তখন মার্ক বেনিওফ ইয়োগা করতেন। এটা তার দারুণ শখের একটি কাজ। বর্তমানে আছেন সেলসফোর্স নামে এক ক্লাউড কম্পিউটিং প্রতিষ্ঠানে। এদের প্রত্যেক অফিসে ইয়োগার কক্ষ রয়েছে এবং সেখানে কর্মীদের ইয়োগা করানো হয়।

৬. হাফিংটন পোস্টের সহ-প্রতিষ্ঠাতা আরিয়ানা হাফিংটন এক সাক্ষাতকারে তার প্রিয় শখের কথা প্রকাশ করেন। ২০১১ সালে রোলিং স্টোন প্রোফাইলে বলা হয়, হাফিংটনের একমাত্র শখ হলো ঘুমানো।

৭. টুইটারের সাবেক সিইও ডিক কস্টোলোর প্রিয় কাজ মৌমাছি পালন। এখান থেকে মধু উৎপাদন করেন তিনি। মৌমাছি পালন থেকে শুরু করে মধু উৎপাদন পর্যন্ত গোটা কাজ তার কাছে স্বপ্নের মতো লাগে।

৮. গুগলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা সের্গেই ব্রিনের শখ রোমাঞ্চকর কাজ করে বেড়ানো। ফ্লাইং ট্রাপিজি তার দারুণ শখের কাজ। মারাত্মক সাহসী হৃদয় ছাড়া একটা মানুষ কি পায়ে রশি বেঁধে হাজার ফুট নিচে লাফ দিতে পারেন?

মাঈন উদ্দিন

সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার