২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আজ জিতলেই ফাইনালে

  • বেলা ২টায় প্রথম কোয়ালিফায়ারে মাশরাফি বিন মর্তুজার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও সাকিব আল হাসানের রংপুর রাইডার্স মুখোমুখি, যে দল জিতবে সবার আগে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে

মিথুন আশরাফ ॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল টি২০) তৃতীয় আসরের শেষ চারের লড়াই শুরু হচ্ছে আজ। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বেলা ২টায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও রংপুর রাইডার্স মুখোমুখি হবে। এ ম্যাচ দিয়ে শেষ চারের গ-ি অতিক্রম করার মিশনও শুরু হয়ে যাচ্ছে। ম্যাচটি হচ্ছে, প্রথম কোয়ালিফায়ার। এটিকে প্রথম সেমিফাইনালও ধরা হচ্ছে। যে দল জিতবে সরাসরি ফাইনালে চলে যাবে। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।

হারা দলের কি হবে? সেই প্রশ্ন উঠতেই পারে। যে দল ম্যাচটিতে হারবে, তাদের আরেকটি ম্যাচে জিতে ফাইনালে ওঠার সুযোগ থাকবে। হারা দল রবিবার দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার বা দ্বিতীয় সেমিফাইনালে খেলবে।

এবার বিপিএল আয়োজন হচ্ছে ভারতের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের (আইপিএল) আদলে। ৬ দল বিপিএলে অংশ নিয়েছে। ডাবল লীগ পদ্ধতিতে খেলা হয়েছে। প্রতি দল লীগ পর্বে ১০টি করে ম্যাচ খেলেছে। লীগ পর্ব শেষে চার দল শেষ চারে খেলছে। দুটি দল লীগ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে। সেই বাদ পড়া দুই দল হচ্ছে, মুশফিকুর রহীমের সিলেট সুপার স্টারস ও তামিম ইকবালের চিটাগাং ভাইকিংস। শেষ চারে খেলার টিকেট পাওয়া চার দল হচ্ছেÑ কুমিল্লা, রংপুর, বরিশাল বুলস ও ঢাকা ডায়নামাইটস। এবার শেষ চারের লড়াইয়ে নামার পালা। শেষ চারে আইপিএলের আদলে তিন ম্যাচ হবে। প্রথম কোয়ালিফায়ার, এলিমিনেটর ও দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার। প্রথম কোয়ালিফায়ারে লীগ পর্বের পয়েন্ট তালিকায় সেরা দুইয়ে থাকা দল অংশ নেবে। এলিমিনেটরে অংশ নেবে পয়েন্ট তালিকার তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে থাকা দল। দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে লড়াই করবে প্রথম কোয়ালিফায়ারের হারা দল ও এলিমিনেটর ম্যাচের জেতা দল। প্রথম কোয়ালিফায়ার ও দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারের জেতা দল দুটি ১৫ ডিসেম্বর ফাইনালে খেলবে।

আজ প্রথম কোয়ালিফায়ার ও এলিমিনেটর ম্যাচ হবে। লীগ পর্বে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে আছে কুমিল্লা। সমান পয়েন্ট নিয়ে রানরেটে দ্বিতীয় স্থানে থাকে রংপুর। ১৪ পয়েন্ট নিয়ে রানরেটে বরিশাল তৃতীয় স্থানে ও ৮ পয়েন্ট নিয়ে ঢাকা চতুর্থ স্থানে থাকে। নিয়ম হচ্ছে এমন, পয়েন্ট তালিকায় যে দুটি দল সেরা দুইয়ে থাকবে, প্রথম কোয়ালিফায়ারে খেলবে। তারা ফাইনালে ওঠার ক্ষেত্রে একাধিক সুযোগ পাবে। প্রথম কোয়ালিফায়ারে যে দল জিতবে তারা ফাইনালে উঠে যাবে। হারা দল দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচ খেলে জিতে শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলার সুযোগ পাবে। আজ দিনের প্রথম ম্যাচেই ফাইনালে ওঠার সেই প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচটি হবে। ম্যাচে পয়েন্ট তালিকার দুই সেরা দল কুমিল্লা ও রংপুর মুখোমুখি হবে। লীগ পর্বে এ দুই দল পরস্পরের বিপক্ষে দুটি ম্যাচ খেলেছে। ২২ নবেম্বর টুর্নামেন্ট শুরু হওয়ার পর কুমিল্লা-রংপুর প্রথম মুখোমুখি হয় ২৭ নবেম্বর, মিরপুরে। ম্যাচটিতে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে জিতে কুমিল্লা। এবারের টুর্নামেন্টে কুমিল্লার এ জয়টি এখনও উইকেটের দিক দিয়ে দ্বিতীয় বড় জয় হয়ে আছে। তবে এ ম্যাচে ছিলেন না রংপুরের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। নিজেদের আগের ম্যাচে আম্পায়ারের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করায় এক ম্যাচ নিষিদ্ধ ছিলেন সাকিব। মিসবাহ উল হকের নেতৃত্বে খেলে রংপুর হারে। আবার দুই দল ৮ ডিসেম্বর ফিরতি লেগে পরস্পরের মুখোমুখি হয়। এবার সাকিব খেলেন। পার্থক্যটাও বুঝিয়ে দেন। প্রথম লেগের ম্যাচের চেয়েও শক্তিশালী দল নিয়ে নামে কুমিল্লা। কিন্তু সাকিবের অধিনায়কত্বে এবার জিতে রংপুর। ২১ রানে জয় তুলে নেয়। এ ম্যাচটিতে আবার ইনজুরিতে পড়া মাশরাফি বল করেননি।

আজ দুই দলের মধ্যে ফাইনালে ওঠার লড়াই হবে। এ লড়াইয়ে এখন কোন দল জিতে তাই দেখার বিষয়। তবে রংপুরের অলরাউন্ডার ওয়েস্ট ইন্ডিজের ড্যারেন সামি জয় পাওয়ায় দারুণ আত্মবিশ্বাসী। আজই জিতে ফাইনালে উঠতে চান। সামি বলেছেন, ‘আপনারা জানেন যে, টুর্নামেন্টটি আমরা দারুণভাবে শুরু করেছিলাম। এখন আমাদের সামনে সুযোগ এসেছে সবার আগে ফাইনালে যাওয়ার। আমার মনে হয়, রংপুর এখনও তাদের সেরা ক্রিকেটটা খেলেনি। আমরা আমাদের সামর্থ্যরে পুরোটা স্পর্শ করতে চাই। সেটা করা গেলে আমার মনে হয় না ফাইনালে যেতে কোন সমস্যা হবে। কালকে (আজ) আমাদের সামনে সেটা করে দেখানোর সুযোগ এসে গেছে। ফাইনালে যাওয়ার জন্য সেটাই করব আমরা। আমাদের পূর্ণ মনোযোগ নিজেদের সামর্থ্য।ে’

সঙ্গে যোগ করেন, ‘হেরে গেলে কোন সুযোগ থাকবে, আমরা সেটা ভাবতে চাই না। আমরা জয়ের কথা চিন্তা করছি। নিজেদের দেখছি ফাইনালে। প্রতিপক্ষকে সব সময়ই সম্মান দিতে হবে। তবে আমরা কিন্তু তাদের বিপক্ষে খেলা শেষ ম্যাচটি জিতেছি। আমাদের খুব ভালভাবেই জানা আছে যে, কী করতে হবে।’ কুমিল্লা অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা অবশ্য নিজেদের ভাগ্যবান মনে করছেন। এখন ফাইনালে খেলা নিশ্চিত করে গেইনার হতে চান। বলেছেন, ‘এখানে আসতে পারব সেটা শুরুতে ভাবতেও পারিনি। এখানে আসতে পারবে তারাই, যারা শুরু থেকেই ভাল খেলছে। তারাই ভাল দল। এখানে কোন পছন্দ থাকে না। ‘ডু অর ডাই’ ম্যাচ। এখানে যারা নার্ভ ঠা-া রেখে খেলার চেষ্টা করবে, তারাই গেইনার হবে। সাকিবদের অনেক খেলোয়াড় আছে। এভাবে চিন্তা করলে নিজেদের থেকে আমরা সরে আসব।’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘ইনজুরির অবস্থা খুব কঠিন। এ মুহূর্তে প্রায় পাঁচ-ছয় ক্রিকেটার ইনজুরিতে আছে। গুরুত্বপূর্ণ ক্রিকেটাররাই ইনজুরিতে। ফিজিওর ওপর খুব চাপ পড়ে যাচ্ছে ক্রিকেটারদের ফিট করতে। কুলাসেকারা বিশ্রামে ছিল। পুরোপুরি ফিট না। অলোককে (কাপালী) কোনভাবে নামিয়ে দিয়েছি। আমি বোলিং করতে পারছি না। (কামরুল ইসলাম) রাব্বিও আছে। (শোয়েব) মালিকও ইনজুরিতে।’

ইনজুরিগ্রস্ত দল হয়ে পড়েছে কুমিল্লা। আবার বৃহস্পতিবারই লীগ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলেছে। বিশ্রাম বলতে একদিন মিলেছে। সেই তুলনায় রংপুরের ক্রিকেটাররা ৮ ডিসেম্বর কুমিল্লার বিপক্ষেই সর্বশেষ ম্যাচ খেলেছে। জিতেছেও। সেই ম্যাচটির পর তিনদিন বিশ্রাম পেয়েছেন সাকিবরা। এ বিশ্রামই মানসিকভাবে চাঙ্গা করে তুলছে রংপুর ক্রিকেটারদের। এ বিষয়টিই আজ প্রথম কোয়ালিফায়ারে কুমিল্লার বিপক্ষে ম্যাচে রংপুরকে এগিয়ে রাখছে। জিতলেই ফাইনালে ওঠার ম্যাচে এখন দেখা যাক, রংপুর না কুমিল্লা জিতে।