২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সব সামর্থ্য কাজে লাগানোর প্রত্যয় সামির

সব সামর্থ্য কাজে লাগানোর প্রত্যয় সামির
  • সুযোগ এসেছে সবার আগে ফাইনালে যাওয়ার ॥ ড্যারেন সামি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কেউ কারও চেয়ে পিছিয়ে নেই। লীগ পর্বে উভয় দলই ৭টি করে ম্যাচ জিতেছে এবং পরস্পরের মোকাবেলায়ও ১-১ সমতা। এবার লড়াইটা ফাইনালে ওঠার। চলতি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ (বিপিএল) টি২০ আসরের শীর্ষ দুই দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স আর রংপুর রাইডার্সের মধ্যে কোয়ালিফায়ার ম্যাচ। জিতলেই সরাসরি ফাইনালে ওঠার সুযোগ। আর এ সুযোগটা কোনভাবেই হারাতে চায় না রাইডার্স। শুক্রবার সকালে দীর্ঘক্ষণ তাই অনুশীলন করেছে দলটি। রাইডার্সের ওয়েস্ট ইন্ডিজ অলরাউন্ডার ড্যারেন সামি দাবি করেছেন এখন পর্যন্ত নিজেদের সেরা খেলাটা দেখায়নি তার দল। কিন্তু ফাইনালে ওঠার জন্য সেই সেরাটা প্রদর্শন করা হবে এমন প্রত্যয়ই ব্যক্ত করেছেন তিনি। অনুশীলন শেষে দুপুরে মিরপুরের জাতীয় একাডেমি মাঠে এসব কথা বলেন এ ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার।

সবার আগে ফাইনাল নিশ্চিত করার মোক্ষম সুযোগ। লীগ পর্বে দুর্দান্ত খেলার কারণেই সুযোগটা এসেছে। শীর্ষ দুই দলেরই পয়েন্ট ১০। তবে নেট রানরেটে এগিয়ে থাকায় এক নম্বর ভিক্টোরিয়ান্স। প্রথম লড়াইয়ে রংপুরকে হারিয়ে দিয়েছিল মাশরাফি বিন মর্তুজার দল ভিক্টোরিয়ান্স। কিন্তু ফিরতি ম্যাচে প্রতিশোধ নিয়ে নেয় সাকিব আল হাসানের রাইডার্স। তাই কেউ কারও চেয়ে পিছিয়ে নেই। এবার তৃতীয়বারের মতো লড়াইয়ে নামাটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ জিততে পারলেই আর কোন ঝুঁকি বা চিন্তা থাকবে না, সরাসরি সবার আগে ফাইনালে। এ বিষয়ে সামি বলেন, ‘আপনারা জানেন যে, টুর্নামেন্টটি আমরা দারুণভাবে শুরু করেছিলাম। এখন আমাদের সামনে সুযোগ এসেছে সবার আগে ফাইনালে যাওয়ার। আমার মনে হয়, রংপুর এখনও তাদের সেরা ক্রিকেটটা খেলেনি। কালকে আমাদের সামনে সেটা করে দেখানোর সুযোগ এসে গেছে। ফাইনালে যাওয়ার জন্য সেটাই করব আমরা।’ ভিক্টোরিয়ান্সকে ১০ ম্যাচে দেখার সুযোগ হয়েছে। এমনকি তাদের সঙ্গে দুইবার খেলারও অভিজ্ঞতা হয়েছে। প্রতিপক্ষের শক্তিমত্তা নিয়ে সামি বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা অবশ্যই আলোচনা করব। তবে আমাদের পূর্ণ মনোযোগ নিজেদের সামর্থ্য।ে একটা ভাল টি২০ দল হিসেবে আমরা কী করার ক্ষমতা রাখি, সেটা গুরুত্বপূর্ণ। মৌলিক বিষয়গুলোতে আমাদের ভাল করতে হবে। স্পিনাররা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। ব্যাটসম্যানদের অবশ্য আরও ভাল করা দরকার। আমি আগেই বললাম যে, আমরা যে ক্রিকেটটা খেলতে চাই, সেটা এখনও পারিনি। আগামীকাল (আজ) আমরা আমাদের সামর্থ্যরে পুরোটা স্পর্শ করতে চাই। সেটা করা গেলে আমার মনে হয় না ফাইনালে যেতে সমস্যা হবে।’

এবার বিপিএলে উইকেট নিয়ে অনেক কথা হয়েছে অস্বাভাবিক বৈচিত্র্য থাকার কারণে। কখনও ভাল রান হয়েছে, আবার কখনও সেভাবে রান উঠেনি। এ বিষয়ে সামি বলেন, ‘বেশির ভাগ ম্যাচেই টস জেতা দল বোলিং করেছে এবং জিতে গেছে। তবে টসের ওপর তো আর কারও নিয়ন্ত্রণ থাকে না। আগে যেটাই করতে হোক না কেন, সেখানেই ভাল করতে হবে। নির্দিষ্ট দিনে যারা ভাল খেলবে, তারাই জিতবে।’ পুরো আসরেই রংপুরের টপঅর্ডাররা ব্যর্থতা দেখিয়েছেন। বিশেষ করে দুই ওপেনার সৌম্য সরকার ও লেন্ডল সিমন্স একেবারেই জ্বলে উঠতে পারেননি। এ বিষয়ে সামি বলেন, ‘এটা এমন একটা জায়গা, যেখানে আমাদের আরও উন্নতি করতে হবে। সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যানের (টুর্নামেন্টের) মধ্যে আমাদের কোন ব্যাটসম্যান নেই। তবে ভাল দিক হলো, আমরা দলগতভাবে পারফর্ম করেছি। কুমিল্লার বিপক্ষে জিততে হলে আগামীকাল (আজ) আবার সেটাই করতে হবে আমাদের।’

লীগ পর্ব শেষে সেরা দুই দল হওয়ার একটি বাড়তি সুবিধা আছে। কারণ কোয়ালিফায়ার ম্যাচ হেরে গেলেও এলিমিনেটর ম্যাচ বিজয়ীর সঙ্গে খেলার সুযোগ। দ্বিতীয় সুযোগ ফাইনালে ওঠার। এ বিষয়ে সামি বলেন, ‘হেরে গেলে কোন সুযোগ থাকবে, আমরা সেটা ভাবতে চাই না। আমরা জয়ের কথা চিন্তা করছি। নিজেদের আমরা ফাইনালে দেখতে পাচ্ছি। কিন্তু তারা নিঃসন্দেহে ভাল দল। খুব ভাল খেলছে। প্রতিপক্ষকে সব সময়ই সম্মান দিতে হবে। তবে আমরা কিন্তু তাদের বিপক্ষে খেলা শেষ ম্যাচটি জিতেছি। আমাদের খুব ভালভাবেই জানা আছে যে, কী করতে হবে। আমি আগেই বলেছি, আমরা যদি মৌলিক জায়গাগুলোতে ঠিকঠাক থাকি, তবে ভাল কিছ্ইু হবে।’ তিনদিন আগে সর্বশেষ ম্যাচ খেলেছে রংপুর এবং বিস্ময়করভাবে সেই ম্যাচটা ছিল কুমিল্লারই বিপক্ষে। রংপুরের জন্য বাড়তি সুবিধার বিষয় হচ্ছে টানা তিনদিনের বিশ্রাম পেয়েছে দলটির ক্রিকেটাররা। সামি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমাদের নিয়ন্ত্রণ ছিল না। সময়সূচী করা ছিল এভাবে। আমরা এখানে টানা তিন ম্যাচ খেলেছি। সবার আগে লীগ পর্বের ম্যাচ শেষ হয়েছে আমাদের। দুই একদিন বেশি বিশ্রাম পাওয়া সব সময় ভাল বিষয়। আমরা সেটা পেয়েছি।’

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া