২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গত সপ্তাহে ব্লক মার্কেটে ৪৬ কোটি টাকার লেনদেন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বৃহস্পতিবার সমাপ্ত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে ২১ কোম্পানির ও একটি মিউচুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। যার মোট বাজার দর ৪৬ কোটি ৬২ লাখ ৫৫ হাজার টাকা। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য পাওয়া যায়।

সূত্র মতে, গত সপ্তাহে ডিএসইর ব্লক মার্কেটে লেনদেন হওয়া কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড গুলো হল - বার্জার পেইন্টস, কেডিএস, ব্র্যাক ব্যাংক, গ্রামীণ ফোন, অলিম্পিক, রেনাটা, ইস্টর্ন হাউজিং, মতিন স্পিনিং, মবিল যমুনা, নিটল ইন্স্যুরেন্স, শাশা ডেনিমস, স্কয়ার ফার্মা, বিএসআরএম স্টীল, সিটি ব্যাংক, গোল্ডেন সন, জেএমআই সিরিঞ্জ, খুলনা পাওয়ার, এমআই সিমেন্ট, আরএকে সিরামিক, সাইফ পাওয়ারটেক, ইউনাইটেড পাওয়ার এবং এইমস ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড।

আলোচিত সময়ে এসব কোম্পানির ৪১ লাখ ৭২ হাজার ২১৯টি শেয়ার ৫৫ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ৪৬ কোটি ৬২ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

গত সপ্তাহে ব্লক মার্কেটে বার্জার পেইন্টসের ১৯ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩ কোটি ৬৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা। কেডিএসের ১৩ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১১ লাখ ৬৭ টাকা। ব্র্যাক ব্যাংকের ৪ লাখ ৮৬টি শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ৮৭ লাখ ৬৯ টাকা। গ্রামীণ ফোনের ২ লাখ ৩১ হাজার ৫০টি শেয়ার ৫ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ কোটি ৮৩ লাখ ১৪ হাজার টাকা। অলিম্পিকের ৬ লাখ শেয়ার ১৫ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১৫ কোটি ১২ লাখ টাকা। রেনাটার ৪৮ হাজার ৪ শত শেয়ার ৭ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ কোটি ৯৫ লাখ ৩২ টাকা। ইস্টার্ন হাউজিংয়ের ৬৫ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৪ লাখ ৫৫ হাজার টাকা। মতিন স্পিনিংয়ের ১ লাখ ৩০ হাজার ৩০৩টি শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৪২ লাখ ৬৬ হাজার টাকা। মবিল যমুনার ৮৬ হাজার ৮৩০টি শেয়ার ৩ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৮৮ লাখ ৯ হাজার টাকা। নিটল ইন্স্যুরেন্সের ৯৮ হাজার ৪ শত শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ২৪ লাখ ৬০ হাজার টাকা। শাশা ডেনিমসের ২ লাখ ৭০ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১ কোটি ২০ লাখ ১৫ হাজার টাকা। স্কয়ার ফার্মার ২ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ কোটি ১০ লাখ ২০ হাজার টাকা। বিএসআরএম স্টীলের ১০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১০ লাখ ৩৫ হাজার টাকা। সিটি ব্যাংকের ২ লাখ ৪০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৪৮ লাখ টাকা। গোল্ডেন সনের ১ লাখ শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য দাঁড়ায় ২৯ লাখ ৭০ হাজার টাকা। জেএমআই সিরিঞ্জের ৩৫ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়। যার বাজার মূল্য ৫৮ লাখ ৮০ হাজার টাকা। খুলনা পাওয়ারের ২০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এমআই সিমেন্টের ৫ হাজার ১৫০টি শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৫ লাখ ১৫ হাজার টাকা। আরএকে সিরামিকের ২০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ১৪ লাখ ৪০ হাজার টাকা। সাইফ পাওয়ারটেকের ৫০ হাজার শেয়ার ১ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৩৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ইউনাইটেড পাওয়ারের ৩০ হাজার শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার মূল্য ৪৫ লাখ ৮৮ হাজার টাকা। এবং এইমস ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের ১৫ লাখ শেয়ার ২ বার লেনদেন হয়, যার বাজার।