২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সশস্ত্র দলের সঙ্গে কথা নয়

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ সশস্ত্র দলগুলোর সঙ্গে কথা বলবেন না বলে শুক্রবার জানিয়ে দিয়েছেন। তার এ মন্তব্য আগামী মাসের প্রত্যাশিত শান্তি আলোচনা বাতিল হতে পারে। রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র এ আলোচনা অনুষ্ঠানের আশা করছে। খবর ইয়াহু নিউজের।

ওয়াশিংটন আগামী মাসে জাতিসংঘের উদ্যোগে সরকারের সঙ্গে আলোচনার জন্য এক যৌথ দল পাঠাতে বৃহস্পতিবার এক চুক্তিতে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে মধ্যস্থতা করেছিল। সিরিয়ার সরকার বিরোধী দল এবং লড়াইরত এক ডজনেরও বেশি বিদ্রোহী দলের ১০০-এরও বেশি সদস্য ওই মতৈক্যে পৌঁছান। বিদ্রোহী দলগুলোর মধ্যে ইসলামপন্থী থেকে শুরু করে পশ্চিমা সমর্থনপুষ্ট ফ্রি সিরিয়ান আর্মিও (এফএসএ) ছিল, কিন্তু ইসলামিক স্টেটকে (আইএস) অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। অন্তত কিছুটা হলেও অভিন্ন শত্রু আইএসকে পরাজিত করার লক্ষ্যকে সামনে রেখে ওই উদ্যোগ নেয়া হয়। আইএস সিরিয়া ও ইরাকের বিরাট এলাকা দখল করে রয়েছে এবং পশ্চিমা বিশ্ব ও রাশিয়ার ওপর হামলা চালাতে নির্দেশ বা উৎসাহ দিচ্ছে। কিন্তু স্প্যানিশ বার্তা সংস্থা ইএফইএর সঙ্গে এক সাক্ষাতকারে আসাদ বলেন, তিনি কোন সশস্ত্র দলের সঙ্গে রাজনৈতিক আলোচনা করবেন না। তিনি আলোচনায় সন্ত্রাসী দলগুলোকে যোগ দেয়াতে চাওয়ার দায়ে ওয়াশিংটন ও এর মিত্র সৌদি আরবকে অভিযুক্ত করেন। তিনি বলেন, সশস্ত্র দলগুলোর সঙ্গে সিরিয়ার যোগাযোগ স্থাপনের একটি মাত্র কারণই রয়েছে এবং তা হলো এমন এক পরিস্থিতির সৃষ্টি করা, যেখানে তারা তাদের অস্ত্রশস্ত্র সমর্পণ করবে এবং হয় সরকারে যোগ দেবে নয়ত তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাবে। সিরীয় জঙ্গীদের সম্পর্কে কেবল এ ব্যবস্থাই নেয়া যেতে পারে। সন্ত্রাসী দল কারা সেটি নির্ধারণ না করে নিউইয়র্ক বা অন্য কোথাও বৈঠকে মিলিত হওয়ার কোন যুক্তি নেই। আমরা সিরীয়দের কাছে কোন মেশিনগানধারী যে কোন ব্যক্তিই এক সন্ত্রাসী।

আসাদবিরোধী দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে রাশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সঙ্গে আলোচনার প্রস্তুতি নিতে সোমবার প্যারিসে বৈঠকে মিলিত হওয়ার কথা। তারা শান্তি আলোচনার জন্য আসাদবিরোধী পক্ষের প্রতিনিধি দল গঠনের দিকেই সুনির্দিষ্টভাবে দৃষ্টি দেবেন। আসাদের মন্তব্য প্রকাশিত হওয়ার আগে ওয়াশিংটন জানায়, পররাষ্ট্রমন্ত্র্র্রী জন কেরি রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিন ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের সঙ্গে আলোচনার জন্য মঙ্গলবার মস্কো সফর করবেন। দু’বছর আগে সুইজারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এক শান্তি আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার অভিজ্ঞতা থেকে সর্বশেষ চেষ্টা সফল হওয়ার প্রত্যাশা তেমন একটা শুরু হয় না। বিদ্রোহী দলগুলো রিয়াদে তাদের দু’দিনের সম্মেলন শেষে এক বিবৃতিতে বলেছে, আসাদকে অন্তর্বর্তী সময়ের শুরুতে ক্ষমতা ছাড়তে হবে।

তারা সব সম্প্রদায়ের মানুষকে নিয়ে এক গণতান্ত্রিক সভ্য রাষ্ট্র গঠনের আহ্বান জানায়। আসাদের পৃষ্ঠপোষক রাশিয়া ও ইরান ওই দাবি প্রত্যাখ্যান করে। বিরোধী পক্ষের আলোচক দল বাছাইয়ের জন্য ৩৪ সদস্যকে নিয়ে এক সেক্রেটারিয়েট নিযুক্ত করা হয়। তাদের মধ্যে হয়েছেন লড়াইরত বিদ্রোহী দলগুলো ১১ প্রতিনিধি, প্রবাসী রাজনৈতিক বিরোধী পক্ষের নয় সদস্য, সিরিয়ার অভ্যন্তরীণ বিরোধী পক্ষের ছয় জন এবং আট স্বতন্ত্র সদস্য। ফ্রি সিরিয়ান আর্মির (এফএসএ) কয়েকটি গ্রুপের পাশাপাশি শক্তিশালী ইসলামপন্থী বিদ্রোহী দল আহরাব আল শামও ওই সেক্রেটারিয়েটে প্রতিনিধিত্ব পেয়েছে। ওই সব গ্রুপ আসাদবিরোধী, রাষ্ট্রসমূহ, যেমন সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে সামরিক সাহায্য পেয়েছে।