২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টাঙ্গাইলে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন ২১ জন

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল, ১২ ডিসেম্বর ॥ ধনবাড়ী পৌরসভায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপির দুই মেয়র প্রার্থীসহ টাঙ্গাইলের বিভিন্ন পৌরসভার ১২ জন কাউন্সিলর প্রার্থী এবং সাতজন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী আপীল করে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। জেলা প্রশাসক ও আপিল কর্তৃপক্ষ মাহবুব হোসেন শনিবার এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। এর আগে গত শুক্রবার বিকেলে আপীলকারীদের শুনানি গ্রহণ করা হয়।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, ধনবাড়ী পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র খন্দকার মঞ্জুরুল ইসলাম এবং বিএনপি মেয়র প্রার্থী এসএমএ ছোবাহান তাদের মনোনয়নপত্রে আয়কর শনাক্তকরণ নম্বর দাখিল না করায় মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছিল।

কাউন্সিলর পদে ধনবাড়ী পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের প্রার্থী জাকারিয়া বকল, ৪নং ওয়ার্ডের মীর আব্দুর রাজ্জাক, ৫নং ওয়ার্ডের ফজলুল হক, ৮নং ওয়ার্ডের আনোয়ার হোসেন ও ৯নং ওয়ার্ডের রফিকুল ইসলাম প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। টাঙ্গাইল পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোজাফর আলী ও শাহজাহান মিয়া বাবু, ৪নং ওয়ার্ডের নুরুল আলম, ১১নং ওয়ার্ডের মেহেদী হাসান আলীম ও ১৪নং ওয়ার্ডের সুজাউল করিম মানিক প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। এছাড়া মধুপুর পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শহিদুল ইসলাম, গোপালপুর পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুল খালেক ম-ল প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে যে সাতজন প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন তারা হলেনÑ মধুপুর পৌরসভার সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডের ঊষা আর্য্য, ৩নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নুর জাহান বেগম, ধনবাড়ী পৌরসভার সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডের লাইলি বেগম ও ২নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের রহিমা বেগম। এছাড়াও ভূঞাপুর পৌরসভার সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডের কহিনুর বেগম, কালিহাতী পৌরসভার ৩নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের বর্ণালী দেবনাথ ও সখীপুর পৌরসভার ২নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের রহিমা আক্তার প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন।

ঠাকুরগাঁওয়ে ১৪ প্রার্থীকে

নিজস্ব সংবাদদাতা, ঠাকুরগাঁও, ১২ ডিসেম্বর ॥ কাগজপত্র যাচাই-বাছাই শেষে ৫ ডিসেম্বর যে ১৪ কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল ঘোষণা করা হয়েছিল তার বৈধতা দেয়া হয়েছে। মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ করে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবর আপীল করলে শুনানি শেষে তাদের প্রার্থিতা ফিরিয়ে দেয়া হয়।

জেলা রির্টানিং অফিসার জেলা প্রশাসক মুকেশ চন্দ্র বিশ^াস জানান, কাউন্সিলর পদে ১৩ এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে একজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছিল। তাদের সময় বেঁধে দেয়া হয়েছিল কাগজপত্র ঠিক করে জমা দেয়ার জন্য। তারা তাদের শিক্ষা সনদপত্র জমা দিয়ে আপীল করলে শুনানি শেষে তাদের আবার প্রার্থিতা দেয়া হয়েছে। ১৪ প্রার্থী প্রতীক পাবেন এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন। কাউন্সিলর পদে যারা মনোনয়ন প্রার্থিতা পিরে পেলেন তারা হলেন ২নং ওয়ার্ডে নূরুল ইসলাম, ৩নং ওয়ার্ডের ওয়ালিউর রহমান, ৫নং ওয়ার্ডের জাহিদুল ইসলাম, আজিজুল হক, চৌধুরী সারোয়ার রশিদ উজ্জ্বল, কামাল হোসেন, ৬নং ওয়ার্ডের ফররুখ আহম্মেদ, শেখ দবির উদ্দিন, ৮নং ওয়ার্ডের একে এম সফিউল এনাম পারভেজ, ৯নং ওয়ার্ডের বাদশা আলম, প্রদীপ শংকর চক্রবর্তী, তরিকুল ইসলাম, ১০নং ওয়ার্ডের আব্দুর রহিম। এছাড়া সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে দ্রৌপদী দেবী আগরওয়ালা।

চাঁদপুরে তিন মেয়র প্রার্থী বহাল

নিজস্ব সংবাদদাতা চাঁদপুর থেকে জানান, হলফনামায় তথ্য গোপন করার অভিযোগে চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ, কচুয়া ও ফরিদগঞ্জ পৌরসভার ৩ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিলের দাবিতে করা আবেদন খারিজ হয়েছে। শনিবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আপীল শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। এতে তিন প্রার্থীর মেয়র পদে প্রার্থিতা বহাল রয়েছে। তাদের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী তিন মেয়র প্রার্থী গত বুধবার পৃথকভাবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এসব আবেদন করে। বহাল প্রার্থীরা হলেন, হাজীগঞ্জ পৌরসভায় বিএনপির মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র আবদুল মান্নান খান (বাচ্চু), কচুয়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী নাজমুল আলম স্বপন ও ফরিদগঞ্জ পৌরসভায় মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মঞ্জিল হোসেন।