১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যুক্তরাষ্ট্রে শিশুদেরও এইচআইভি পরীক্ষা জরুরি

অনলাইন ডেস্ক ॥ যুক্তরাষ্ট্রের শিশুদের মধ্যে ক্রমেই বাড়ছে স্থূলতা, জুভেনাইল ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশনের মতো রোগও। ভবিষ্যত প্রজন্মকে এসব রোগের হাত থেকে রক্ষার জন্যেই শিশু অবস্থা থেকে কোলেস্টেরল, এইচআইভি এবং ডিপ্রেশনের স্ক্রিনিং করা হবে বলে জানিয়েছে দ্য আমেরিকান অ্যাকাডেমি অফ পিডিয়াট্রিক্স।

পিডিয়াট্রিক জানায়, শুধুমাত্র রোগাক্রান্ত বা উচ্চ ঝুঁকিতে আছে এমন শিশু নয়, এই পরীক্ষার আওতায় আনা হবে অন্যান্য সুস্থদেরও। কোনও শিশুর হৃদরোগের সমস্যা আছে কি না তা সুনিশ্চিত করতে সদ্যজাতকে হাসপাতাল থেকে ছাড়ার আগে সব রকম পরীক্ষা করিয়ে নিতে হবে।

মার্কিন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব মেন্টাল হেলথের তথ্য অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে ১২ থেকে এক বছর বয়সের শিশুদের মধ্যে ১১ শতাংশই মানসিক অবসাদে ভুগছে। আগে থেকেই তাদের নজরে রাখলে এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলে গুরুতর অবসাদের থেকে নবীন প্রজন্মকে বাঁচানো যাবে বলেই মত তাদের।

দ্য আমেরিকান অ্যাকাডেমি অফ পিডিয়াট্রিক্স মনে করে, ১৬ থেকে ১৮ বছর বয়সী ছেলে-মেয়েদের এইচআইভি পরীক্ষা করানো বাধ্যতামূলক করা উচিত। এর ফলে ক্রমেই বেড়ে চলা এইচআইভি সংক্রামন হার নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে।