২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আওয়ামী লীগের সব বিদ্রোহী প্রার্থীকে সাসপেন্ড

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচনী মাঠে থাকা দলের বিদ্রোহী প্রার্থীদের দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে আওয়ামী লীগ। দলের আগামী কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সভায় আলোচনা করে তাদের দল থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হবে।

তবে ঠিক কতজনকে দল থেকে বহিষ্কার করা হলো- এ ব্যাপারে কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা লুকোচুরি খেললেও নানা সূত্র থেকেই জানা গেছে, এর সংখ্যা প্রায় ৬৯ জন। রবিবার রাত পর্যন্ত মোট ১০ বিদ্রোহী প্রার্থীর বরাবরে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কারের চিঠি পাঠানো হয়েছে কেন্দ্র থেকে।

রবিবার সন্ধ্যায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে যারা এখনও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেননি তাদের দল থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হলো। দলের আগামী কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে তাদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে।

তিনি বলেন, দলীয় মনোনয়ন না দেয়ার পরও যারা পৌরসভা নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন তাদের আমরা দলের পক্ষ থেকে বুঝিয়েছি। কিন্তু এখনও যারা দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে নির্বাচনে অংশগ্রহণের ব্যাপারে অনড় রয়েছেন, তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। এমনকি দল থেকে যাদের মনোনয়ন দেয়া হয়নি এমন প্রার্থীদের পক্ষে যারা কাজ করবে তাদের বিরুদ্ধেও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্তের আগে পৌর নির্বাচনে কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা নিজেদের মধ্যে কিছু সময় বৈঠক করেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, আবু সাঈদ আলম মাহমুদ স্বপন, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন প্রমুখ।

ঠিক কতজন বিদ্রোহী প্রার্থীকে দল থেকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে সাংবাদিক সম্মেলনে সে ব্যাপারে মুখ খোলেননি মাহবুবউল আলম হানিফ। তবে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সাময়িক বহিষ্কারের তালিকা রবিবার এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৬৯ জন বিদ্রোহী প্রার্থীর নাম রয়েছে। সারাদেশ থেকে এখনও তাদের কাছে বিদ্রোহীদের চূড়ান্ত তালিকা আসেনি। সূত্রগুলো আরও জানায়, প্রাথমিকভাবে যারা শেষদিনে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার না করে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মাঠে রয়েছে, তাদের সকলকেই দল থেকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়েছে।