২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিজয়ের উৎসবে মুখরিত রাজধানীর সংস্কৃতি ভুবন

  • সংস্কৃতি সংবাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চলছে বিজয়ের মাস ডিসেম্বর। রাজধানীজুড়ে চলছে বাঙালীর বীরত্বগাথা উদ্যাপনের নানা আয়োজন। সেই সূত্রে শহরের নানা প্রান্তে ছড়িয়েছে উৎসবের আমেজ। চোখে পড়ছে বিজয় দিবসকেন্দ্রিক নানা আয়োজন। সব মিলিয়ে যেন বিজয় উৎসবের রংমাখা আনুষ্ঠানিকতায় বর্ণময় হয়ে ঢাকার সংস্কৃতি ভুবন। গানের সুরে, কবিতার ছন্দে, নাচের মুদ্রায় কিংবা নাটকের সংলাপে যেন মিলেমিশে একাকার হচ্ছে বীর বাঙালীর বিজয়ের আনন্দ। ১০ ডিসেম্বর থেকে সেগুনবাগিচার

মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর প্রাঙ্গণে শুরু হয় সপ্তাহব্যাপী মানবাধিকার থেকে বিজয় দিবস শীর্ষক অনুষ্ঠানমালা। রবিবার থেকে শুরু হলো বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেীি আয়োজিত মহান বিজয় দিবস ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে চার দিনের অনুষ্ঠানমালা। এছাড়াও এদিন বিকেলে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শুরু হলো সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত বিজয় উৎসব। আটদিনব্যাপী এ উৎসবের সেøাগান ‘যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পথে জঙ্গীবাদকে দাঁড়াও রুখে।’ একসঙ্গে রাজধানীর ১১টি মঞ্চে ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে জোটের এ বিজয় উৎসব।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি রবিবার থেকে ষোলোই ডিসেম্বর পর্যন্ত চার দিনের উৎসবের আয়োজন করেছে। বহুমাত্রিক এ আয়োজনে রয়েছে আলোচনা, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, এ্যাক্রোবেটিক প্রদর্শনী, নাটক, আবৃত্তি, সঙ্গীত, নৃত্যানুষ্ঠান ও চিত্রকর্ম প্রদর্শনী। রবিবার বিকেলে এ বিজয় উৎসবের সূচনা হয়। বিকেলে এই উৎসবের শুরু হয় একাডেমির নন্দন মঞ্চে। পরিবেশনা পর্বের প্রথমেই ছিল শিল্পকলা একাডেমি এ্যাক্রোবেটিক দলের পরিবেশনা। সন্ধ্যায় বেলুন উড়িয়ে উৎসব উ™ে^াধন করেন বীরমাতা ভাস্কর ফেরদৌসী প্রিয়ভাষিণী। একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে আলোচনায় উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতায় অংশ নেন একাডেমির সচিব জাহাঙ্গীর হোসেন চৌধুরী, নাট্যকলা বিভাগের পরিচালক সারা আরা মাহমুদ, শহীদ পরিবারের সদস্য তানভীর হায়দার চৌধুরী শোভন ও রোকাইয়া হাসিনা। উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতা শেষে একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হয় মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক নাটক টার্গেট প্লাটুন। বিজয় দিবস উপলক্ষে মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের আয়োজনে চলছে সপ্তাহব্যাপী ‘মানবাধিকার দিবস থেকে বিজয় দিবস’ শীর্ষক উৎসব। রবিবার ছিল এর চতুর্থ দিন। এদিন বিকেলে জাদুঘর প্রাঙ্গণে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করেন মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ইসমাইল মোল্লা।

সোহ্রাওয়ার্দী উদ্যানে ‘রক্ত¯œাত বিজয়’ ॥ আয়োজনের নাম ‘রক্ত¯œাত বিজয়’। কাল ১৫ ডিসেম্বর সোহ্রাওয়ার্দী উদ্যানের গ্লাস টাওয়ারসংলগ্ন বেদিতে আলোকচিত্র প্রদর্শনী ও বিজয় উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। চারদিনব্যাপী এই আয়োজনে থাকছে মুক্তিযুদ্ধের আলোকচিত্র প্রদর্শনী, স্মারক বক্তৃতা, আবৃত্তি, আলোচনাসভা, কনসার্ট, আতশবাজি। এই মহাযজ্ঞের যৌথ আয়োজক মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ও বাংলাদেশ পুলিশ। সহযোগিতা করছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন।

রবিবার সোহ্রাওয়াার্দী উদ্যানের শিখা চিরন্তনের পাশে সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ‘রক্ত¯œাত বিজয়’ অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. খন্দকার বজলুল হক।