২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পেঁয়াজের রফতানি মূল্য কমিয়েছে ভারত

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পেঁয়াজের রফতানি মূল্য প্রতি মেট্রিক টনে ৩০০ ডলার কমিয়েছে ভারত। রফতানিমূল্য কমায় ইতোমধ্যে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। প্রতিকেজি নতুন পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩৫-৪০ টাকায়। তবে এখন দেশী পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬০-৬৫ টাকা। আশা করা হচ্ছে, ভারতে রফতানিমূল্য কমানোর ফলে দেশেও পেঁয়াজের দাম কমে আসবে।

জানা গেছে, রফতানিমূল্য ৭০০ ডলার থেকে কমিয়ে ৪০০ ডলার করা হয়েছে। ভারতের বাণিজ্যমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন সম্প্রতি এক টুইটে সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান বলে এনডিটিভির এক খবরে বলা হয়। ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সভাপতিত্বে কৃষিমন্ত্রী রাধা মোহন সিংও ওই বৈঠকে অংশ নেন।

এদিকে, অকাল বৃষ্টির কারণে ভারতের বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় গত আগস্টে সে দেশের সরকার রফতানিমূল্য প্রতিমেট্রিক টনে ৪২৫ ডলার থেকে বাড়িয়ে ৭০০ ডলার করে। বাংলাদেশের বাজারেও এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে। নিত্যপ্রয়োজনীয় এই খাদ্যপণ্যটির উৎপাদনে ঘাটতির কারণে প্রতিবছর তিন লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি করতে হয় বাংলাদেশকে। এর বেশিরভাগটাই আসে ভারত থেকে। অবশ্য নতুন পেঁয়াজ উঠতে শুরু করায় স্থানীয় বাজারে এই পণ্যের দাম কমতে শুরু করেছে।

এছাড়া, সরকারী সংস্থা ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) বাজার দরের তথ্য অনুযায়ী, কাঁচাবাজারে জাত ও মানভেদে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৬৫ টাকায় বিক্রি হয়েছে। আর প্রতিকেজি আমদানি করা পেঁয়াজ ৩৫ থেকে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এক মাস আগে যা ৪০ থেকে ৫০ টাকা ছিল। পুরান ঢাকার পাইকারি বাজার মৌলভীবাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী রতন কুমার সাহা বলেন, দেশীয় নতুন পেঁয়াজ ওঠায় বাজারে দাম এমনিতেই নিম্নমুখী। ভারত সরকার রফতানিমূল্য কমানোয় আমদানি করা পেঁয়াজের দাম আরও কমবে।