২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পরাজয় এড়াতে লড়ছে শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ডুনেডিনে হার এড়াতে লড়ছে শ্রীলঙ্কা। ৪০৫ রানের পাহাড়সম লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে সফরকারীদের সংগ্রহ ১০৯ রান। জয়ের জন্য ম্যাথুসদের চাই আরও ২৯৬ রান। ইতোমধ্যে শীর্ষ ৩ ব্যাটসম্যানকে খুইয়েছে লঙ্কানরা। ৩১ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন ইনফর্ম দিনেশ চান্দিমাল। রানের খাতা খোলার অপেক্ষায় তার সঙ্গী অধিনায়ক এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস। এরপর স্বীকৃত ব্যাটসম্যান বলতে কেবল কিথরুয়ান ভিতানাগে। সুতরাং সারাদিন ব্যাট করে ম্যাচ নিদেন ড্রর দিকে নিয়ে যাওয়া মোটেও সহজ নয়। ঘুরিয়ে বললে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে জয়ের পথে এগিয়ে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডই। দুই ইনিংসে কিউদের সংগ্রহ ৪৩১ ও ২৬৭/৩ (ডিক্লে)। আর প্রথম ইনিংসে ২৯৪ রানে অলআউট হয় অতিথি লঙ্কানরা।

ম্যাচ বাঁচাতে হলে লঙ্কান কোন ব্যাটসম্যানকে ‘বীর’ হতে হবে। কে হবেন সেই বীর? নেই কুমার সাঙ্গাকারা-মাহেলা জয়াবর্ধনের মতো লিজেন্ড। ক্রিজে থাকা দুই তারকা ম্যাথুস আর চান্দিমালের ওপরই সবকিছু নির্ভর করছে। দ্বিতীয় ইনিংসে টম লাথামের সেঞ্চুরিটা হওয়ার পরই ডিক্লেয়ারের পথ খুঁজছিল নিউজিল্যান্ড। পরিসংখ্যান দেখে ম্যাককুলামকে কেউ হয়ত মাঠে নেমে গোটা কয়েক ছক্কা হাঁকানোর পরামর্শ দিয়ে থাকবেন! হয়েছেও তাই। ৬ বলে ২ ছক্কায় অপরাজিত ১৭Ñ এর মধ্য দিয়ে টেস্টে ছক্কার বিশ্বরেকর্ড স্পর্শ করেন কিউই অধিনায়ক। টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ ১০০ ছক্কায় এ্যাডাম গিলক্রিস্টের সঙ্গে ভাগ বসান ম্যাককুলাম। নিশ্চিত করেই রেকর্ডটি নিজের দখলে নেয়ার সুযোগ তার সামনে। ছক্কায় পরের স্থানগুলোতে যথাক্রমে ক্রিস গেইল (৯৮), জ্যাক ক্যালিস (৯৭) বিরেন্দর শেবাগ (৯১) ও ব্রায়ান লারা (৮৮)।

৩ উইকেট হারিয়ে স্কোর বোর্ডে ২৬৭ রান উঠতেই দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক। এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসদের সামনে জয়ের জন্য নির্ধারিত হয় ৪০৫ রানের বিশাল টার্গেট। সেই লক্ষ্যে ৩ উইকেটে ১০৯ রান তুলতেই বৃষ্টি এসে ধুয়ে দেয় দিনের বাকি খেলা। তখনও বাকি ১৯.৫ ওভার। বৃষ্টির এই শঙ্কাটা আজ পঞ্চম দিনে স্বাগতিক কিউদের জন্য কিছুটা চাপ বয়ে আনবে। জিততে হলে অতিথিদের ৭ উইকেট তুলে নিতে হবে তাদের। শ্রীলঙ্কার ওপেনিং জুটিতে আসে ৫৪ রান। দিমুথ করুনারতেœ আর কুশল মেন্ডিস কিউই বোলারদের ভালই মোকাবিলা করছিলেন। করুনারতেœ ফেরেন ২৯ রানে, উদারা জয়সুন্দরা ৩। বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হওয়ার ঠিক আগের বলে ৪৬ রান করা মেন্ডিসের ফেরাটা লঙ্কানদের জন্য ধাক্কা হয়েই এসেছে। ১৫০ বলে ৫ চারের সাহায্যে বড় ইনিংসের ভিত্তিটা দারুণভাবে দাঁড় করিয়ে ফেলেছিলেন তিনি।

শেষ মুহূর্তে মেন্ডিসকে ফিরিয়ে ম্যাচের লাগাম নিউজিল্যান্ডের হাতে তুলে দেন টিম সাউদি। অভিজ্ঞ করুনারতœকেও ফিরিয়েছেন এই কিউই পেসার। নেইল ওয়াগনার তুলে নেন জয়াসুন্দরকে।

নির্বাচিত সংবাদ