১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই ঘন্টায়    
ADS

যশোরে কাউন্সিলর প্রার্থীদের পছন্দ উটপাখি

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রথম পছন্দ উটপাখি। যে কারণে ওই প্রতীক নিয়ে দেখা দিয়েছে বিড়ম্বনা। কাউন্সিলর পদে রয়েছে ৪৪ প্রার্থী, এদের ৩২ জনই চান উটপাখি প্রতীক।

আইনানুযায়ী আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে সাধারণ কাউন্সিলর পদে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতি ওয়ার্ডে একজনই উটপাখি প্রতীক বরাদ্দ পাবেন অথচ যশোর সদর পৌরসভার ৯ ওয়ার্ডের ৪৪ প্রার্থীর ৩২ জনই উটপাখি বরাদ্দের জন্য আবেদন করেছেন। প্রার্থীদের দাখিল মনোনয়নপত্রে এ আবেদন করা হয়েছে। প্রার্থীদের সকলেরই প্রথম পছন্দ উটপাখি। কাউন্সিলর পদে ১ নম্বর ওয়ার্ডের পাঁচ কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে চারজনই উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছেন। এরা হলেনÑ বিএম লক্ষ্মী, জাহাঙ্গীর আহমেদ শাকিল, মজিবুর রহমান ও হারুণ-অর-রশিদ ফুলু। এ ওয়ার্ডে শুধু বিলকিস সুলতানা সাথি প্রতীক হিসেবে প্রথম পছন্দ দিয়েছেন পানির বোতল ও দ্বিতীয় পছন্দ দিয়েছেন টেবিল ল্যাম্প।

২ নম্বর ওয়ার্ডের পাঁচ কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে তিনজনই উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছে। প্রার্থীরা হলেন শেখ সালাউদ্দীন, তপন কুমার ঘোষ ও মহিউদ্দীন। এ ওয়ার্ডে শেখ রাশেদ আব্বাস রাজ পানির বোতল ও মহিউদ্দীন টেবিল ল্যাম্প প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন। এসএম সাকিল সিদ্দিকী রাজু তার আবেদনপত্রে কোন প্রতীকের নাম উল্লেখ করেনি। ৩ নম্বর ওয়ার্ডে বৈধ ৩ প্রার্থীর সবাই উটপাখি চেয়ে আবেদন করেছেন। প্রার্থীরা হলেনÑ কামরুজ্জামান, মোকসিমুল বারি অপু ও মারুফ হোসেন। ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ প্রার্থীর মধ্যে ২ জন মুস্তাফিজুর রহমান ও রবিউল ইসলাম শাহীন উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছেন। অন্য প্রার্থী নুরুল ইসলাম টেবিল ল্যাম্প প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন। ৫ নম্বর ওয়ার্ডে ৭ প্রার্থীর মধ্যে ৬ জনই উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছেন। এরা হলেন রাজিবুল আলম, এহসানুল হক সেতু, সৈয়দ টিপু মাহমুদ জয়, হাফিজুল ইসলাম, হাফিজুর রহমান ও শাহাজাদা নেওয়াজ। শুধু আব্দার রহমান ডালিম অথবা পানির বোতল প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন। ৬ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ প্রার্থীর মধ্যে ৪ জনই উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছেন। এরা হলেনÑআলমগীর কবীর সুমন, এসএম আজাহার হোসেন স্বপন, মীর্জা আলমগীর আলম ও এ্যাডভোটেক হাজী আনিছুর রহমান মুকুল। শুধু শেখ ইউনুস আলী চেয়ার অথবা মাছ প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন। তবে ইসি ঘোষিত কাউন্সিলরদের প্রতীক তালিকায় এ দুটি প্রতীক নেই। ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ প্রার্থীর মধ্যে ৪ জনই উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছেন। এরা হলেনÑ জুলফিকার আলী, গোলাম মোস্তফা, মহাসিন আলী ও আবু শাহাজালাল। এ ওয়ার্ডে সাজ্জাদ মোস্তফা কোন প্রতীক চেয়ে আবেদন করেননি। ৮ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ প্রার্থীর মধ্যে ৩ জন উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছেন। এরা হলেনÑ শেখ পিয়ার মোহাম্মদ, মনিরুজ্জামান মাসুম ও প্রদীপ কুমার নাথ বাবলু। এ ওয়ার্ডে সন্তোষ দত্ত টেবিল ল্যাম্প প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন। অন্য প্রার্থী আমিরুল ইসলাম কোন প্রতীক চেয়ে আবেদন করেননি। ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ প্রার্থীর মধ্যে ৪ জন উটপাখি বরাদ্দ চেয়ে আবেদন করেছেন। এরা হলেনÑ কাজী নাজির আহমেদ, নুর ইসলাম খান, আজিজুল ইসলাম ও আসাদুজ্জামান বাবুল। অন্য প্রার্থী আবু জাফর ব্লাকবোর্ড অথবা পানির বোতল প্রতীক চেয়ে আবেদন করেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক প্রার্থী জানান, গাজর, ঢেঁড়স, টিউবলাইট, পানির বোতল নিয়ে নির্বাচন করা খুবই কঠিন। কারণ ছবিতে এগুলোকে প্রায় একই রকম মনে হচ্ছে। তাঁরা বলেছেন, একমাত্র উটপাখি ছাড়া সব প্রতীকই ঝামেলা মনে হচ্ছে। নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, মেয়র কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর এই তিন পদে ৪০ জনের জন্য ৪০টি প্রতীক সংক্ষরণ করা হয়েছে।