২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

পুঁজিবাজারে ৫৭.৬৮ ভাগ কোম্পানির দর বেড়েছে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের দুই পুঁজিবাজারেই বৃহস্পতিবারে উর্ধমুখী প্রবণতায় শেষ হয়েছে লেনদেন। বুধবারের তুলনায় দুই বাজারেই বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। একই সঙ্গে উভয় বাজারেই বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ার দর বেড়েছে। এদিন ডিএসইতে ৫৭ দশমিক ৬৮ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে। অপর বাজার সিএসইতে ৫৫ দশমিক ৬০ শতাংশ কোম্পানির দর বেড়েছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, সকালে দরবৃদ্ধির প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে সারাদিনে আর সূচকের পতন ঘটেনি। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সূচক ও লেনদেন বৃদ্ধির গতি বাড়তে থাকে। বিনিয়োগকারীদের অংশগ্রহণ আগের দিনের তুলনায় লেনদেন বেড়ে দাঁড়ায় ৪২৯ কোটি টাকায়, যা বুধবারের চেয়ে ৩৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকা বা ৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ বেশি। আগের দিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৩৯৪ কোটি টাকার শেয়ার।

ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩১৯টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৮৪টির, কমেছে ৮৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৬টির শেয়ার দর।

সারাদিন উর্ধগতির পর ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ১৯ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৬০৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ৪ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে এক হাজার ১০৬ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৭৪৭ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- এসিআই লিমিটেড, বেক্সিমকো ফার্মা, বেক্সিমকো, কাশেম ড্রাইসেলস, সামিট পাওয়ার লিমিটেড, কেডিএস এ্যাক্সেসরিজ, তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশনস কোম্পানি লিমিটেড, আফতাব অটোমোবাইলস, এমআই সিমেন্ট এবং এমারেল্ড অয়েল। দিনটিতে বস্ত্র খাতের আনলিমা ইয়ার্ন ডায়িং লিমিটেড দরবৃদ্ধির সেরা স্থান দখল করেছে। শেয়ারটির দর বেড়েছে ২ টাকা বা ৯ দশমিক ৮০ শতাংশ। দিনটিতে কোম্পানিটির লেনদেন হয় ২২ টাকা ৪০ পয়সা দরে। এদিন কোম্পানির ১১ লাখ ৩৪ হাজার ৪৬টি শেয়ার ৫৭৯ বারে লেনদেন হয়।

দরবৃদ্ধির তালিকার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে এইচআর টেক্সটাইল। কোম্পানির প্রতিটি শেয়ারের দর বেড়েছে ১ টাকা ৯ পয়সা বা ৯ দশমিক ৫০ শতাংশ। এদিন শেয়ারটি সর্বশেষ লেনদেন হয় ২১ টাকা ৯০ পয়সা দরে। কোম্পানির ১ লাখ ৫৮ হাজার ৭৯৭টি শেয়ার ৩১০ বারে লেনদেন হয়। তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা এক্সিম ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট দর বেড়েছে ৫ পয়সা বা ৯ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

এছাড়া গেইনার তালিকায় থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে- এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, বাংলাদেশ ফাইন্যান্স এ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট কোম্পানি, বে-লিজিং এ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড, ন্যাশনাল টিউবস, এ্যারামিট সিমেন্ট, এসিআই ফরমুলেশনস এবং ফার্মা এইডস। একইসঙ্গে চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জে (সিএসই) ৫৫ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ৭১ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৫৪ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৪১টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৪টির, কমেছে ৭১টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো- বেক্সিমকো ফার্মা, স্কয়ার ফার্মা, বেক্সিমকো, সামিট পাওয়ার, রিজেন্ট টেক্সটাইল, মিথুন নিটিং, আইডিএলসি, আফতাব অটোস, আরামিট সিমেন্ট ও সিমটেক্স ইন্ড্রাস্টিজ।