২৩ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টাঙ্গাইলে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে তিন সর্বহারা নেতা নিহত

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল, ২৪ ডিসেম্বর ॥ টাঙ্গাইলে র‌্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিষিদ্ধ ঘোষিত পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টি সর্বহারা গ্রুপের তিন আঞ্চলিক নেতা নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার চরাঞ্চল কাকুয়া ইউনিয়নের ওমরপুর গ্রামে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত তিনজনকে টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় র‌্যাবের ৩ সদস্য আহত হয়েছে।

টাঙ্গাইল র‌্যাবের কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, নিষিদ্ধ ঘোষিত পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টি সর্বহারা গ্রুপের কয়েক সদস্য সদর উপজেলার চরাঞ্চল কাকুয়া ইউনিয়নের ওমরপুর গ্রামের একটি বাড়িতে বসে সন্ত্রাসী কর্মকা- পরিচালনার জন্য গোপন বৈঠক করছিল। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাবের একটি দল বৃহস্পতিবার ভোর ৪টায় ওই বাড়িতে অভিযান চালায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে সর্বহারা দলের সদস্যরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে প্রথমে গুলি করে। এ সময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এতে তিনজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতরা হলো- সদর উপজেলার খুদ্দ যুগনী গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে সাদ্দাম (৩০), দোহাজানী গ্রামের মহর পাগলার ছেলে ওমর আলী (৩৪) ও বেগুনটাল গ্রামের রবিউল্লাহর ছেলে কাশেম (৩৫)। র‌্যাব ঘটনাস্থল থেকে দুইটি বিদেশী ও একটি দেশী পিস্তল, সাত রাউন্ড গুলি, দুইটি ম্যাগজিন ও দুইটি কার্তুজ উদ্ধার করেছে। এদের বিরুদ্ধে টাঙ্গাইলসহ দেশের বিভিন্ন থানায় হত্যা, অপহরণ, গুম ও চাঁদাবাজিসহ ১৫/১৬টি মামলা রয়েছে বলে জানান র‌্যাবের কমান্ডার। এ ঘটনায় র‌্যাবের ৩ সদস্য আহত হয়। এরা হলো- এসআই শামসুজ্জামান, সার্জেন্ট তৈমুর ও কর্পোরাল মোহাম্মদ আলী। এদের টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

টেকনাফে বন্দুকযুদ্ধে ইয়াবা বিক্রেতা নিহত ॥ স্টাফ রিপোর্টার কক্সবাজার থেকে জানান, টেকনাফে নাফনদীর তীরে বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে এক ইয়াবা বিক্রেতা নিহত হয়েছে। ৩০ হাজার পিস ইয়াবা, ব্যবহৃত নৌকা, কিরিচ ও গুলিসহ মোঃ সলিমুল্লাহ নামে অপর এক ইয়াবা বিক্রেতাকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোর ৪টায় নাফনদীর ৩নং সøুইচ গেট আলুগোলার চিংড়ি প্রজেক্টে এ ঘটনা ঘটে।

বিজিবি সূত্র জানায়, নাফনদী হয়ে মিয়ানমার থেকে নৌকাযোগে ৩-৪ ব্যক্তি নেমে বেড়িবাঁধ অতিক্রমকালে বিজিবি জওয়ানরা চ্যালেঞ্জ করলে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে টহলদলও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। উপায়ান্তর না দেখে চোরাচালানিরা পিছু হটলে ঘটনাস্থল থেকে দরবেশ আলীকে (২০) কোমরে ও বুকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। সে মিয়ানমারের আকিয়াব জেলার মংডু থানার মুন্ডার ডেইল গ্রামের বাসিন্দা বলে জানা গেছে।