২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গেইলদের না পাওয়ায় হতাশ কোচ সিমন্স

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ২৬ ডিসেম্বর ‘বক্সিং ডেতে’ শুরু হচ্ছে অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট। দাপটের সঙ্গে প্রথম ম্যাচ জিতে ১-০তে এগিয়ে স্বাগতিক অসিরা। ম্যাচটা তাই অতিথি ক্যারিবীয়দের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সিরিজে টিকে থাকতে হলে জয়ের বিকল্প নেই জেসন হোল্ডারদের। ক্রিস গেইলসহ এক ঝাঁক তারকা ক্রিকেটারের অনুপস্থিতিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাদের অস্তিত্বই হুমকির মুখে। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ সামনে রেখে সেটি অকপটে স্বীকার করেছেন ফিল সিমন্স। এর একটা অবসান চাইছেন উইন্ডিজ কোচ। ওদিকে দুর্বল অতিথিদের প্রতি এতটুকু করুণা নয়, বরং নিজেদের সেরা খেলাটা খেলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ নিশ্চিত করতে চাইছেন অস্ট্রেলিয়া ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। আর পুরোপুরি ফিট না হওয়া সত্ত্বেও খেলাটা চালিয়ে যেতে চান কালই আইসিসির বর্ষসেরা নির্বাচিত হওয়া অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ।

ক্রিস গেইল, ডোয়াইন ব্রাভো, আন্দ্রে রাসেলরা দেশ ছেড়ে খেলছেন বিগব্যাশ টি২০তে। অথচ সেই অস্ট্রেলিয়াতেই ধুঁকছে ক্যারিবীয়রা। হোবার্টে প্রথম টেস্টে কার্যত অসহায় আত্মসমর্পণ করে হোল্ডারের দল। তিন দিনেই হারে ইনিংস ও ২১২ রানের ব্যবধানে। তুখোড় সব তারকাদের ফেরাতে সিমন্স তাই উইন্ডিজ বোর্ডের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। ‘আমি পুরোপুরি হতাশ। উপভোগ্য (আন্দ্রে) রাসেলকে ১৪০ কিলোমিটার ঘণ্টায় বল করতে, (ডোয়াইন) ব্রাভোকে চার ছক্কা মারতে ও ক্রিসকে (গেইল) খেলতে না দেখাটা সত্যি হতাশার। তাদের টেস্টে খেলতে না দেখা কষ্টের। তবে এটাই বেশ কিছুদিন হলো চলে আসছে।’ এর সমাধান কোথায়? সিমন্স বলছেন, ‘এ থেকে কিভাবে বের হয়ে আসা যায় তা বের করা প্রশাসকদের দায়িত্ব। নিউজিল্যান্ডকে দেখুন। তাদের একই ধরনের সমস্যা আছে। কিন্তু তারা সব খেলোয়াড়কেই খেলার জন্য পাচ্ছে। আমরা এই খেলোয়াড়দের কিভাবে পেতে পারি তা বোর্ডকেই বের করতে হবে।’ বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান গেইল টেস্ট খেলছেন না বছর খানেক হলো। তিনি অবশ্য বলছেন, ইনজুরির কারণেই টেস্ট থেকে দূরে সরে আছেন। পুনর্বাসন প্রক্রিয়া শেষ হলে আবার ফিরবেন টেস্টে। অথচ ঠিকই বিশ্বজুড়ে টাকার খেলা টি২০তে খেলে যাচ্ছেন! ওয়েস্ট ইন্ডিজ যখন ধুঁকছে তখন যথারীতি নিজেদের স্টাইলে হুঙ্কার ছুড়েছেন ওয়ার্নার। অস্ট্রেলিয়া সহ-অধিনায়ক বলেন, ‘এটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ, সিরিজও। তাই কোনরকম ছাড় নয়। বক্সিং ডে টেস্টেই আমরা সিরিজ নিশ্চিত করতে চাই।’